ঢাকা, বুধবার 02 November 2016 ১৮ কার্তিক ১৪২৩, ১ সফর ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

‘নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের গ্যারান্টি পেলে বিএনপি অংশ নেবে’

স্টাফ রিপোর্টার: দেশে আজ গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে একটি সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন প্রয়োজন বলে মনে করেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান। তিনি বলেন, একটি গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের জন্য একটি স্বাধীন, সার্বভৌম নির্বাচন কমিশন দরকার। একটি নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন অনুষ্ঠানের গ্যারান্টি পেলে বিএনপি অবশ্যই তাতে অংশ নেবে।
গতকাল মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে ভয়েস অব ডেমোক্রেসি এর উদ্যোগে ‘জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস’ উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
আয়োজক সংগঠনের সভাপতি অ্যাডভোকেট জিল্লুর রহমান রিন্টুর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মোহাম্মাদ রহমতউল্লাহ, খালেদা ইয়াসমিন, চিত্রনায়িকা শায়লা, বিএনপি নেতা কাজী মনিরুজ্জামান মনির, জাহাঙ্গীর হোসেন প্রমুখ।
আব্দুল্লাহ আল নোমান বলেন, পাকিস্তানের বিজাতীয় শোষণের বিরুদ্ধে যে লড়াই একাত্তরে শুরু হয়েছিল, তা আজও শেষ হয়নি। এখনো দেশে গণতন্ত্র নেই, আজো কথা বলার অধিকার নেই। হামলা আর মামলা রাজনীতিকদের নিত্যসঙ্গী।
বিএনপি নেতা বলেন, দেশে জনগণের ভোটাভুটির সুযোগ সৃষ্টি করতে হবে। যার প্রধান বাহন নির্বাচন কমিশন। আমার ভোট আমি দেব, যাকে খুশি তাকে দেব- এমন পরিস্থিতি তাদেরই সৃষ্টি করতে হবে।
বাংলাদেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছে গণমাধ্যমে প্রকাশিত এমন প্রতিবেদনের তথ্য তুলে ধরে তিনি বলেন, খাদ্য উৎপাদন হচ্ছে, কিন্তু সেসব কেনার ক্ষমতা সাধারণ মানুষের নেই।
১০ টাকা চাল বিতরণের নামে আওয়ামী লীগ কর্মীরা লুটপাট করছে অভিযোগ করে নোমান বলেন, এ বিষয়ে প্রতিদিন গণমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশ হলেও তার কোনো প্রতিকার হচ্ছে না।
তিনি বলেন, প্রতিদিন দেশে যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ আওয়ামী লীগের বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের মধ্যে অভ্যন্তরীণ কোন্দলে গুলী চলছে, জবাই হচ্ছে। এসব ক্ষেত্রে পুলিশ প্রশাসনের নীরবতা আমাদের হতাশ করে তুলেছে। এ থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য জনগণের ভোটাধিকার জরুরি।
তিনি সংবিধান সংশোধন সর্ম্পকে বলেন, ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সংবিধানের যে সব ধারায় সংশোধন এনেছে ভবিষ্যতে ‘প্রতিনিধিত্বশীল সরকার’ ক্ষমতায় গেলে সেগুলো পুনর্বিবেচনা করা হবে। জনস্বার্থে নয়, বরং নিজেদের স্বার্থেই আওয়ামী লীগ সংবিধানের বিভিন্ন ধারায় পরিবর্তন এনেছে বলেও অভিযোগ করেন বিএনপির এই নেতা।
আলোচনা সভায় অংশ নিয়ে ৭ নবেম্বর বিএনপিকে সমাবেশ করতে দেওয়া হবে না বলে আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফের বক্তব্যের কঠোর সমালোচনা করেন দলটির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল।
তিনি বলেন, ‘৭ নবেম্বর যেকোনো মূল্যে সমাবেশ করা হবে। হানিফের ক্ষমতা থাকলে যেন সে বাধা দেয়।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ