ঢাকা, বুধবার 02 November 2016 ১৮ কার্তিক ১৪২৩, ১ সফর ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

ভালুকায় পিকআপ চাপায় তিন গার্মেন্টস শ্রমিক নিহত আহত ৭

ভালুকা (ময়মনসিংহ) সংবাদদাতা : ভালুকায় পিকাপ চাপায় রাসেল স্পিনিং মিলের তিন শ্রমিক নিহত ও আরো কয়েকজন গুরুতর আহত হয়েছে।ঘটনাটি ঘটে মঙ্গলবার ভোর সারে ৬ টার সময় উপজেলার কাঠালী গ্রামের রাসেল মিলের সামনে ঢাকা- ময়মনসিংহ মহাসড়কে জানাযায়,মঙ্গলবার ভোরে শ্রমিকেরা রাত্রের শিফটের ডিউটি শেষে বাড়ি যাওয়ার জন্য রাস্তার পাশে ১০/১২ জন শ্রমিক গাড়ির জন্য অপেক্ষায় ছিল।এমন সময় আচমকা ঢাকা থেকে ময়মনসিংহগামী একটি পিকাপ নিয়ন্ত্র হারিয়ে শ্রমিকদের উপর উঠে গেলে কাঠালীগ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে আশরাফউদ্দিন (২২) ও হিরু সিকদারের ছেলে আনোয়ার (২০) ঘটনাস্থলেই মারা যায়,পরে হাসপাতালে নেওয়ার পথে মামারিশপুর গ্রামের রমিজউদ্দিনের স্ত্রী আমেনা খাতুন মারা যায়। আহতদের উদ্ধার করে প্রথমে ভালুকা উপজেলা সাস্থ্যকমপ্লেক্স ও পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। আহতরা হলেন,আসমা,আনিছ,ফরহাদ,ওলি ও এনামুল।নিহত আশারাফ উদ্দিন ও আনোয়ারের লাশ উদ্ধার ভালুকা মডেল থানায় নিয়ে গেছে পুলিশ এবং আমেনার লাশ বাড়িতে নিয়ে গেছে পরিবারের লোকজন।

স্বেচ্ছাসেবকদল নেতার মৃত্যু : উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকদলের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক কামরুজ্জামান তুলুর (৪৮) মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। ১০অক্টোবর এক মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় মারাত্মকভাবে আহত হলে সিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার ভোর রাতে তিনি ঢাকার একটি হাসপাতালে মারা যান।নিহতের পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, ১০ অক্টোবর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকদলের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক ভালুকা এস আর অফিসের দলিল লেখক উপজেলার ভরাডোবা গ্রামের মৃত মিয়া চাঁনের ছেলে কামরুজ্জামান তুলু তার শিশু ছেলে তুষারকে (৯) নিয়ে মোটরসাইকেলে করে ভালুকা বাজারে যাওয়ারপথে পৌরসভার থানারমোড় এলাকায় এক সড়ক দুর্ঘটনায় তারা উভয়েই গুরুতর আহত হন। 

আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাদের প্রথমে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য কামরুজ্জামান তুলুকে ঢাকার মহাখালি আয়েশা মেমোরিয়াল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। দীর্ঘদিন চিকিৎসাধীন থাকার পর সোমবার ভোর রাতে তিনি ওই হাসপাতালেই মারা যান। আহত শিশুছেলে তুষারকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। সোমাবার বাদ আসর উপজেলার ভরাডোবা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে নামাজে জানাযা শেষে মরহুমের লাশ তার পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করাহয়েছে।

 নামাজে জানাযায় কেন্দ্রীয় কৃষকলীগ নেতা আশরাফুল হক জর্জ উপজেলা বিএনপির সহসভাপতি হাবিবুল্লাহ চৌধুরী,আইয়ুব আলী সরকার,আঃরহিম আকন্দসহ আ’লীগ ও বিএনপির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ পরিবারের তার আহত শিশু সন্তান তুষার স্প্রতিচারণ ও মাগফিরাত কামনা করে বক্তব্য রাখেন।মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী শামছুন্নাহার শিশু ছেলে তুষার ও শিশু কন্যা তুয়াসহ(৫) অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা কামরুজ্জামান তুলুর অকাল মৃত্যুতে উপজেলা বিএনপির সভাপতি ফখর উদ্দিন আহমদ বাচ্চুসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ¦ গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ