ঢাকা, বৃহস্পতিবার 03 November 2016 ১৯ কার্তিক ১৪২৩, ২ সফর ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

বিজিবির নতুন প্রধান আবুল হোসেন

স্টাফ রিপোর্টার : বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) মহাপরিচালক হিসেবে নতুন দায়িত্ব পেয়েছেন মেজর জেনারেল আবুল হোসেন। গতকাল বুধবার রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মু. জসীম উদ্দিন খান স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য জানানো হয়।
আবুল হোসেন রাষ্ট্রপতির সামরিক সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ১৯৮১ ব্যাচের এই কর্মকর্তা বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) মহাপরিচালক পদে মেজর জেনারেল আজিজ আহমেদের স্থলাভিষিক্ত হচ্ছেন।
প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, ‘মেজর জেনারেল আবুল হোসেনকে বিজিবির মহাপরিচালক পদে প্রেষণে নিয়োগের নিমিত্ত তাঁর চাকরি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ন্যস্ত করা হলো।’ মেজর জেনারেল আজিজ আহমদকে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে প্রত্যর্পণ করা হয়েছে। এ আদেশ অবিলম্বে কার্যকর করা হবে বলেও জানানো হয়েছে।
পিলখানায় বিডিআর বিদ্রোহের ভয়াবহতা পেরিয়ে সীমান্তরক্ষা বাহিনীর নাম ও পোশাক বদলে যাওয়ার পর ২০১২ সালে এ বাহিনীর দায়িত্ব নিয়েছিলেন জেনারেল আজিজ। গত চার বছরে সীমান্তের পাশাপাশি দেশের ভেতরে রাজনৈতিক অস্থিরতায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্বও এ বাহিনীকে পালন করতে হয়েছে।
জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় এক আদেশে মেজর জেনারেল আজিজ আহমেদকে সেনাবাহিনীর দায়িত্বে ফেরত পাঠানোর কথা জানিয়েছে। তাকে নতুন কোনো দায়িত্ব দেওয়া হচ্ছে কি না, সে বিষয়ে সরকারের কোনো ভাষ্য এখনও আসেনি। 
সেনাবাহিনীর ইঞ্জিনিয়ারিং কোরের কর্মকর্তা আবুল হোসেন এর আগেও বিজিবিতে দায়িত্ব পালন করেছেন সেক্টর কমান্ডার হিসেবে। এবার মহাপরিচালক হিসেবে সীমান্ত ব্যাংকের চেয়ারম্যানের দায়িত্বও তাকে পালন করতে হবে। বিজিবি কল্যাণ ট্রাস্টের অধীনে সম্প্রতি এই তফসিলি ব্যাংকের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
 মেজর জেনারেল হোসেন রাষ্ট্রপতির সামরিক সচিবের দায়িত্ব নিয়ে বঙ্গভবনে আসার আগে সেনা সদরদপ্তরের ইঞ্জিনিয়ার ইন চিফ এবং মিরপুরে সেনাবাহিনী পরিচালিত মিলিটারি ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি এবং গাজীপুরে বাংলাদেশ সমরাস্ত্র কারখানার কমান্ডেন্টের দায়িত্ব পালন করেন।
এক সময় ঢাকা সিটি করপোরেশনের প্রধান প্রকৌশলীর দায়িত্ব পালন করা আবুল হোসেন কুয়েতে জাতিসংঘ শান্তি মিশনেও নেতৃত্বের পর্যায়ে কাজ করেছেন।
বুয়েট থেকে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ডিগ্রি পাওয়া এই সেনা কর্মকর্তা ব্যবসায় প্রশাসন ও ডিফেন্স স্টাডিজে মাস্টার্স করেছেন। চীন, তুরস্ক ও যুক্তরাজ্যসহ বিভিন্ন দেশে নিয়েছেন প্রশিক্ষণ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ