ঢাকা, শুক্রবার 04 November 2016 ২০ কার্তিক ১৪২৩, ৩ সফর ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

রাজশাহী শহর রক্ষা গ্রোয়েনের ব্লক ধসে পড়ছে ॥ হুমকিতে মূল বাঁধ

রাজশাহী অফিস : রাজশাহী শহর রক্ষা গ্রোয়েনের ব্লক ধসে পড়ছে। এর ফলে হুমকির মুখে পড়েছে মূল শহর রক্ষা বাঁধ। কদিন আগেই রাজশাহী নগরীর সেখেরচক বিহারীবাগান এলাকায় পদ্মা নদীর পাড় ঘেঁষা একটি সড়কে (ওয়াকওয়ে) ভয়াবহ ধসের পর এবার নগরীর বুলনপুর এলাকায় বাঁধের বিশাল অংশ দেবে গেছে।
পদ্মানদীর পানি দ্রুত কমতে শুরু করায় লন্ডভন্ড হয়ে গেছে বাঁধের ব্লক। গত বর্ষায় পানি বৃদ্ধির পর এ বাঁধ হুমকির মুখে পড়লে পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) তড়িঘড়ি করে কাঁচা ব্লক পানির নিচে ফেলায় এখন সেসব ব্লক ধসে একাকার হয়ে গেছে। বুধবার নগরীর বুলনপুর এলাকায় পুলিশ লাইনের সামনের বাঁধে গিয়ে দেখা যায়, বাঁধের ব্লকগুলো খসে লন্ডভন্ড হয়ে গেছে। বাঁধের বিশাল এলাকাজুড়ে ধস নেমেছে। সব সরে এলোমেলো হয়ে গেছে। এ অবস্থায় বাঁধের ওই অংশ চরম ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। হঠাৎ বাঁধের বিশাল অংশ ধসে পড়ায় শঙ্কায় রয়েছেন এলাকাবাসী। স্থানীয়দের ভাষ্য এলাকাবাসীর বাধা সত্ত্বেও পাউবো কর্তৃপক্ষ অদক্ষ ঠিকাদারদের কাজে লাগিয়ে কোটি টাকার কাচা ব্লক সেখানে ফেলে। ফলে পানি কমে যাওয়ায় এখন ব্লক সরে বিশাল অংশ দেবে গেছে। এখনই সংস্কার না করলে পদ্মার এ বাঁধ ভবিষ্যতে নগরবাসীর জন্য বড় ধরনের বিপদের কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে। পদ্মার বাঁধের কারণে রাজশাহী পুলিশলাইন ও বুলনপুর এলাকা ব্যাপক ক্ষতির মুখে পড়তে পারে। জানা গেছে, গেল বর্ষায় পদ্মায় অস্বাভাবিক পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় তীব্র ভাঙন দেখা দেয় নগরীর পুলিশ লাইননের সামনের শহর রক্ষা মূল বাঁধে। বিশাল অংশজুড়ে নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যায়। ওই সময় তীব্র স্রোতে বাঁধের ব্লক খুলে নদীতে চলে গেছে। পুলিশ লাইনের দক্ষিণ পাশের রাস্তার ওপরে বাঁধের নিচে বিশাল অংশজুড়ে নদীগর্ভে বিলীন হওয়ায় বাঁধের বেশ কিছু নারিকেল গাছও তলিয়ে যায়। এর  প্রেক্ষিতে রাজশাহী পানি উন্নয়ন বোর্ড বাঁধের নিচে ‘প্রোটেকশন ওয়ার্ক’ শুরু করে। এ কাজে করা হয় চরম অনিয়ম। সে সময়ে প্রবল স্রোতের সময় রাতারাতি কোটি টাকার প্রকল্প তৈরি করে কাঁচা ব্লক ফেলে আপৎকালীন বাঁধ রক্ষা করা হয়। ব্লক ও জিও ব্যাগ ফেলে বাঁধ রক্ষা করা হলেও তিন মাসের ব্যবধানে সেসব ব্লকের এখন আর কোনো অস্তি¡ত্ব নেই। শুষ্ক মওসুম শুরুর সঙ্গে সঙ্গে নদীতে পানির টান পড়ায় এলোমেলো হয়ে গেছে সব ব্লক। স্থানীয়রা জানান, হঠাৎ করেই বুলনপুরের এ এলাকার বিশাল অংশ ধসে পড়েছে। পানি আরো কমে গেলে পুরো বাধ ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। এর প্রতিক্রিয়া হতে পারে বাঁধের অন্যান্য এলাকাতেও।
এদিকে কয়েকদিন আগে মহানগরীর সেখেরচক বিহারীবাগান এলাকায় পদ্মা নদীর পাড় ঘেঁষা একটি সড়কে (ওয়াকওয়ে) ভয়াবহ ধস নেমেছে। প্রায় ২০০ মিটার সড়ক পাঁচ ফুটের মতো দেবে সড়কের পাশের ফুটপাতও ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এ নিয়ে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের (রাসিক) ও পানি উন্নয়ন বোর্ড পাল্টাপাল্টি মন্তব্য করলেও এ ওয়াকওয়ে সংস্কারের কোনো উদ্যোগ এখনো নেয়া হয়নি। এরইমধ্যে নগরীর বুলনপুর এলাকার বিশাল অংশের ব্লক দেবে গেলেও সহসা তা সংস্কারের উদ্যোগ নেই পাউবোর।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ