ঢাকা, শুক্রবার 04 November 2016 ২০ কার্তিক ১৪২৩, ৩ সফর ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

দুর্নীতি ও অসদাচরণের অভিযোগে বিচারক বরখাস্ত

স্টাফ রিপোর্টার : অসদাচরণ, অদক্ষতা ও দুর্নীতির অভিযোগে জেলা ও দায়রা জজ এস এম আমিনুল ইসলামকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে। আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আইন ও বিচার বিভাগ থেকে গতকাল বৃহস্পতিবার তাকে চাকরি থেকে বরখাস্তের (ডিসমিসাল ফ্রম সার্ভিস) প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব আবু সালেহ শেখ মো. জহিরুল হক স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে বরখাস্তের এই আদেশ জারি করা হয়।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, কুমিল্লার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের সাবেক বিচারক এস এম আমিনুল ইসলামের (বর্তমানে আইন মন্ত্রণালয়ে সংযুক্ত) বিরুদ্ধে ১৯৮৫ সালের সরকারি কর্মচারী (শৃংখলা ও আপিল) বিধিমালা অনুযায়ী অদক্ষতা, অসদাচরণ ও দুর্নীতির কারণে ২০১২ সালে মামলা করা হয়। এরপর এ বিষয়ে শুনানিকালে তার বক্তব্য, তদন্ত প্রতিবেদন ও সংশ্লিষ্ট কাগজপত্র পর্যালোচনা করে অভিযোগের প্রমাণ পাওয়া যায়।

এরপর আইন মন্ত্রণালয় তাকে চাকরি থেকে বরখাস্তের সারসংক্ষেপ রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ে চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য পাঠায়। রাষ্ট্রপতির অনুমোদনের পরই তাকে চাকরিচ্যুত করে সরকারি আদেশ জারি করে মন্ত্রণালয়। সুপ্রিম কোর্টও এই বিচারককে চাকরি থেকে বরখাস্তের অনুমোদন দেন। 

এর আগে গত ২৪ অক্টোবর দুর্নীতি, অসদাচরণ ও অদক্ষতার দায়ে ঠাকুরগাঁওয়ের সাবেক জেলা ও দায়রা জজ মো. রুহুল আমিন খোন্দকার ও খুলনার সাবেক অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মঈনুল হককে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়েছিল। গত ৬ অক্টোবর একই অভিযোগে জামালপুরের সাবেক অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মো. সিরাজুল ইসলামকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়। এছাড়া গত ৩০ জুন প্রধান বিচারপতিকে নিয়ে ঔদ্ধত্যপূর্ণ, শিষ্টাচারবহির্ভূত, অশালীন, অসংযত আচরণের অভিযোগে ঢাকার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মো. জুয়েল রানাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ