ঢাকা, শুক্রবার 04 November 2016 ২০ কার্তিক ১৪২৩, ৩ সফর ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

কলাপাড়ার ধুলাসারে জেলেদের ভিজিএফ চাল বিতরণে অনিয়ম ৬০ জেলে খালি হাতে বাড়ি

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) সংবাদদাতা : কলাপাড়া উপজেলার ধুলাসারে জেলেদের ইলিশ প্রজননকালীন নিষোধাজ্ঞার দেয়া খাদ্য সহায়তার চাল বিতরণ নিয়ে চরম অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। অন্তত ৬০ জেলের নাম তালিকায় থাকলেও চাল পায়নি তারা। বিক্ষুব্ধ বঞ্চিত জেলেরা প্রায় দুই ঘন্টা ইউপি কার্যালয়ের সামনে অবস্থান করে খালি হাতে ফিরে গেছে। এ ছাড়া যাদেরকে চাল দেয়া হয়েছে তাদেরকে ১২ কেজি থেকে সর্বোচ্চ ১৫/১৬ কেজি চাল দেয়া হয়েছে। বুধবারের চাল বিতরণ নিয়ে ঘটে গেছে চরম অনিয়ম আর নৈরাজ্য। 

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ধুলাসারে ১৩৫০ জন জেলের জন্য ২০ কেজি করে চাল সরকারিভাবে বরাদ্দ (বিশেষ ভিজিএফ) দেয়া হয়েছে। খাদ্য গুদাম থেকে এ চাল উত্তোলনের পরে ইউপি কার্যালয়ে নিয়ে তদারকি কর্মকর্তার স্টক যাচাই-বাছাইয়ের পরে বিতরণ করার কথা। কিন্তু এসব কিছুই হয়নি। শুরুতেই ১২ কেজি থেকে ১৫ কেজি করে চাল বিতরণ শুর করা হয়। বঞ্চিত হয় তালিকাভুক্ত অন্তত ৬০ জেলে। চরচাপলীর শামীম, জিয়া, হেলাল, বিধবা নুরুন্নাহার, কাউয়ার চরের শাহনাজ বেগম, চরচাপলীর মতলেব, ইমাম জমাদ্দার, কাঞ্চন, বাহাদুর, ফেরদৌস, আবুবকর এবং ইলিয়াস এদের মতো অসংখ্য জেলে তিনটা পর্যন্ত চালের অপেক্ষায় থেকে ইউপি কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নেয়। এছাড়া রাজা মিয়ার ছেলে নাসির জানান, তাকে ১২ কেজি চাল দেয়া হয়েছে। একই দাবি নেছারুদ্দিনের। 

ইউপি চেয়ারম্যান কেএম খালেকুজ্জামান জানান, চাল বিতরণের দায়িত্বে ছিল নুরুদ্দিন মেম্বার। নুরুদ্দিন মেম্বার জানান, প্রত্যেক মেম্বার তার চাল বুঝ করে নিয়ে গেছে। তারা ঠিকমতো না দিলে তিনি কি করবেন-এমন পাল্টা প্রশ্ন করেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবিএম সাদিকুর রহমান জানান, অভিযোগ পেলে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ