ঢাকা, রোববার 06 November 2016 ২২ কার্তিক ১৪২৩, ৫ সফর ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

চৌদ্দগ্রামে মুমূর্ষু স্বামীর টিপসই নিয়ে ২২ শতক জায়গা আত্মসাৎ করল স্ত্রী!

চৌদ্দগ্রাম (কুমিল্লা) সংবাদদাতা : কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে মুমূর্ষু বৃদ্ধ রুস্তম আলীর জোরপূর্বক টিপসই নিয়ে ২২ শতক জায়গা আত্মসাৎ করলেন তৃতীয় স্ত্রী জাহানারা বেগম। শুক্রবার সন্ধ্যায় স্থানীয় একটি হোটেলে সংবাদ সম্মেলনে প্রথম স্ত্রীর সন্তানরা এ অভিযোগ করেন। রাতে মুমূর্ষু রুস্তম আলী ইন্তিকাল করেছেন। তিনি চৌদ্দগ্রাম পৌরসভার পশ্চিম ধনমুড়ি গ্রামের মৃত আমির উদ্দিনের পুত্র।
লিখিত বক্তব্যে রুস্তম আলীর ছেলে প্রবাসী কবির আলী বলেন, ‘তার পিতা অসুস্থ রুস্তম আলীকে গত ২৪ অক্টোবর কুমিল্লা মেডিকেল সেন্টারে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসায় ব্লাড ক্যান্সার রোগ ধরা পড়ায় চিকিৎসা সম্ভাবনা না থাকায় কর্তব্যরত চিকিৎসক গত মঙ্গলবার তাকে বাড়িতে রেখেই নিয়মিত ওষুধ সেবনের পরামর্শ দেন। সেদিনই রুস্তম আলীকে বাড়িতে নিয়ে আসা হয়। পরদিন বুধবার মুমূর্ষু রুস্তম আলীকে বাতিসায় মেয়ের বাড়িতে নেয়ার কথা বলে গুণবতী সাব রেজিস্ট্রি অফিসে নিয়ে যান তৃতীয় স্ত্রী জাহানারা বেগম। সেখানে রুস্তম আলীর অনিচ্ছা সত্ত্বেও জোরপূবৃক টিপসই নিয়ে বসতবাড়ি ও পুকুর পাড়ের ২২ শতক জায়গা হেবানামার (দলিল নং-২৭৪২) মাধ্যমে আত্মসাৎ করে। ইতঃপূর্বে তার এসব কাজের বিরোধিতা করায় নিজ ছেলে জাফর ইকবালকে স্থানীয় কুচক্রী মহলের সহায়তায় থানায় সোপর্দ করে। কবির আলী সংবাদ সম্মেলনে জাহানারা বেগমের প্রকৃত চেহারা উনোমাচনের দাবি জানান। সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ছোট বোন রেহানা আক্তার শাহীন, চাচোতা ভাই আলম মিয়াজী, জেঠাতো ভাই নজরুল ইসলাম, ইয়াছিন ভূঁইয়া, আত্মীয় আবদুল খালেক ব্যাপারী ও দ্বীন ইসলাম। ২২ শতক জায়গা আত্মসাতের বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।
এব্যাপারে গতকাল শনিবার দুপুরে গুণবতী সাব-রেজিষ্ট্রি অফিসের সাব-রেজিষ্ট্রার মোঃ আবু তালেব বলেন, ‘সেদিন ৩৫টি দলিল রেজিষ্ট্রি হয়েছে। তার মধ্যে দুইটি কমিশনে। তবে ২৭৪২নং দলিলটি কিভাবে হয়েছে-এই মুহূর্তে আমার জানা নেই’।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ