ঢাকা, সোমবার 07 November 2016 ২৩ কার্তিক ১৪২৩, ৬ সফর ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার মধ্যেও করদাতাদের ভিড় কমছে না

স্টাফ রিপোর্টার : দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার মধ্যে মেলায় আয়কর দাতাদের ভিড় কমছে না। নিম্নচাপের প্রভাবে রাজধানীসহ সারা দেশে থেমে থেমে বৃষ্টি হচ্ছে। মেলার সময় বাড়াতে আগ্রহী করদাতাদের চাপ থাকলেও আজ শেষ হচ্ছে আয় কর মেলা।
গতকাল রোববার সকালে ভিড় একটু কম থাকলেও দুপুরের পর থেকে প্রতিটি বুথের সামনে করদাতাদের উপচেপড়া ভিড় দেখা যায়। করদাতাদের সেবা দিতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছেন কর কর্মকর্তারা।
দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে সেবা নিতে গিয়ে কোনো কোনো করদাতা অভিযোগও করছেন। এইটুকু ভোগান্তি আবার মেনেও নিচ্ছেন। আয়কর মেলার তথ্য ও সেবা কেন্দ্র, ই-টিআইএন রেজিস্ট্রেশন কেন্দ্র, রিটার্ন জমার জন্য করাঞ্চলের বুথ ও ই-ফাইলিং ইত্যাদি বুথ ঘুরে এমন চিত্র চোখে পড়েছে।
অনেকেই আয়কর রিটার্ণ জমা দেওয়ার বুথ ও টাকা জমা দেওয়ার বুথের সংখ্যা বাড়ানোর তাগিদ দিলেন।
রাজধানীর মিরপুর এলাকা থেকে মেলায় ই-ফাইলিং বুথে ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড নিতে এসেছেন সোহেল রানা। তিনি বলেন,  বৈরী আবহাওয়া সত্ত্বেও অনলাইনে কীভাবে আয়কর রিটার্ন দাখিল করা যায়, তা জনতে মেলায় এসেছি। অনলাইন সার্ভিস পাওয়ার জন্য ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড নিলাম। এখন ঘরে বসেই রিটার্ণ জমা দিতে পারবো। একটু জটিল হলেও এই আধুনিক  সিস্টেম ভালো লেগেছে।
এ বিষয়ে এনবিআরের সদস্য (আয়কর সেবা ও তথ্য ব্যবস্থপনা) কালিপদ হালদার বলেন, আয়কর মেলার শুরু থেকেই ই-ফাইলিং বুথে ভিড় লেগে আছে। প্রথমে একটি বুথ ছিলো। করদাতাদের সুবিধার কথা চিন্তা করে বুথের আয়তন ও সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে। অনলাইনে রিটার্ন দাখিলের প্রতি করদাতাদের বেশ আগ্রহ রয়েছে। মেলার সার্বিক পরিস্থিতিও সন্তোষজনক।
কর প্রদানের প্রতি ব্যক্তি শ্রেণির করদাতাদের উৎসাহিত করতে প্রতিবছর আয়কর মেলার আয়োজন করে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। মেলায় ই-টিআইএন রেজিস্ট্রেশন, ই-পেমেন্ট ও অনলাইনে আয়কর বিবরণী দাখিলসহ কর সংক্রান্ত সব সেবা পাওয়া যায়।
এনবিআর সূত্রে জানা গেছে, শনিবার পর্যন্ত আয়কর মেলার ৫ দিনে সারা দেশে মোট ১৪১৭ কোটি ১২ লাখ ৪৩ হাজার ৫৫১ টাকার আয়কর সংগ্রহ হয়েছে। একই সময়ে সারা দেশে ৬ লাখ ৩৮ হাজার ১৬ জন সেবা  গ্রহণ ও ১ লাখ ২১ হাজার ১৩১ জন আয় রিটার্ন দাখিল করেছেন।
 মেলায় করদাতাদের আসার সুবিধার জন্য রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে বাস প্রদান করা হয়েছে। মেলায় করদাতারা আয়কর বিবরণীর ফরম থেকে শুরু করে কর পরিশোধের জন্য ব্যাংক বুথও পাচ্ছেন। আর করদাতাদের সহায়তা করার জন্য সহায়তা কেন্দ্র আছে। একই ছাদের নিচে মিলছে সব সেবা। করদাতার শুধু প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সঙ্গে আনলেই হবে। এ ছাড়া এবারই প্রথমবারের মতো অনলাইনে রিটার্ন জমা বা ই-ফাইলিং করার সুযোগ রয়েছে। আয়কর মেলায় এবারে মোট বুথের সংখ্যা ১০৯টি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ