ঢাকা, সোমবার 07 November 2016 ২৩ কার্তিক ১৪২৩, ৬ সফর ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

রাবি শিক্ষক রেজাউল হত্যায় চার্জশিট দাখিল অভিযুক্ত ৮ জেএমবি

রাজশাহী অফিস : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক ড. এ এফ এম  রেজাউল করিম সিদ্দিকী হত্যা মামলার অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দিয়েছে পুলিশ। প্রায় ৬মাসের তদন্ত শেষে গতকাল রোববার বিকেলে রাজশাহী মহানগর পুলিশের পক্ষ থেকে আদালতে অভিযোগপত্রটি জমা দেয়া হয়। অভিযোগপত্রে এই মামলায় ৮ জনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। এরা জেএমবি’র সদস্য বলে জানা গেছে।
অভিযুক্তদের মধ্যে বিভিন্ন স্থানে বন্দুকযুদ্ধে ৩ জন মারা গেছে। চারজন রয়েছে কারাগারে। আর অন্যতম অভিযুক্ত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের ছাত্র শরিফুল ইসলাম রয়েছে আত্মগোপনে। পুলিশের তদন্তে বেরিয়ে এসেছে, জেএমবির পরিকল্পনা অনুযায়ী খুন করা হয় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক রেজাউল করিমকে। আর এই হত্যাকাণ্ডের মূল পরিকল্পনাকারী ছিলো অধ্যাপক রেজাউল করিমের ছাত্র শরিফুল ইসলাম। হত্যাকাণ্ডে সরাসরি অংশ নেয়া চারজনের মধ্যে রাজশাহী পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে মারা গেছে বাইক হাসান। আর ঢাকার গুলশানে হলি আর্টিজানে মারা গেছে খাইরুল ইসলাম বাঁধন। তবে, শরিফুল এখনো পলাতক রয়েছে। তাকে ধরতে লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা করেছে রাজশাহী মহানগর পুলিশ। এই হত্যাকাণ্ডে আরেক অভিযুক্ত তারেক হাসান বগুড়ায় পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে মারা গেছে। বর্তমানে কারাগারে রয়েছে আরো ৪ জন। এরা হলো বগুড়ার শিবগঞ্জের মাসকাওয়াত হাসান ওরফে আব্দুল্লাহ, নীলফামারীর মিয়াপাড়ার রহমত উল্লাহ, রাজশাহী নগরীর নারকেলবাড়িয়া এলাকার আব্দুস সাত্তার ও তার ছেলে রিপন। কারাগারে থাকা চারজনই রেজাউল করিম হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছে। পুলিশ জানায়, শরিফুলকে গ্রেফতারের বিষয়ে তাদের তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে। তবে সে পলাতক থাকলেও বিচারিক কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। উল্লেখ্য, গত ২৩ এপ্রিল রাজশাহী নগরীর শালবাগান এলাকায় নিজ বাড়ির পাশেই খুন হন অধ্যাপক রেজাউল করিম। হত্যাকাণ্ডের ঘটনাটি গোয়েন্দা পুলিশ তদন্ত করলেও পুলিশের পদস্থ কর্মকর্তারা এর তদারকি করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ