ঢাকা, মঙ্গলবার 08 November 2016 ২৪ কার্তিক ১৪২৩, ৭ সফর ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

মহিলা কর্মীদের নিরাপত্তা ও শ্রমিক নিয়োগ নিয়ে আলোচনা

সংসদ রিপোর্টার : সৌদি আরবের শ্রমমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাৎ করেছে বাংলাদেশ-সৌদি আরব সংসদীয় মৈত্রী গ্রুপের প্রতিনিধি দল। সাক্ষাতে মহিলা কর্মীদের নিরাপত্তা ও পুরুষ কর্মী নিয়োগ সম্পর্কে আলোচনা হয়েছে। এ বিষয়ে দুদেশ পারস্পরিক সহযোগিতার ভিত্তিতে কাজ করার বিষয়টি উল্লেখ করা হয়।

গতকাল সোমবার জাতীয় সংসদ থেকে প্রেরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সদস্য ও বাংলাদেশ-সৌদি আরব সংসদীয় মৈত্রী গ্রুপের সভাপতি বজলুল হক হারুন এর নেতৃত্বে ০৬ সদস্যের বাংলাদেশ-সৌদি আরব সংসদীয় মৈত্রী গ্রুপের একটি প্রতিনিধি দল ০৬-০৯ নবেম্বর ২০১৬ সৌদি আরব সফর করছেন।

প্রতিনিধি দলের অন্যান্য সদস্যবৃন্দ হলেন, তালুকদার মোহাঃ ইউনুস এমপি,এ কে এম আওয়াল সাইদুর রহমান এমপি, মো. নুরুল ইসলাম সুজন এমপি, নজরুল ইসলাম (বাবু) এমপি এবং বায়রা এর সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য বেনজীর আহমেদ। 

গত ০৬ নবেম্বর ২০১৬ তারিখ সংসদীয় প্রতিনিধি দল সৌদি এয়ারলাইন্সের এসভি-৮০৫ বিমান যোগে রিয়াদ বিমনি বন্দরে পৌঁছালে রিয়াদস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহ্ ও দূতাবাসের অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ প্রতিনিধি দলকে স্বাগত জানান। 

সফরের অংশ হিসেবে প্রতিনিধি দল গত ০৬ নবেম্বর ২০১৬ সকালে সৌদি আরবের শ্রম ও সমাজ উন্নয়ন বিষয়ক মন্ত্রী মকরেজ আল হুকবানী এর সাথে সাক্ষাৎ করেন। এসময় দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক বিষয়ক শ্রম উপ মন্ত্রী যায়েদ আল সায়েগ, শ্রম মন্ত্রণালয়ের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক বিষয়ক মহাপরিচালক মোহাম্মদ সালেহ বিন আল সারেখ ও অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে সংসদ সদস্য বজলুল হক হারুন সৌদি শ্রম ও সমাজ উন্নয়ন বিষয়ক মন্ত্রীকে প্রধানন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে শুভেচ্ছা জানান এবং বাংলাদেশী প্রায় ১৫ লাখ কর্মীর কর্মসংস্থানের জন্য ধন্যবাদ জানান। এসময় তিনি জুনে প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক সৌদি আরব সফরের উল্লেখ করে বাংলাদেশ হতে অধিক সংখ্যক পুরুষ ও মহিলা গৃহকর্মী নিয়োগের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে অত্যন্ত আন্তরিক ও খোলামেলা আলোচনা করেন। 

বৈঠকে মহিলা গৃহকর্মীদের নিরাপত্তা বিধানে গৃহকর্মী ও গৃহকর্তা উভয়ের ন্যায্য অধিকার নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় সকল প্রকার ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে এবং গৃহীত ব্যবস্থার আরো উন্নয়নে ও সহযোগিতার ক্ষেত্রে আরো প্রসারিত করতে দু’দেশ এক সাথে কাজ করবে মর্মে সৌদি শ্রম ও সমাজ বিষয়ক মন্ত্রী সংসদীয় প্রতিনিধি দলকে জানান। পুরুষ কর্মী নিয়োগের ক্ষেত্রে অভিবাসন ব্যয় হ্রাস এর বিষয়ে সৌদি সরকারের কঠোর অবস্থানের বিষয়টি মন্ত্রী পুনর্ব্যক্ত করে উভয় দেশের একসাথে কাজ করার জন্য আহবান জানান। তিনি এ ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় সকল প্রকার সহযোগিতার আশ্বাস দেন। মন্ত্রী আরো জানান, ভিসা ট্রেডিং-কে তার দেশ মানব পাচার হিসাবে বিবেচনা করে এবং এ কাজে জড়িতদের বিরুদ্ধে অত্যন্ত কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণে সৌদি সরকার বদ্ধপরিকর। সুনির্দিষ্ট অভিযোগের প্রেক্ষিতে কঠোর আইনগত পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে মর্মে তিনি প্রতিনিধি দলকে জানান। 

বি এইচ হারুন সৌদী শ্রম ও সমাজ উন্নয়ন বিষয়ক মন্ত্রীকে অবহিত করেন যে, বাংলাদেশ হতে অধিক সংখ্যক কর্মী নিয়োগের ক্ষেত্রে ভ্রাতৃপ্রতিম দু’দেশের দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার ক্ষেত্র আরো প্রসারিত ও উচ্চমানে উন্নীত করার ক্ষেত্রে বিগত জুন মাসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সৌদি আরব সফর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে। 

প্রতিনিধি দল দুপুরে সৌদি মজলিস-এ-শূরা ভবনে বাংলাদেশ সৌদি আরব সংসদীয় মৈত্রী গ্রুপের সভাপতি সংসদ সদস্য প্রফেসর আবদুল্লাহ আল হারবি এবং অন্যান্য সদস্যবৃন্দ (মোট সাতজন) সংসদ সদস্যের সাথে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেন। বৈঠককালে উভয় পক্ষ বাংলাদেশ ও সৌদি আরবের দ্বিপাক্ষিক সকল বিষয়ে আলোচনা করেন। বিশেষ করে, ব্যবসা বাণিজ্য বৃদ্ধি, বিনিয়োগ, জনশক্তি রপ্তানির ক্ষেত্রে সহযোগিতা বৃদ্ধির ব্যপারে অলোচনা করা হয়। দক্ষ জনশক্তি, উপযুক্ত ভাষাজ্ঞান ও সৌদি সংস্কৃতি বিষয়ে প্রশিক্ষণ এবং শ্রমিকদের সৌদি আরবে পাঠানোর পূর্বে অপরাধ প্রবণ কোন বাংলাদেশিকে প্রেরণ না করার ব্যাপারে অলোচনা করা হয়। 

বাংলাদেশ-সৌদি আরব সংসদীয় মৈত্রী গ্রুপের সভাপতি বি এইচ হারুন বংলাদেশের জাতীয় সংসদের স্পিকারের পক্ষ থেকে মজলিশ-এ-শূরার স্পিকারকে বাংলাদেশ সফরে আমন্ত্রণের উল্লেখ করে আশাবাদ ব্যক্ত করেন যে শীঘ্রই তিনি আবার বাংলাদেশ সফর করবেন। 

প্রতিনিধি দল ০৮ ও ০৯ নবেম্বর জেদ্দায় এবং মক্কায় ওআইসি মহাসচিব এবং সৌদি হজ্জ্ব ও উমরাহ বিষয়ক মন্ত্রীর সাথে সাক্ষাৎ করার কথা রয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ