ঢাকা, শনিবার 12 November 2016 ২৮ কার্তিক ১৪২৩, ১১ সফর ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

সমর্থন বন্ধ করতে ট্রাম্পের প্রতি হামাসের আহ্বান

১১ নবেম্বর, দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট : ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সংগঠন হামাস নেতা খালেদ মিশাল ইসরাইলের প্রতি সমর্থন বন্ধ করতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের বিজয়ী প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি ইসরাইলকে আমেরিকার জন্য ‘ঘাড়ের বোঝা’ হিসেবে উল্লেখ করেন।
গত বৃহস্পতিবার তুরস্কের ইস্তাম্বুল শহরে অনুষ্ঠিত এক সমাবেশে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দেয়া বক্তৃতায় মিশাল এ আহ্বান জানান। তিনি বলেন, ‘সময় এসেছে ইসরাইলের ধারাবাহিক অপরাধযজ্ঞের অবসান ঘটানোর। আমরা আপনার প্রতি আহ্বান জানাই- আপনি নিরপেক্ষভাবে ফিলিস্তিন ইস্যুটি দেখুন এবং ইসরাইলের অব্যাহত অপরাধকে উপেক্ষা করার নীতি থেকে সরে আসুন।’
খালেদ মিশাল আরো বলেন, ‘ইসরাইলকে অপরাধযজ্ঞ চালিয়ে যাওয়ার জন্য সবুজ সংকেত দেয়া ভুল হবে। এ অবস্থায় আমরা ট্রাম্পকে তার দেশের নীতি পুনর্বিবেচনা করার আহ্বান জানাচ্ছি।’ মিশাল জোর দিয়ে বলেন, ফিলিস্তিনীদের অধিকার স্বীকার না করা পর্যন্ত মধ্যপ্রাচ্যে স্থিতিশীলতা আসতে পারে না।
এর আগে এক বিবৃতিতে হামাসের মুখপাত্র সামি আবু জুহরি ফিলিস্তিনীদের জন্য  ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার আহ্বান জানিয়েছেন।
তিনি বলেছেন, ‘ফিলিস্তিনীদের প্রতি আমেরিকার নীতিতে বিশেষ কোনো পরিবর্তন হবে না বলেই আমরা মনে করি কারণ তারা ইসরাইলের জন্য স্থির ও একপেশে নীতি নিয়েছে। তারপরও আমরা ডোনাল্ড ট্রাম্পের সরকারের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি যাতে তারা ফিলিস্তিনীদের জন্য ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠায় কাজ করতে পারেন।’ অন্যদিকে দখলকৃত পশ্চিমতীরে ইসরাইলের বসতি স্থাপন শান্তির পথে কোন বাধা হবে না বলে জানিয়েছেন ট্রাম্পের এক শীর্ষস্থানীয় উপদেষ্টা। গতকাল শুক্রবার ইসরাইলী এক রেডিও টেলিভিশনে তিনি এমন মন্তব্য করেন।
ইসরাইলের আর্মি রেডিওতে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচারণা দলের সহকারী চেয়ারম্যান জ্যাসন গ্রিনব্ল্যাট বলেন, ‘শান্তি প্রতিষ্ঠায় ইসরাইলের বসতি স্থাপন বন্ধ করে দেয়া উচিত বলে বলে মনে করেন না ডোনাল্ড ট্রাম্প। কারণ, এই প্রক্রিয়ায় শান্তি প্রতিষ্ঠায় কোন বাধা হবে না।’
ধারণা করা হচ্ছে এই গ্রিনব্ল্যাটকেই নতুন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প তার মধ্যপ্রাচ্য প্রতিনিধি বানাবেন।
গ্রিনব্ল্যাটের কথা যদি সত্য হয়ে থাকে তবে এটা নিশ্চিতভাবেই বলে দেওয়া যায় যে, ইসরাইল ইস্যুতে ট্রাম্প ওবামার নীতি থেকে বেড়িয়ে আসবেন। গত আট বছর ধরেই ওবামা ফিলিস্থিনের মাটিতে ইসরাইলী বসতি স্থাপনের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছিলেন।
গ্রিনব্ল্যাটের বক্তব্যেকে সমর্থন জানিয়ে ইসরাইলের এক মন্ত্রী জানান, ইসরাইল বসতি স্থাপন করুক আর না করুক, শান্তি এই ব্যাপারটির উপর নির্ভর করছে না। তিনি প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুকে আবারও পুনরোদ্যমে বসতি স্থাপন শুরু করার আহ্বান জানান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ