ঢাকা, সোমবার 14 November 2016 ৩০ কার্তিক ১৪২৩, ১৩ সফর ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

সানডে-ওয়াহেদের গোলে আবাহনীর জয়লাভ

স্পোর্টস রিপোর্টার: জেবি বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা জয়ের পথে আরো একধাপ এগিয়ে গেল ঢাকা আবাহনী লিমিটেড। গতকাল রোববার ময়মনসিংহের রফিক উদ্দিন ভূঁইয়া স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ফিরতি পর্বের খেলায় চারবারের শিরোপা জয়ী দলটি  ২-১ গোলে বিজেএমসিকে হারিয়েছে। প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ম্যাচের প্রথমার্ধ গোলশূন্য ড্র ছিলো। বিজয়ী দলের হয়ে নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড সানডে চিজোবা ও ওয়াহেদ আহমেদ একটি করে গোল করেন। অপরদিকে বিজিত বিজেএমসির হয়ে ইলিয়াসু গোল করে ব্যবধান গড়েন।এ জয়ে প্রিমিয়ার লিগে দ্বিতীয় স্থানে থাকা চট্টগ্রাম আবাহনীর চেয়ে ৪ পয়েন্ট এগিয়ে শীর্ষে রইল জর্জ কোটানের দল।শিরোপা রেসে এগিয়ে যেতে জয়ের প্রয়োজনীয়তা নিয়েই খেলতে নামে ঢাকা আবাহনী লিমিটেড। অপরদিকে বিজেএমসিও চেষ্টায় ছিলো পয়েন্ট ভাগ বসানোর।ম্যাচের শুরু থেকেই প্রাধান্য নিয়ে খেলে প্রথমার্ধে একাধিক আক্রমণে গেলেও বিজেএমসির রক্ষণভাগ ভাঙ্গতে পারেনি আবাহনী। ৪২ মিনিটে জুয়েল রানার কোনাকুনি শটে লক্ষ্যে থাকেনি। একটু পর প্রতি আক্রমণে যাওয়া জাকির হোসেন জিকুর শট অল্পের জন্য পোস্টের ওপর দিয়ে উড়ে গেলে প্রথমার্ধে এগিয়ে যাওয়া হয়নি বিজেএমসিরও।বিরতির মাত্র চার মিনিট পরই আবাহনীর সংঘবদ্ধ আক্রমণে সানডের শট ফিস্ট করে ফিরিয়েছেন বিজেএমসির ত্রাতা গোলরক্ষক। তবে ৫৬ মিনিটে নাইজেরিয়ার এই ফরোয়ার্ডকে আটকানো যায়নি। ডান দিক থেকে আক্রমণে যাওয়া সানডে প্রতিপক্ষের এক ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে বাঁকানো শটে লক্ষ্যভেদ করেন ১-০। এই নিয়ে লিগে সানডের গোল সংখ্যা দাঁড়ালো ১৫টি।ম্যাচে সমতা আনার চেষ্টায় বিজেএমসি সফলতা পায় ৬৪ মিনিটে। প্রতি আক্রমণে গিয়ে বিজেএমসি জিকুর কাট ব্যাকে স্যামসন ইলিয়াসুর নেয়া শট গোললাইন থেকে হাত দিয়ে আটকান সামাদ ইউসুফ। ফলে নিয়ম অনুযায়ী রেফারী ইউসুফকে হলুদ কার্ড দেখিয়ে সতর্ক করেন,আর পেনাল্টি পায় বিজেএমসি। পেনাল্টি শটে গোল করে বিজেএমসিকে ১-১ সমতায় ফেরান ইলিয়াস।৮৩ মিনিটে জাতীয় দলের তারকা ফুটবলার ওয়াহেদ দলকে জয়সূচক গোলটি উপহার দেন। লি টাকের কর্নারে জুয়েলের শট ফিরে আসার পর বক্সের জটলার মধ্যে বল পেয়ে যান ওয়াহেদ। ত্বরিত শটে লিগে প্রথম গোল করেন জাতীয় দলের এই ফরোয়ার্ড ফলে চারবারের চ্যাম্পিয়ন আবাহনী ২-১ গোলে এগিয়ে যায়।ম্যাচের বাকী সময় আর গোল না হওয়ায় কষ্টার্জিত জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে ধানমন্ডির দলটি। লিগের ১৪ ম্যাচ শেষে নবম জয় নিয়ে আবাহনী ৩২ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে রয়েছে। সমান সংখ্যক ম্যাচে চট্টগ্রাম আবাহনীর ২৮ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে। অপরদিকে ষষ্ঠ হারের স্বাদ পাওয়া বিজেএমসি ১৪ পয়েন্ট নিয়ে রয়েছে অষ্টম অবস্থানে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ