ঢাকা, বৃহস্পতিবার 17 November 2016 ৩ অগ্রহায়ন ১৪২৩, ১৬ সফর ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

চ্যাম্পিয়ন হওয়ার লক্ষ্য নিয়েই হংকং গেল বাংলাদেশ দল

স্পোর্টস রিপোর্টার : এএইচএফ কাপ চ্যাম্পিয়নশিপে শিরোপা জয়ের লক্ষ্য নিয়েই হংকং গেল বাংলাদেশ হকি দল। গতকাল বুধবার রাতেই রওয়ানা হয়েছে জিমি-চয়নরা। ভিসা জটিলতা কাটিয়ে গতকাল সকাল ১১টায় ভিসা পেয়েছে দলের সদস্যরা। দুপুরে সংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে দলের প্রধান কোচ অলিভার কার্টজ। প্রধান কোচ বলেন, এশিয়া কাপের মূল পর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জনই মূল লক্ষ্য। পুরনো ও নতুনদের অভিজ্ঞতার মিশ্রনে শক্তিশালী দল গুছানো হয়েছে। প্রস্তুতি ও ভাল হয়েছে। ইউরোপীয় স্ট্রাকচার ও টেকনিকের সঙ্গে পরিচিত হতেই জার্মানীতে কন্ডিশনিং ক্যাম্প করা হয়েছে। এদিকে চার বছর পর আবারও অধিনায়কত্বের আর্মব্যান্ড হাতে ওঠলো রাসেল মাহমুদ জিমির। অধিনায়ক বলেন, ‘আমার উপর বিশ্বাস রেখেছে ম্যানেজমেন্ট। আমি সেই বিশ্বাসের মর্যাদা দিতে চেষ্টা করবো। জার্মানীতে আমরা অনেক উন্নতি করেছি। প্রত্যেকটি ম্যাচের পরেই ভিডিও দেখেছি। ভুল ক্রুটিগুলো শোধরানোর চেষ্টা করেছি। পিসি (পেনাল্টি কর্ণার) স্পেশালিষ্ট হিসেবে চয়নের খ্যাতি আগেই ছিল। এবার চয়নের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে আরেক স্পেশাল্টি আশরাফুল। তাই আমার বিশ্বাস এবার আর পিসি মিস হবে না।’ উল্লেখ্য এশিয়ান হকি ফেডারেশন (এএইচএফ) কাপ টুর্নামেন্টে আগের চার আসরেও খেলেছিল বাংলাদেশ। দ্বিতীয় আসরে ২০১০ সালে জার্মান কোচ গেরহার্ড পিটারের অধীনে চ্যাম্পিয়ন না হয়েও এশিয়া কাপে খেলেছিল লাল সবুজরা। তবে ২০১২ ও ২০১৪ সালের এই টুর্নামেন্টে টানা দু’বারের চ্যাম্পিয়ন জিমি, চয়নরা। দু’বারেরই কোচ স্থানীয় মাহবুব হারুন। তাই সাফল্যের দিক দিয়ে মাহবুব হারুনই শতভাগ এগিয়ে। তবে একেবারে ছেটে না ফেলে তাকে দলের সঙ্গে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে স্থানীয় কোচ করেই। শিরোপার প্রত্যাশা ও প্রাপ্তির মেলবন্ধন ঘটাতেই এবার বিশাল কোচিং স্টাফ নিয়োগ দিয়েছে হকি ফেডারেশন।
এএইচএফ কাপ চ্যাম্পিয়নশিপে খেলা টার্ফে গড়াবে ১৯ নবেম্বর। উদ্বোধনী দিনেই স্বাগতিক হংকং চায়নার বিপক্ষে নিজেদের প্রথম ম্যাচে মাঠে নামবে লাল সবুজ বাহিনী। ২১ নবেম্বর জিমি চয়নদের প্রতিপক্ষ চাইনিজ তাইপে এবং ২৩ নবেম্বর ম্যাকাও চায়না। ২৬শে নবেম্বর কোয়ার্টার ফাইনাল এবং পরদিন ফাইনাল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে।
বাংলাদেশ হকি দল : রাসেল মাহমুদ জিমি (অধিনায়ক), জাহিদ হোসেন, মামুনুর রহমান চয়ন, রেজাউল করিম বাবু, ফরহাদ আহমেদ সিটুল, আশরাফুল ইসলাম, খোরশেদুর রহমান, ইমরান হাসান পিন্টু, সারোয়ার হোসেন, রুম্মন সরকার, কামরুজ্জামান রানা, মইনুল হক কৌশিক, পুষ্কর ক্ষিসা মিমো, মিলন হোসেন, কৃষ্ণ কুমার, তাপস বর্মন, হাসান যুবায়ের নিলয় ও অসিম গোপ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ