ঢাকা, শুক্রবার 18 November 2016 ৪ অগ্রহায়ন ১৪২৩, ১৭ সফর ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

চট্টগ্রামেও ঢাকার কাছে হারলো চিটাগাং

নুরুল আমিন মিন্টু, চট্টগ্রাম অফিস : ঘরের মাঠেও ভাগ্য বদল হয়নি চিটাগং ভাইকিংসের। ব্যাটিং ব্যর্থতায় টানা চতুর্থ পরাজয়ের স্বাদ পেয়েছে তামিমরা। ঢাকা ডাইনামাইটসের কাছে ১৯ রানে হারলো স্বাগতিক চিটাগাং ভাইকিংস। বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় তামিম ইকবালের স্বাগতিক চিটাগাং ভাইকিংস। আগে ব্যাট করে ১৪৮ রান করে ঢাকা। ১৪৯ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে ১২৯ রান করে চিটাগাং। ফলে ১৯ রানে হারে তামিমরা। সাকিব আল হাসানের ঢাকা ডাইনামাইটস পক্ষে ব্যাটিংয়ে নামেন ওপেনিং ব্যাটসম্যান মেহেদি মারুফ ও কুমার সাঙ্গাকারা। ৪.৫ ওভারে মোহাম্মদ নবীর বলে এলবি ডব্লিউ ফাঁদে পড়ে মাঠ থেকে বিদায় নেয় মারুফ। তিনি ২০ বলে ৬টি বাউন্ডারি ও ১টি ওভার বাউন্ডারিতে ব্যক্তি ৩৩ রান সংগ্রহ করেন। দলীয় রান ৪১। ৯.১ ওভারে টাইমাল মিলস এর বলে বোল্ডআউট হন নাসির হোসেন। ১৪ বলে ৩ বাউন্ডারিতে ২০ সংগ্রহ করে নাসির। ২ উইকেটে রান ৭২। ৯.৪ ওভারে টাইমাল মিলস এর বলে এলবি ডব্লিউ হন কুমার সাঙ্গাকারা। সাঙ্গাকারা করেন ২২ বলে ২ বাউন্ডারিতে ১৭ রান। রান ৩ উইকেটে ৭৩। ১১.১ ওভারে মো.নবীর বলে বোল্ড আউট হন সাকিব আল হাসান। ৭ বলে ২ বাউন্ডারিতে ১৩ রান ১৪ সংগ্রহ করে সাকিব। ৪ উইকেটে রান ৯৩। ১২.২ ওভারে রান আউট হন ডোয়াইন ব্রাভো। তিনি করেছেন ৩ বলে ৪ রান। ৫ উইকেটে রান ১০০। ১৬.১ ওভারে নবীর বলে সাকলাইন সজিব এর ক্যাচ হয়ে মাঠ ছাড়ে সেকুজে প্রসন্না। ৬ উইকেটে রান ১২৮। ১৭.১ ওভারে ইমরান খানের বলে গ্রান্ড এলিয়ট এর ক্যাচ হন ম্যাট কুলস। ৪ বলে ৪ রান সংগ্রহ করেন তিনি। রান ৭ উইকেটে ১৩৪। ১৮.৩ ওভারে টাইমাল মিলস বলে নাজমুল হাসান মিলনের ক্যাচ হন মোসাদ্দেক হোসেন। ২৬ বলে ২ বাউন্ডারি ও ২ ওভার বাউন্ডারিতে ৩৫ রান সংগ্রহ করেন মোসাদ্দেক। ৮ উইকেটে রান ১৩৮। ১৯.৬ ওভারে রান আউট হন আলাউদ্দিন বাবু। ৭ বলে ৫ রান নিয়ে মাঠ ছাড়েন বাবু। ৯ উইকেটে রান ১৪৮। ৫ বলে ১ বাউন্ডারিতে ৭ রানে অপরাজিত ছিলেন সানজামুল ইসলাম। ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৪৮ রান নিয়েছে ঢাকা ডায়নামাইটস। ঢাকা ডায়নামাইটস এর পক্ষে মো. শহিদ ৩টি, নাসির,  ব্রাভো, কুলস ১টি করে উইকেট পেয়েছেন।  ১৮৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নামে চিটাগাং ভাইকিংস। ২.৫ ওভারে রান আউট হন জহুরুল ইসলাম। তিনি ৭ বলে ১ বাউন্ডারিতে ৬ রান সংগ্রহ করে। ১ উইকেটে রান ১৩। ৬.৩ ওভারে নাসির হোসেনের বলে সেকুজে প্রসন্না এর ক্যাচ হন এনামুল হক। এনামুল ১৫ বলে ১ ওভার বাউন্ডারিতে ১৭ রান তুলেন। রান ২ উইকেটে ৩৮। ১২.১ ওভারে ডোয়াইন ব্রাভোর বলে মোসাদ্দেক হোসেনের ক্যাচ হন তামিম ইকবাল। ৩৫ বলে ২ বাউন্ডারিতে ২৬ রান সংগ্রহ করে তামিম। ৩ উইকেটে রান ৬৬। ১৪.২ ওভারে ম্যাট কুলস এর বলে বোল্ড আউট হন মাহমুদুল হাসান। তিনি ২২ বলে ১ বাউন্ডারিতে ২০ রান সংগ্রহ করেন। ৪ উইকেটে ৮৪। ১৫.২ ওভারে মোহাম্মদ শহিদের বলে কুমার সাঙ্গাকারার ক্যাচ হন মোহাম্মদ নবী। ১০ বলে ২ বাউন্ডারিতে ১৫ রান করেন। রান ৫ উইকেটে ৯০। ১৫.৬ ওভারে মো. শহিদের বলে নাসিরের ক্যাচ হন গ্রান্ট এলিয়ট। ৬ বলে ১ বাউন্ডারিতে ৮ রান তুলে এলিয়ট। রান ৬ উইকেটে ৯৬। ১৭.৪ ওভারে শহিদের বলে সাঙ্গাকারা ক্যাচ হন নাজমুল হোসেন মিলন। মিলন ৭ বলে ২ বাউন্ডারিতে করেন ১৩ রান। ৭ উইকেটে রান ১১২। ১৮.৬ ওভারে রান আউট হন টাইমাল মিলস। সাকলাইন সজিব ১২ বলে ৯ রানে ও ইমরান খান ৩ বলে ১ বাউন্ডারিতে ৫ রানে অপরাজিত ছিলেন। ২০ ওভারে ৮ উইকেটে ১২৯ রান তুরেছেন চিটাগাং ভাইকিংস। চিটাগাং ভাইকিংস এর পক্ষে উইকেট পেয়েছেন মিলস ও নবী ৩টি করে এবং ইমরান ১টি উইকেট। পয়েন্ট টেবিলে শীর্ষে থাকা ঢাকা ডাইনামাইটসের এটা চতুর্থ জয়। এ জয়ের মধ্যে দিয়ে নিজেদের অবস্থানকে আরও সুসংহত করল সাকিবের দল।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ঢাকা ডায়নামাইটস: ২০ ওভারে ১৪৮/৯ (মারুফ ৩৩, সাঙ্গাকারা ১৭, নাসির ২০, মোসাদ্দেক ৩৫, সাকিব ১৩, ব্রাভো ৩, প্রসন্ন ৮, কোলস ৪, আলাউদ্দিন ৫, সানজামুল ৭*;মিলস ৩/২৫, শুভাশীষ ০/৪২, নবি ৩/১৮, মাহমুদুল ০/১২, সাকলাইন ০/২৬, ইমরান ১/২৩)

চিটাগং ভাইকিংস: ২০ ওভারে ১২৯/৯ (তামিম ২৬, জহুরুল ৬, এনামুল ১৭, মাহমুদুল ২০, নবি ১৫, এলিয়ট ৮, নাজমুল ১৩, সাকলাইন ৯*, মিলস ৪, ইমরান ৫*; নাসির ১/২৬, সাকিব ০/৯, কোলস ১/২৩, ব্রাভো ১/২৫, প্রসন্ন ০/১৭, শহীদ ২/২৩)

ফল: ঢাকা ডায়নামাইটস ১৯ রানে জয়ী।

ম্যাচ সেরা: মোহাম্মদ শহীদ (ঢাকা ডায়নামাইটস)।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ