ঢাকা, সোমবার 21 November 2016 ৭ অগ্রহায়ন ১৪২৩, ২০ সফর ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

রোনালদোর রেকর্ডে আতলেতিকোকে উড়িয়ে দিল রিয়াল

ক্লাব ফুটবলে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো স্বরূপে ফিরেছেন। অসাধারণ এক হ্যাটট্রিক করে গড়েছেন আতলেতিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে সর্বোচ্চ গোলের অনন্য রেকর্ড। দলের সেরা তারকার দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে নগর প্রতিবেশীদের হারিয়ে লিগের পয়েন্ট তালিকার শীর্ষস্থান মজবুত করেছে জিনেদিন জিদানের দল। শনিবার রাতে ভিসেন্তে কালদেরনে ম্যাচে আতলেতিকোর উপর আধিপত্য ধরে রেখে ৩-০ গোলে জিতেছে রিয়াল। ২৩তম মিনিটে কিছুটা ভাগ্যের সহায়তায় এগিয়ে যায় রিয়াল। ২৫ গজ দূর থেকে রোনালদোর ফ্রি কিক ডিফেন্ডার স্তেফান সাভিচের গায়ে লেগে দিক পাল্টে জালে জড়ায়। দিয়েগো সিমেওনের অধীনে এই প্রথম লিগে টানা পাঁচ ম্যাচে কমপক্ষে একটি করে গোল খেল আতলেতিকো। সমতায় ফিরতে মরিয়া আতলেতিকো দ্বিতীয়ার্ধের প্রথম পাঁচ মিনিটে ভালো দুটি আক্রমণ করে। ২০ গজ দূর থেকে ইয়ানিক কারাসকোর জোরালো শট লক্ষ্যভ্রষ্ট হওয়ার দুই মিনিট পর গোলমুখে পাস দেন অঁতোয়ান গ্রিজমান। কিন্তু বলে টোকা দেয়ার মতো কেউ ছিল না। ৬২তম মিনিটে এক সঙ্গে দুটি পরিবর্তন করেন সিমেওনে; মিডফিল্ডার গাবি ও শুরু থেকে অনুজ্জ্বল ফের্নান্দো তরেসকে বসিয়ে দুই ফরোয়ার্ড আনহেল কোররেয়া ও কেভিন গামেইরোকে নামান। পরের মিনিটেই কোকের সঙ্গে তর্কে জড়িয়ে হলুদ কার্ড দেখেন রোনালদো। বাদ যাননি স্প্যানিশ মিডফিল্ডারও। ৭১তম মিনিটে ডিফেন্ডার সাভিচ ডি বক্সে বল বিপদমুক্ত করতে না পারায় রোনালদোকে ফাউল করে বসেন। পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি, তা থেকেই ব্যবধান বাড়ান পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড। ছয় মিনিট পরেই হ্যাটট্রিক পূরণ করেন রোনালদো। বাঁ দিক থেকে গ্যারেথ বেলের দারুণ এক পাসে ছয় গজ বক্সের বাইরে থেকে শুধু একটা টোকার দরকার ছিল, কোনো ভুল হয়নি এবারের বর্ষসেরা খেলোয়াড় হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে থাকা তারকার। এবারের লিগে রোনালদোর এটি অষ্টম এবং সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে দশম গোল। আতলেতিকোর বিপক্ষে ২৬ ম্যাচে এটি তার ১৮তম গোল। নগর প্রতিদ্বন্দ্বিদের বিপক্ষে এতদিন রিয়ালের হয়ে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ডটি ছিল আলফ্রেদো দি স্তেফানো ও সান্তিয়াগো বের্নাবেউয়ের দখলে; দুজনেই ১৭টি করে গোল করেছিলেন। ম্যাচ পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে চলে আসার পর ৭৯তম মিনিটে ইসকোর পরিবর্তে চোট কাটিয়ে ফেরা করিম বেনজেমাকে মাঠে নামান কোচ। কিছুক্ষণ পর রোনালদোকেও তুলে নেন জিদান, নামান হামেস রদ্রিগেসকে। ইন্টারনেট।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ