ঢাকা, সোমবার 21 November 2016 ৭ অগ্রহায়ন ১৪২৩, ২০ সফর ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

এটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের বহাল থাকার রিটে বিব্রত হাইকোর্ট

স্টাফ রিপোর্টার : এটর্নি জেনারেলের পদে মাহবুবে আলম কোন কর্তৃত্ববলে বহাল আছেন তা জানতে চেয়ে দায়ের করা রিট আবেদন শুনতে ব্রিবতবোধ করেছেন হাইকোর্ট। সংশ্লিষ্ট বেঞ্চের একজন বিচারপতি বিব্রতবোধ করায় রিট আবেদনটি প্রধান বিচারপতির কাছে পাঠানো হয়েছে। পরবর্তীতে প্রধান বিচারপতি অপর কোন বেঞ্চে শুনানির জন্য রিটটি পাঠাবেন।
গতকাল রোববার বিচারপতি কাজী রেজা-উল হক ও বিচারপতি মোহাম্মদ উল্লাহ সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চে রিট আবেদনটি শুনানির জন্য আসলে একজন বিচারপতি বিব্রতবোধের কথা জানান। গত ১০ নবেম্বর সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ড.ইউনুছ আলী আকন্দ এটর্নি জেনারেল পদে মাহবুবে আলমের পদে থাকার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করেন।
আদালতে আবেদনের পক্ষে আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ নিজেই শুনানি করেন। সরকার পক্ষে ছিলেন অতিরিক্ত এটর্নি জেনারেল মুরাদ রেজা।
পরে ইউনুছ আলী সাংবাদিকদের বলেন, রিট শুনানিতে ওঠার পর আদালত বলেন- আমাদের মধ্যে একজন ব্রিবতবোধ করেছেন। রিট আবেদনটি প্রধান বিচারপতির কাছে পাঠানোর আদেশ দেয়া হল।
একটি জাতীয় দৈনিকে ‘৬৭ বছর অতিক্রম করলেন মাহবুবে আলম, এটর্নি জেনারেল পদে থাকা নিয়ে বিতর্ক’ শিরোনামে এক প্রতিবেদন যুক্ত করে গত ১০ নবেম্বর হাইকোর্টে রিট আবেদনটি করেন আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ। প্রতিবেদনে বলা হয়, গত ১৬ ফেব্রুয়ারি এটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের ৬৭ বছর বয়স পূর্ণ হয়েছে। আইন সংশ্লিষ্টদের কারও কারও মতে, পরের দিন ১৭ ফেব্রুয়ারি থেকে সংবিধানের ৬৪ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী তিনি আর এটর্নি জেনারেলের পদে থাকতে পারেন না।
রিটে বলা হয়, সংবিধানের ৬৪(১) ও ৯৬(১) অনুযায়ী ৬৭ বছরের পর এটর্নি জেনারেল পদে থাকার সুযোগ নাই। নিয়ম অনুযায়ী এটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের ৬৭ বছর পূর্ণ হওয়ায় তিনি এই পদে থাকার যোগ্যতা হারিয়েছেন। অথচ আইন লঙ্ঘন করে মাহবুবে আলম অবিরামভাবে দু’ দফা এই পদে বহাল আছেন।
এতে বলা হয়, এটর্নি জেনারেল নিয়োগের সংবিধানের ৬৪(১) অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, রাষ্ট্রপতি কর্তৃক সুপ্রিম কোর্টের বিচারক হওয়ার যোগ্যতা সম্পন্ন কোন ব্যক্তি এটর্নি জেনারেল হিসেবে নিযুক্ত হবেন। অপরদিকে সংবিধানের ৯৬(১) অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, অন্যান্য বিধানাবলী সাপেক্ষে কোন বিচারক ৬৭ বছর বয়স পূর্ণ হওয়া পর্যন্ত স্বীয় পদে বহাল থাকিবেন। সে হিসেবে চলতি বছরের ১৬ ফেব্রুয়ারি এটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের বয়স ৬৭ বছর পূর্ণ হয়েছে। বয়সের মেয়াদ পূর্ণ হওয়ার পরেও গত ৯ মাস ধরে তিনি পদে বহাল।
রিটে বলা হয়, লিগ্যাল রিমেমব্রান্সের ম্যানুয়াল-১৯৬০ এর ক্লজ-২, চ্যাপ্টার ১ অনুযায়ী এটর্নিদের পদ ২ বছরের জন্য, কিন্তু ২ বছর পূর্বেও ৩ মাসের নোটিশ দিয়ে রাষ্ট্রপতি অপসারণ করতে পারেন। কিন্তু ঐ আইন লঙ্ঘন করে মাহবুবে আলম প্রায় ৮ বছর অরিবারমভাবে এটর্নি জেনারেল পদে বহাল আছেন।
২০০৯ সালে ৬ জানুয়ারি আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোট সরকার দায়িত্ব গ্রহণের এক সপ্তাহ পর এটর্নি জেনারেল পদে পরিবর্তন আসে। বিদায় নেন জরুরি অবস্থার সরকারের সময়ে নিয়োগ পাওয়া এটর্নি জেনারেল সালাহউদ্দিন আহমেদ। তার স্থলে ২০০৯ সালের ১৩ জানুয়ারি নিয়োগ পান মাহবুবে আলম। এটর্নি জেনারেল পদে নিয়োগের আগে তিনি সুপ্রিম কোর্ট বার এসোসিয়েশনের এক মেয়াদের সভাপতি ছিলেন। ২০১৪ সালের ১৩ জানুয়ারি এটর্নি জেনারেল পদে পাঁচ বছর পূর্ণ হয় মাহবুবে আলমের। গত দু’ বছর মিলিয়ে টানা সাত বছর এটর্নি জেনারেলের দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। তার আগে এত দীর্ঘ মেয়াদের আর কোন এটর্নি জেনারেল দেখা যায়নি বাংলাদেশে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ