ঢাকা, সোমবার 21 November 2016 ৭ অগ্রহায়ন ১৪২৩, ২০ সফর ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

কাজী রিয়াজুল কোন কর্তৃত্ববলে মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান

স্টাফ রিপোর্টার : বাংলাদেশ জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হক কোন কর্তৃত্ব বলে চেয়ারম্যান পদে আছেন-তার কারণ জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হককে এই রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।
এক রিট আবেদনের প্রাথমিক সুনানি শেষে গতকাল রোববার বিচারপতি কাজী রেজাউল হক ও বিচারপতি মোহাম্মদ উল্লাহ সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চ এই রুল জারি করেন।
আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী ড.ইউনুছ আলী আকন্দ।
এর আগে গত ৯ নবেম্বর আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় রিটটি দায়ের  করেন। রিট আবেদনে বলা হয়, কাজী রিয়াজুল হক ইতোপূর্বে ২০১০ ও ২০১৩ সালে দু’দফায় কমিশনের সদস্য ছিলেন। চলতি বছর ২২ জুন থেকে তিনি জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান পদে নিয়োগ পান। অথচ ২০০৭ সালের মানবাধিকার কমিশন আইনের ২ (এইচ) ও ৬ (৩) ধারা অনুযায়ী দুবারের বেশি নিয়োগ হলে তা অবৈধ। কারণ ২ (এইচ) ধারা অনুযায়ী মেম্বার অর্থ কমিশনের চেয়ারম্যানসহ মেম্বার। আর ৬ (৩) ধারায় বলা হয়েছে, কমিশনের চেয়ারম্যান প্রতি টার্ম ৩ বছরের জন্য নিয়োগ হবে, তবে টার্মের বেশি নিয়োগ দেয়া যাবে না।
এই পদটিতে আইন বিশেষজ্ঞদের নিয়োগ দেয়ার বিধান রয়েছে উল্লেখ করে রিটে বলা হয়, কমিশন আইনের ৬ (২) ধারা অনুযায়ী চেয়ারম্যান নিয়োগের জন্য প্রার্থীকে বিশিষ্ট আইনজ্ঞ হতে হবে। কিন্তু তিনি আইনজীবী বা বিচার বিভাগীয় পদে ছিলেন না। এ পদটি আধা-বিচার বিভাগীয় ভারতসহ অন্যান্য দেশে অবসরপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতিকে ওই পদে নিয়োগ দেয়া হয়।
কাজী রিয়াজুল হক ২০০৬ সালে সচিব হিসেবে অবসরে যাওয়ার পর কিছু দিন বার কাউন্সিলের ‘লিগ্যাল এডুকেশন এন্ড ট্রেনিং ইনস্টিটিউট’র নির্বাহী পরিচালকের দায়িত্ব পালন করেন। এরপর নিয়োগ পান জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সদস্য পদে। চেয়ারম্যান হিসেবে নিয়োগ পাওয়ার আগে ছয় বছর মানবাধিকার কমিশনের পূর্ণকালীন সদস্য ছিলেন। মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান হিসেবে তিনি সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের একজন বিচারকের সমান বেতন, ভাতা ও অন্যান্য সুবিধা ভোগ করেন।
মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান ও সদস্য বাছাই কমিটির প্রধান হলেন স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী। ওই কমিটির সুপারিশে রাষ্ট্রপতি এই কমিশনের চেয়ারম্যান ও সদস্য পদে নিয়োগ দিয়ে থাকেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ