ঢাকা, মঙ্গলবার 29 November 2016 ১৫ অগ্রহায়ন ১৪২৩, ২৮ সফর ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

রাজশাহী কলেজে ছাত্রলীগ-ছাত্রদল সংঘর্ষ-ভাংচুর ॥ ৩ শিক্ষক লাঞ্ছিত

রাজশাহী অফিস : গতকাল সোমবার সকালে রাজশাহী সরকারি কলেজে ছাত্রলীগ ও ছাত্রদলের মধ্যে সংঘর্ষ ঘটে। এ সময় ক্যাম্পাসে ব্যাপক ভাংচুর চালানো হয়। পরে মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ হাসান রাজীবের নেতৃত্বে শিবিরকর্মী সন্দেহে এক ছাত্রকে মারপিট করে নেতাকর্মীরা। এ সময় তাকে রক্ষা করতে গিয়ে কলেজের অধ্যক্ষসহ তিন শিক্ষকও তাদের হাতে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত হন।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বেলা সাড়ে ১১টার দিকে দলীয় টেন্ট থেকে মিছিল বের করে কলেজ শাখা ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা। পরে তারা শহীদ মিনারের সামনে গিয়ে সমাবেশ করার চেষ্টা করে। এ সময় কলেজ হোস্টেল থেকে ছাত্রলীগের একটি মিছিল এসে সেখানে পৌঁছলে উত্তেজনা সৃষ্টি হয় এবং সংঘর্ষ বেধে যায়। এ সময় সাধারণ শিক্ষার্থীরা আতঙ্কে ছুটোছুটি শুরু করে। দৌড়ে পালানোর সময় কলা ভবনের সামনে থেকে শিবিরকর্মী সন্দেহে ইসলামের ইতিহাস বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আব্দুল্লাহকে ধরে ফেলে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। পরে তারা পুলিশের সামনে দিয়ে আব্দুল্লাহকে বেদম মারতে মারতে টেনে হিঁচড়ে বিজ্ঞান ভবনের দিকে নিয়ে যায়। এ সময় পুলিশ নীরব দর্শকের ভূমিকায় ছিল। পরে তাকে রক্ষায় এগিয়ে আসেন ইসলামের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক আনিসুজ্জমান ও আবু নোমান এবং অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক মিজানুর রহমান। কিন্তু ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা তাদেরকেও শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে। এ সময় সাংবাদিকরা ছবি তুলতে গেলে ছাত্রলীগ নেতারা বাধা দেয়। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেয়া হয়। এক পর্যায়ে মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার কলেজ ক্যাম্পাসে হাজির হন। তার নেতৃত্বে ছাত্রলীগের একটি মিছিল বের হয়ে নগরীর সাহেব বাজারের দিকে চলে যায়। কলেজের অধ্যক্ষ মহা. হবিবুর রহমান জানিয়েছেন, মিছিলের জন্য ছাত্রলীগ বা ছাত্রদল কেউ অনুমতি নেয়নি। দু’দলই অনুমতি ছাড়া ক্যাম্পাসে মিছিল করেছে। শিক্ষকরা জানিয়েছেন, সংঘর্ষের পর প্রশাসন ভবনের সামনে ও বিভিন্ন বিভাগে ব্যাপক ভাংচুর চালানো হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ