ঢাকা, বুধবার 30 November 2016 ১৬ অগ্রহায়ন ১৪২৩, ২৯ সফর ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

বরিশালকে হারিয়ে কুমিল্লার দ্বিতীয় জয়

স্পোর্টস রিপোর্টার : বিপিএলে বরিশাল বুলসকে হারিয়ে দ্বিতীয় জয় পেল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। তবে কুমিল্লার এই জয়টা এল অনেক দেরিতেই। গতকার কুমিল্লা ৮ উইকেটে হারায় বরিশালকে। এই জয়টা কুমিল্লার শান্তনার জয় হলেও ক্ষতিটা হলো বরিশাল বুলসেরই। কারণ এই মাচে হারায় শেষ চারে উঠাটাই কঠিন হয়ে গেল বরিশালের। গতকাল টস জিতে আগে ব্যাটিং করে ৮ উইকেটে বরিশাল করে ১৪৩ রান। জবাবে ২ উইকেট হারিয়েই এক ওভার বাকি থাকতে ১৪৫ রান করে ৮ উইকেটে জয় পায় কুমিল্লা। বিজয়ী দলের পক্ষে নাবিল সামাদ মান অব দ্য মাচ নির্বাচিত হন। জয়ের জন্য কুমিল্লার সামনে টার্গেট ছিল ১৪৩ রান। তবে ব্যাট করতে নেমে কুমিল্লার ওপেনার ইমরুল কায়েস ও আহমেদ শেহজাদের ওপেনিং জুটিতেই ৯৩ রান করে দলের জয় অনেকটা নিশ্চিত করে। দলীয় ৯৩ রানে ইমরুল কায়েসের বিদায়ে ভাংগে এই জুটি। বিদায়ের আগে ইমরুল কায়েস ৩৫ বলে ৬টি চার ও ১টি ছক্কার মারে ৪৬ রান করেন। দলীয় ১২০ রানে কুমিল্লা হারায় দ্বিতীয় উইকেট। এবার বিদায় নেন অপর ওপেনার শেহজাদ। আউট হওয়ার আগে শেহজাদ ৫৬ বলে ৬১ রানের ইনিংস খেলেন। এ ইনিংসে তার ৫টি চারের মার রয়েছে। দলীয় ১২০ রানে কুমিল্লা দ্বিতীয় উইকেট হারালেও তৃতীয় উইকেট জুটিতে মারলন স্যামুয়েল আর খালিদ লতিফ মিলে দলকে জয়ী করেই মাঠ ছাড়েন।  মারলন স্যামুয়েলস ২৭ এবং খালিদ লতিফ ৭ রানে অপরাজিত থাকেন। বরিশালের হয়ে রুম্মন রাইস ও মালান ১টি করে উইকেট করে উইকেট নেন। এর আগে, প্রথমে ব্যাট করতে নেমে শুরুটাই ভালো হয়নি বরিশালের। কারণ দ্বিতীয় ওভারেই দলীয় ৮ রানে উইকেট হারায় বরিশাল। ৯ বলে ১ ছক্কার মারে ৭ রান করে বিদায় নেন ওপেনার দিলশান মুনাবিরা। তবে দ্বিতীয় উইকেট হারানোর আগেই দলটি পৌছে যায় ৪২ রানে। সপ্তম ওভারে দাউয়িদ মালানও ৯ রানে আউট হন। তৃতীয় উইকেটে জিভান  মেন্ডিস ও মুশফিকুর রহিম জুটি গড়ে দলকে এগিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন। তবে ২৪ বলে ২৮ রান করে সাজঘরে ফিরেন মালান। এরপর মুশফিকও ব্যক্তিগত ২৯ রানে ফিরে যান। দলের হয়ে এটাই ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রান। শেষ পর্যন্ত বরিশাল ৮ উইকেটে করে ১৪২ রান। তাইজুল ১৪ এবং এনামুল হক ১২ রান করে অপরাজিত থাকেন। কুমিল্লার হয়ে নাবিল সামাদ ৩টি ও রশিদ খান ২টি উইকেট নেন। শাহাদাত হোসেন ও মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন একটি করে উইকেট নেন।
সংক্ষিপ্ত স্কোর : বরিশাল বুলস : ১৪২/৮ (২০ ওভার)
কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স : ১৪৫/২ (১৯ ওভার)
কুমিল্লা ৮ উইকেটে জয়ী।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ