ঢাকা, বুধবার 30 November 2016 ১৬ অগ্রহায়ন ১৪২৩, ২৯ সফর ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

ব্যবহারকারীদের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দেয়ার চেষ্টা ফেসবুক কর্তৃপক্ষের

আবু হেনা শাহরীয়া : সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ‘ফেসবুক’ নিয়ে আগ্রহের শেষ নেই ব্যবহারকারীদের। তবে অ্যাপলের আইম্যাসেজ, হোয়াটসআপ, গুগলের হ্যাংআউট এবং ইনস্টাগ্রামের মতো সামাজিক যোগাযোগ নেটওয়ার্ক তরুণদের মধ্যে জনপ্রিয় হওয়ায় ফেসবুক ব্যবহারে আগ্রহ কমছে। সম্প্রতি এক জরিয়ে এমন তথ্য উঠে আসার পর লড়েচড়ে বসেছে ফেসবুক। তারাও নতুনন্ত আনতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। বছরের প্রায় সময় ধরেই এর নতুনত্ব নিয়ে ব্যস্ত থাকেন সংশ্লিষ্টরা। কিভাবে এটাকে সাজালে আইডি ধারীরা খুশি হবে তা নিয়ে ব্যস্ত থাকেন উদ্যাক্তরা। এবারও তারা বেশ কিছু নতুনত্ব নিয়ে ভাবছে।
নিরাপত্তা নিশ্চিৎ করা: ফেসবুক সবসময়ই চেষ্টা করে ব্যবহারকারীদের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দিতে। তাই সেটিংস অপশনের কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ ফিচার জেনে রাখলে আপনি ফেসবুক ব্যবহার করতে পারবেন নিশ্চিন্তে। তাছাড়া ফেসবুকের বেশ কিছু ফিচার আপনার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে করতে পারে আরও সহজ ও সক্রিয়। অন্যের ডিভাইস থেকে পারতপক্ষে ফেসবুকে লগ ইন না করাই ভালো। ছোট কোন ভুলের জন্য আপনার গোপনীয়তা ক্ষুণ্ন হতে পারে। আপনি হয়তো ভুলে যেতে পারেন লগআউট করার কথা, অথবা লগআউট করার আগেই ইন্টারনেট কানেকশন বিচ্ছিন্ন হয়ে গেল। কী করবেন? খুব সহজ, ফেসবুক সেটিংসে গিয়ে ‘সিকিউরিটি’ অপশনে ক্লিক করলে ‘হয়ার ইউ আর লগড ইন’ নামক একটি অপশন পাবেন। এখানে একটি লিস্টে কোথায় কোথায় আপনার অ্যাকাউন্ট লগইন করা আছে তা পেয়ে যাবেন। যে ডিভাইসে আপনি লগআউট করতে চান সেটির ‘এন্ড অ্যাক্টিভিটি’তে ক্লিক করুন। ফেসবুকে সবসময় সবার সাথে যোগাযোগ রেখে পোস্ট, বিজ্ঞাপন, গেম খেলার মত বিরক্তিকর সব রিকোয়েস্ট বন্ধ করে দিতে পারেন ‘ম্যাসেঞ্জার ডট কম’ এর মাধ্যমে। আপনার বন্ধুর সঙ্গে ফেসবুকের সমস্ত স্মৃতি একসাথে দেখার জন্য ভিজিট করতে পারেন ‘ফেসবুক আস’ ফিচারটি। সার্চ দিলেই আপনার সামনে হাজির হবে এই ফিচার। রিলেশনশিপ স্ট্যাটাসটা ‘সিঙ্গেল’ হয়ে যাওয়া অনেকসময় বেশ যন্ত্রণাদায়ক। বারবার সম্পর্ক ভেঙে যাওয়া মানুষটির পোস্ট এই কষ্টকে বাড়িয়ে তুলতে পারে। ‘সি লেস’ ফিচারের মাধ্যমে বিচ্ছেদ হওয়া দু’জন মানুষের পোস্ট ঘন ঘন দেখাবে না ফেসবুক। আপনার মৃত্যুর পরও ভার্চুয়াল জগত আপনার স্মৃতি বয়ে বেড়াবে। মৃত্যুর পরও নিজেকে সামাজিক মাধ্যমে অমর করতে চাইলে সেটিংসে গিয়ে সিকিউরিটি অপশনে গিয়ে আপনার জীবনের সবচেয়ে বিশ্বাসযোগ্য মানুষটিকে অ্যাকাউন্টের উত্তরাধিকারী হিসেবে মনোনীত করে যেতে পারেন।
খুঁজে দেবে ওয়াই: আপনার আশপাশের কোথায় ওয়াই-ফাই সুবিধা আছে, তা খুঁজে দেবে ফেসবুক। এ-সংক্রান্ত একটি নতুন ফিচার আনছে ফেসবুক প্রতিষ্ঠান। সম্প্রতি ফেসবুক কর্তৃপক্ষ ঘোষণা দিয়েছে, তারা এমন একটি ফিচার নিয়ে আসছে, যাতে রিয়েল টাইম বা তাৎক্ষণিক তথ্য শেয়ার করতে নিকটস্থ ওয়্যারলেস হটস্পটের তথ্য জানাতে পারবেন। আগে ফেসবুক ‘পেজেস’ থেকে ওয়াই-ফাইয়ের অবস্থান শনাক্ত করত। প্রযুক্তি-বিষয়ক ওয়েবসাইট দ্য নেক্সট ওয়েবের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শক্তিশালী ইন্টারনেট সংযোগ ছাড়া লাইভ ভিডিও দেওয়া কষ্টকর হয়। ওয়াই-ফাইয়ের নিকটতম অবস্থান সম্পর্কে ফেসবুক যতবেশি তথ্য দিতে পারবে, তাৎক্ষণিক তথ্য বিনিময়ের মান আরও বেড়ে যাবে। শিগগিরই অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস প্ল্যাটফর্মের স্মার্টফোন ব্যবহারকারীরা এ সুবিধা পেতে পারেন। তবে ফেসবুক এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো মন্তব্য করেনি। ধরা পড়েছে ফেসবুকের ত্রুটি: ফেসবুকের নতুন তিনটি ত্রুটি খুঁজে পাওয়া গিয়েছে। ফেসবুকে দেওয়া বিজ্ঞাপন, লেখা বা ভিডিও কতজন, কতবার, কত সময় ধরে দেখা হয়েছে তা নিয়ে গবেষণা করতে গিয়ে ফেসবুকের কিছু ত্রুটি খুঁজে পাওয়া গিয়েছে। বিজ্ঞাপণদাতা সংস্থার অভিযোগের ভিত্তিতে ফেসবুক গত সেপ্টেম্বর থেকে এ ব্যপারে তদন্ত শুরু করে। তাদের অভিযোগ ছিল, টিভি থেকে শুরু করে টুইটারে সব প্রচার মাধ্যমে তাদের বিজ্ঞাপনের সঠিক পরিসংখ্যান জানা গেলেও ফেসবুকে হেরফের হচ্ছে। একটি লেখা কতক্ষণ ধরে পাঠক পড়েছে, একই পাঠক কতবার পেজে ফিরে এসছে এবং কতজন ভিডিও দেখেছেন তার সঠিক পরিসংখ্যান দিতে ব্যর্থ হওয়ায় বিজ্ঞাপণ দাতারা বিরক্তি প্রকাশ করেছে। এরপর নানা গবেষণার পর নতুন তিনটি ত্রুটি পাওয়া গিয়েছে। সংস্থাটির গ্লোবাল মার্কেটিং বিভাগের ভাইস-চেয়ারম্যান ক্যারোলিন এভারসন বলেন, ‘ফেবুকের এসব ত্রুটি আমরা খুব দ্রুত খুঁজে বের করে এর সমাধান করেছি। যাতে ব্যবসায়ীরা তাদের তাদের পণ্যের বিজ্ঞাপণ অনায়াসে ফেসবুকের মাধ্যমে মোবাইল ফোনে প্রচার করতে পারেন।’ মিথ্যা খবর বন্ধ করবে: ফেসবুকে মিথ্যা খবর ছড়ানো বন্ধের উদ্যোগ নিয়েছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। এ বিষয়ে পরিকল্পনার বিস্তারিত প্রকাশ করেছেন ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জুকারবার্গ। বিবিসির খবরে বলা হয়, ফেসবুকে একটি পোস্টের মাধ্যমে তিনি জানান, বিষয়টিকে তারা খুবই গুরুত্বের সাথে নিয়েছেন এবং এই সমস্যা সমাধানে বেশ কিছু ব্যবস্থা নিয়েছেন। সাম্প্রতিক মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে সামাজিক যোগাযোগের সাইট ফেসবুকের বিরুদ্ধে বেশ কিছু ভুল খবর ছড়ানোর অভিযোগ ওঠে। বলা হয়, যা নির্বাচনের ফলাফল নির্ধারণে প্রভাব ফেলে। এর আগেও ফেসবুকের মাধ্যমে নানা ধরনের গুজব বা অসত্য তথ্য ছড়িয়ে সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা চলেছে। এই ধরনের নানা অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গ জানিয়েছেন, তার দুশ্চিন্তা এবং পরিকল্পনার কথা। সাম্প্রতিক মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে সামাজিক যোগাযোগের সাইট ফেসবুকের বিরুদ্ধে বেশ কিছু ভুল খবর ছড়ানোর অভিযোগ ওঠে। জাকারবার্গ তার একটি পোস্টে বলেছেন, এই সমস্যার বিরুদ্ধে তারা অনেক দিন ধরেই একরকম যুদ্ধ করে আসছেন। সম্প্রতি তার প্রতিষ্ঠান এ ধরনের অসত্য তথ্য যাচাই করার বেশ কিছু পদ্ধতি বের করতে পেরেছে। কোনো ভুয়া খবর ছড়ানোর চেষ্টা হলে এই পদ্ধতির মাধ্যমে তা শনাক্ত করা হবে এবং ভুল তথ্য হিসেবে তা শ্রেণীভুক্ত করা হবে বলে জানান বিশ্বের অন্যতম ধনী এই তথ্য প্রযুক্তিবিদ। জুকারবার্গ বলেন, এই পদ্ধতি প্রযুক্তিগত এবং দর্শনগত সবদিক থেকেই জটিল। ভুল খবর যাচাইয়ের পাশাপাশি তিনি এ-ও বলেছেন যে, একই সাথে ফেসবুক কারো মন্তব্য পোস্ট করা থেকেও বিরত রাখতে চায় না। ফেসবুকের মতো অনলাইন সার্চ ইঞ্জিন কোম্পানি গুগল ঘোষণা দিয়েছে যে, তারাও ভুল খবর এবং ভুয়া বিজ্ঞাপন প্রচারের মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করা সাইটগুলো বন্ধে কাজ করে যাচ্ছে।
হ্যাকিং প্রকাশ পাবে ৪ লক্ষণে: যত দিন যাচ্ছে ততই যেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের জনপ্রিয়তা বাড়ছে। তেমনই বাড়ছে অ্যাকাউন্ট হ্যাকিং হওয়ার ঘটনাও। এমনটা ঘটছে ফেসবুক ইউজারদের অজান্তেই। যাদের অ্যাকাউন্ট হ্যাক হচ্ছে, তারা জানতেও পারছেন না, কখন তাদের অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়ে যাচ্ছে। এমনকি হ্যাকার যদি তেমন দক্ষ হয়, তাহলে অনেক সময়ে অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়ে যাওয়ার পরেও ইউজার ব্যাপারটা টের পান না। সে ক্ষেত্রে কীভাবে নিশ্চিত হবেন যে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টটিও হ্যাক হয়নি! বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এ ব্যাপারে মূলত এই ৪টি বিষয়ের দিকে নজর রাখতে হবে। অজানা লোকেশন থেকে আপনার অ্যাকাউন্টে কোনো পোস্ট করা হচ্ছে কি না- ফেসবুকে কোনো পোস্ট কোনো জায়গা থেকে করা হচ্ছে, তা দেখা যায়। সেদিকে নজর রাখুন। আপনি যাননি এমন কোনো জায়গা থেকে যদি আপনার টাইমলাইনে কোনো পোস্ট করা হয় তাহলে বুঝতে হবে, আপনার অ্যাকাউন্ট হ্যাকড। আপনি আপনার অ্যাকাউন্টে ঠিকঠাক লগ ইন করতে পারছেন কি না- যদি দেখেন আপনার ইউজার নেম ও পাসওয়ার্ড নির্ভুলভাবে দেওয়া সত্ত্বেও আপনার এফবি অ্যাকাউন্টে লগ ইন করতে পারছেন না, তাহলে বুঝতে হবে, আপনার অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে হ্যাকার প্রোফাইলের পাসওয়ার্ড চেঞ্জ করে দিয়েছে। যদি অচেনা মানুষদের কাছ ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট অ্যাকসেপ্টেন্স নোটিফিকেশন আসে- ফেসবুকে যাদের আপনি ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠাননি, তাদের কাছ থেকেও যদি নোটিফিকেশন আসে যে, তারা আপনার ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট অ্যাকসেপ্ট করে নিয়েছেন, তা হলে বুঝতে হবে হ্যাকার আপনার অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে তাদের ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠিয়েছিল। আপনার অ্যাকাউন্ট থেকে যদি অপ্রত্যাশিত পোস্ট হতে থাকে- আপনি পোস্ট করেননি এমন কোনো বিষয় যদি আপনার হোমপেজে আপনার নামে পোস্ট হয়ে থাকে তাহলে নিশ্চিত থাকুন, আপনার এফবি অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ