ঢাকা, বুধবার 30 November 2016 ১৬ অগ্রহায়ন ১৪২৩, ২৯ সফর ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

হাঙ্গেরির প্রস্তাবে বাংলাদেশের সঙ্গে সহযোগিতার দ্বার উন্মোচন

মঙ্গলবার হাঙ্গেরির বুদাপেস্টে পার্লামেন্ট ভবন চত্বর Kossuth Square-এ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সে দেশের প্রধানমন্ত্রী ভিক্টর ওরবান (Victor Orban) এর সহগমনে গার্ড পরিদর্শন করেন -পিআইডি

বুদাপেস্ট (হাঙ্গেরি) থেকে বাসস : বাংলাদেশে চিকিৎসা, প্রযুক্তি ও কৃষি বিজ্ঞানসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের জন্য নতুন বৃত্তি কর্মসূচি প্রবর্তনের প্রস্তাব দিয়েছেন হাঙ্গেরির প্রেসিডেন্ট ড. জানোস আদের। তার এই প্রস্তাবে বাংলাদেশের সঙ্গে সহযোগিতার নতুন দরোজা উন্মোচন হলো।
এখানে গত সোমবার সান্দর প্যালেসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠকে হাঙ্গেরির প্রেসিডেন্ট ড. জানোস আদের এই প্রস্তাব দেন।
বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী বুদাপেস্টে পানি শীর্ষ সম্মেলন-২০১৬-তে অংশ নিতে চারদিনের দ্বিপক্ষীয় সফরে এখন হাঙ্গেরির রাজধানীতে অবস্থান করছেন।
বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে পররাষ্ট্র সচিব এম শহীদুল হক বলেন, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে গতকাল মঙ্গলবার আনুষ্ঠানিক বৈঠকে হাঙ্গেরির প্রধানমন্ত্রী ভিক্টর আরবানের এই বৃত্তি কর্মসূচি ঘোষণা করার কথা।
এছাড়াও প্রেসিডেন্ট আদের মৎস্যচাষ (পিসিকালচার) এবং জলজ উদ্ভিদ ও জীব-জন্তুর বংশ বিস্তারের (একুয়াকালচার) ক্ষেত্রে বাংলাদেশ সরকারকে সহযোগিতা করবেন।
এছাড়াও আদের বলেন, পানি পরিশোধন ও বন্যা আক্রান্ত এলাকায় বাংলাদেশকে সহায়তা করতে চায় হাঙ্গেরি।
পররাষ্ট্র সচিব বলেন, ‘এ প্রস্তাবে হাঙ্গেরির সঙ্গে সহযোগিতার নতুন দরোজা উন্মোচিত হলো।’
এম শহীদুল হক বলেন, গত সোমবার বিকেলে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী প্রেসিডেন্ট প্যালেসে পৌঁছালে হাঙ্গেরির প্রেসিডেন্ট ড. জানোস আদের এসে তাঁকে আন্তরিক অভ্যর্থনা জানান।
পররাষ্ট্র সচিব বলেন, একজন বিশ্বনেতা হিসেবে পানি সমস্যা নিয়ে হাঙ্গেরির প্রেসিডেন্ট সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বৃদ্ধির কারণে বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ প্রভাব ও দুর্যোগ এবং পানি সম্পদ ব্যবস্থাপনার মতো অন্যান্য বিষয় সম্পর্কে জানতে আগ্রহ প্রকাশ করেন।
প্রেসিডেন্ট আদের সমুদ্র পৃষ্ঠের উচ্চতা বৃদ্ধি ঠেকাতে বাংলাদেশের প্রস্তুতি এবং পরিস্থিতি মোকাবেলায় তার সরকারের সম্ভাব্য সহায়তার বিষয়ে জানতে চান।
এ প্রসঙ্গে শেখ হাসিনা সমুদ্র পৃষ্ঠের উচ্চতা বাড়লে বাংলাদেশের ঝুঁকি এবং সমুদ্র পৃষ্ঠের উচ্চতা দুই মিটার বেড়ে গেলে দুই থেকে আড়াই কোটি লোকের বাস্তুচ্যুত হওয়ার ঝুঁকি সম্পর্কিত বিভিন্ন গবেষণার কথা উল্লেখ করেন।
প্রধানমন্ত্রী সবুজ বেষ্টনি প্রকল্প, বনায়ন কর্মসূচি ও বাস্তুচ্যুত লোকজনের জন্য উঁচু ভূমিতে বাড়িঘর নির্মাণসহ জলবায়ু সহিষ্ণু তহবিলের আওতায় বাংলাদেশের বিভিন্ন উদ্ভাবনী স্কিমের ব্যাপারে হাঙ্গেরির প্রেসিডেন্টকে ব্রিফ করেন।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব প্রকল্প সম্পর্কে সরাসরি অভিজ্ঞতা অর্জনে হাঙ্গেরির প্রেসিডেন্টকে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানালে তিনি তা গ্রহণ করেন এবং তার সুবিধাজনক সময়ে বাংলাদেশ সফরের আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
এর আগে প্রধানমন্ত্রী গতকাল মঙ্গলবার হাঙ্গেরির রাজধানীতে শুরু হওয়া পানি সম্মেলন-২০১৬ এর ফাঁকে মরিশাসের প্রেসিডেন্ট আমিনাহ গারিব-ফাকিমের সঙ্গে বৈঠক করেন।
পররাষ্ট্র সচিব বলেন, ফাকিম মরিশাসে কর্মরত বাংলাদেশী অভিবাসীদের সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রীকে ব্রিফ করেন। তারা বিনিয়োগের বিষয় নিয়েও বিস্তারিত আলোচনা করেন।
প্রেসিডেন্ট ফাকিম প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অবহিত করেন যে, মরিশাসে তৈরি পোশাক খাতে অনেক বাংলাদেশী নাগরিক কর্মরত রয়েছেন এবং কয়েকদিন আগে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী তাদের অবস্থা দেখতে এসব কারখানা পরিদর্শন করেন।
পররাষ্ট্র সচিব বলেন, মরিশাসে বাংলাদেশী শ্রমিকরা অন্যান্য দেশের শ্রমিকদের চেয়ে অনেক বেশি উপার্জন ও উন্নত জীবনযাপন করছেন।
সকালে প্রেসিডেন্ট আদের সঙ্গে শেখ হাসিনা ‘টেকসই পানি সমাধান প্রদর্শনী’ পরিদর্শন করেন। তিনি এ সময় নতুন নতুন উদ্ভাবনী প্রযুক্তি ও পানি পরিশোধন প্রক্রিয়া প্রত্যক্ষ করেন।
হাঙ্গেরির জাতীয় বীরদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন : আরেক খবরে বলা হয়, গতকাল মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সিটি পার্কের ‘হিরোস স্কয়ার’ এ হাঙ্গেরির জাতীয় বীরদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। তিনি পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে হাঙ্গেরি রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় প্রাণোৎসর্গকারী বীরদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।
প্রধানমন্ত্রী এ সময় সেখানে সম্মান প্রদর্শনের স্মারক হিসেবে এক মিনিট দাঁড়িয়ে নীরবতা পালন করেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৪ দিনের সরকারি সফরে রবিবার এখানে এসে পৌঁছেছেন।
এটিই হচ্ছে হাঙ্গেরিতে বাংলাদেশের উচ্চপর্যায়ের কোনো নেতার প্রথম সফর।
হিরোস স্কয়ার হচ্ছে বুদাপেস্টের একটি অন্যতম ঐতিহাসিক স্থান যা মাগিয়ার সাত নেতার প্রতিমূর্তি সংবলিত কমপ্লেক্স ও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ জাতীয় নেতাসহ অজানা সৈন্যদের সমাধিস্থল হিসেবে বিখ্যাত।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ