ঢাকা, শুক্রবার 02 December 2016 ১৮ অগ্রহায়ন ১৪২৩, ০১ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

শা হী ন রে জা

এবার থামো

ওদের অপরাধ জানে না ওরা, এমনকি যারা ওদেরকে পুড়িয়ে মারছে, করছে রক্তাক্ত
ক্ষতবিক্ষত, ভিটাহীন ; তারাও। স্বামীর লাশের পাশে স্ত্রী, দূরে পুড়ে যাওয়া ভিটার কোলে
ক্রন্দনরত ক্ষুধার্ত শিশু ; এ কোন চিত্র বার্মায়, এ কোন দৃশ্য ?

কাঁদছে শোকার্ত নাফ নদী আর বিধ্বস্ত বাতাস বুকে নিয়ে অবোধ্য রোদন ছুটে চলছে ক্রমাগত বঙ্গোপসাগরে
 
শান্তির জন্য তুমি পেয়েছো নোবেল, এবার অসহায় মানুষ- নিরীহ মুসলমানদের জীবনে ফ্রাঙ্কেনস্টাইন হয়ে
কি পুরষ্কার পাবে তুমি হে সুচি, অং সান সুচি, একটুও কি মমতা নেই তোমার আত্মায় ?

মনেরেখো রক্তাক্ত মানুষগুলো আমাদের ভাই, ধর্ষিতা রমনীগুলো আমাদেরই জননী কন্যা জায়া
এক আল্লাহর ইবাদতে সামিল আমরা- দন্ডায়মান একই কাতারে, একই ভঙ্গিতে নতজানু  প্রবল সিজদায়   

ওদের বিপন্ন আত্মা ডাকছে আমাদের, ওদের শরীর থেকে পুড়ে যাওয়া মাংস আর নিঃসৃত অনল লহুগুলো
আমাদের দেহে জন্ম দিচ্ছে অজ¯্র ক্রোধ ; ভ্রাতৃহত্যার দায়ে রুখে উঠে ফুসে উঠে একদিন
ঝলসে দিতে পারি তোমাকে-তোমাদের ; আমারও

মানবতার দোহাই, দোহাই শান্তি ও সুন্দরের- এবার থামো,  এক মুসলিমের রক্ত থেকে জন্ম নেয়া
শত মুসলিমের দ্রোহে তোমাদের ধ্বংস অনিবার্য দেখো।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ