ঢাকা, শনিবার 03 December 2016 ১৯ অগ্রহায়ন ১৪২৩, ০২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

শার্শায় বোমা তৈরীর সময় বিস্ফোরণে একজন আহত

বেনাপোল সংবাদদাতা : শার্শা উপজেলার মহিয়াকুড়া গ্রামে নিজ বাড়িতে বোমা তৈরীর সময় বোমা বিস্ফোরণে আহত হয়েছে বোমা তৈরীর কারিগর আশানুর(২৫) নামে এক যুবক। আহত যুবক একই গ্রামের আব্দুর রশীদের ছেলে। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার সকালে মহিষাকুড়া গ্রামে। খবর পেয়ে শার্শা থানার বাগআঁচড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এস আই হাবিবুর রহমান ঘটনাস্থল থেকে আহত আশানুরকে আটক করে। এ সময় সেখান থেকে উদ্ধার করা হয় একটি পিস্তল, ২টি ম্যাগজিন, ৩ রাউন্ড গুলী এবং ১০টি হাত বোমা। আহত আশানুর যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে পুলিশি প্রহরায় চিকিৎসাধীন রয়েছে।তার অবস্থা আশংকাজনক।

শার্শা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান বোমা বিস্ফোরণে তার হাতের কব্জি উড়ে গেছে। সে একজন পেশাদার সন্ত্রাসী। ঘটনা স্থল থেকে বোমা তৈরীর কারিগর আহত আশানুরকে আটক করা হয়েছে। এ সময় আরো ১০/১২জন সঙ্গি পালিয়ে যায়। এ ব্যাপারে শার্শা থানায় একটি মামলা হয়েছে।

৫ নারী ও শিশুকে বেনাপোলে হস্তান্তর 

ভারতে পাচার হওয়া পাঁচ নারী-শিশুকে স্বদেশ প্রত্যাবর্তন আইনে দুই বছর পর দেশে ফেরত পাঠানো হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় ভারতের পেট্রাপোল বিএসএফ ক্যাম্পের সুবেদার প্রভাত কুমার বেনাপোল চেকপোস্ট ক্যাম্পের বিজিবি সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করেন।

 দেশে ফেরত আসারা হলো- বান্দরবনের রুবিনা খাতুন ওরফে রমেছা (২০), খুলনার মাসুরা বেগম (৩০), সুলতানা (২৫), আয়শা বেগম (১৯) ও শিশু আব্দুলল্লাহ-আল-মামুন (০২)।

 বেনাপোল চেকপোষ্ট ক্যাম্পের সুবেদার নজরুল ইসলাম জানান, ফেরত আসা বাংলাদেশী নারী ও শিশুদের আইনি প্রক্রিয়া শেষে বাংলাদেশ মহিলা আইজীবী সমিতির হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। পরে তাদের পরিবারের কাছে পৌঁছে দেওয়া হবে। 

বাংলাদেশ মহিলা আইনজীবী সমিতির যশোর শাখার সমন্বয়কারী কর্মকর্তা এবিএম মুহিত হোসেন জানান, দুই বছর আগে দালালদের খপ্পরে পড়ে দেশের বিভিন্ন সীমান্ত পথে ভারতে যান। পরে ভারতীয় পুলিশ তাদের দালালদের হাত থেকে উদ্ধার করে অদালতে সোপর্দ করে। সেখান থেকে ভারতের নিলুয়া শেল্টার হোম নামে একটি এনজিও তাদের ছাড়িয়ে নিজেদের হেফাজতে রাখে। পরে দুই দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের অনুমতি ক্রমে স্বদেশ প্রত্যাবর্তন আইনে তাদের ফেরত আনা হয়।

তিনি আরো জানান, কাগজপত্রের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন শেষে তাদের ফেরত আনা হয়। এছাড়াও তাদের মধ্যে কেউ দালালদের শনাক্ত করে মামলা করতে চাইলে তাকে আইনি সহায়তা করা হবে বলেও জানান তিনি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ