ঢাকা, রোববার 4 December 2016 ২০ অগ্রহায়ন ১৪২৩, ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

ধামরাইয়ে বানর তীব্র খাদ্য সংকটে বিলুপ্ত হয়ে যাচ্ছে

মোঃ শামীম হোসেন (সাভার সংবাদদাতা): ধামরাইয়ে ৪০০ বছরের ঐতিহ্যবাহী বানর প্রায় বিলুপ্তির পথে। বানরের অভয়ারণ্য হিসেবে পরিচিত ঢাকার ঐতিহ্যসমৃদ্ধ জনপদ ধামরাই। নগরীরর মানব কুলের সাথে মিশে থাকা বানরগুলোর দেখা দিয়েছে তীব্র খাদ্য সংকট। এখানকার প্রায় সহস্্রাধিক বানর ক্ষুধার যন্ত্রণায় দিনাতিপাত করছে। ক্ষুধার জ্বালায় গাছের মগডালে কিংবা মাটিতে নেমে এসে বানরগুলো চিৎকার- চেঁচামেচি করছে। আর দর্শনার্থীদের হাতে খাবার দেখলেই দল বেঁধে খাবারের জন্য লাফালাফি শুরু করে দিচ্ছে। এদের পাকৃতিক মহিমার উজ্জীবিত দৃশ্যগুলো দেখে আনন্দিত হলেও মূলত যেন এদের দেখার কেউ নেই। দুরন্ত ধামরাইয়ের শিল্পকলা ও বানর দেখতে নানা জায়গা থেকে দর্শনার্থীরা আসেন। তারা হাতে করে পাউরুটি, বিস্কুটসহ নানা খাবার নিয়ে আসেন বানরগুলোর জন্য। তবে বানরের সংখ্যার তুলনায় দর্শনার্থীদের নিয়ে আসা খাদ্য পর্যাপ্ত নয়। ৪০০ বছরের ঐতিহ্য এই প্রাণীগুলোর ১৬০৪ সনে এদের আবির্ভাব ঘটেছে বলে জানা যায়। ধামরাইর মোকামতোলা,পাঠানতোলা ও উপজেলা এলাকায় সব চেয়ে বানর বেশি।
দর্শনার্থীদের সহানুভূতিতে বানরগুলো পঙ্গপালের মতো এমনভাবে ছুটে আসছে, যেন অনেক দিনের চেনা। এছাড়া এখানকার স্থানীয় বাজারের বিক্রেতাদের থেকে কাচা সবজি খেয়ে কোনরকম দিন পাড়ি দিচ্ছে। প্রকৃতির অনন্য সম্পদ এসব বানর। তাছাড়া বানরগুলো জানালা দিয়ে মানুষের ঘর ও হোটেলে খাবারের জন্য হানা দিচ্ছে। এখানকার প্রাায় সহাস্রাধিক বানর চরম খাদ্য সঙ্কটে দিনাতিপাত করছে। ক্ষুধার তাড়নায় বানরগুলো কখনো সরবে আবার কখনো নীরবে কেঁদে ওঠে। স্থানীয় দুষ্ট ছেলেরা বানরগুলোকে তাড়াও করছে। তাড়া খেয়ে বানরগুলো আরও জোরে চিৎকার করে কেঁদে ওঠে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ