ঢাকা, রোববার 4 December 2016 ২০ অগ্রহায়ন ১৪২৩, ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

নাসিক নির্বাচনে বিএনপির জয়ের সম্ভাবনা হান্ড্রেড পার্সেন্ট -গয়েশ্বর চন্দ্র

স্টাফ রিপোর্টার : জেলা বিএনপি নেতাকর্মীদের দ্বন্দ্ব ভুলে ঐক্যবদ্ধভাবে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন (নাসিক) নির্বাচনে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, এটি করতে পারলে নির্বাচনে শতভাগ জয়ের সম্ভবনা রয়েছে। গতকাল শনিবার রাজধানীর নয়াপল্টনে ঢাকা মহানগর বিএনপির কার্যালয় ‘ভাসানী ভবনে’ আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় এই সম্ভবনার কথা বলেন তিনি। নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন উপলক্ষে এর আয়োজন করে বিএনপির নির্বাচন কেন্দ্রীয় সমন্বয় কমিটি।
গয়েশ্বর চন্দ্র বলেন, নাসিক নির্বাচনকে সবাই চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছে। এই চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে সবাইকে দায়িত্ব নিতে হবে। নিজেদের মধ্যে বিভেদ ভুলে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। কারণ এই নির্বাচন নেতাকর্মীদের জন্য কঠিন পরীক্ষা। তিনি বলেন, ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে পারলে জয়ের সম্ভবনা মোর দ্যান হান্ড্রেড পার্সেণ্ট (একশভাগেরও বেশি)। আমাদের কেউ ফেল করাতে পারবেনা।
তিনি আরও বলেন, ৫ জানুয়ারির মতো নির্বাচন জোর করে ফল ছিনিয়ে নিতে চাইলে নিক। জোর করে নিয়ে গেলে আমাদের কিছু করার নেই। জাতি যদি জানে নির্বাচনের ফলাফল ছিনিয়ে নিয়ে গেছে, তাতেও আমাদের লাভ।
নাসিক নির্বাচনে সরকারকে কোনো প্রকার ছাড় না দিতে নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বিএনপির এই নেতা বলেন, প্রত্যেক বিষয়ে ছাড় দেয়া যাবেনা। ছাড় দিলে সরকার দুষ্টামী করবে। নির্বাচনের শেষ পর্যন্ত ভোট পাহারা দেয়ার আহ্বান জানান তিনি।
স্থানীয় নেতাকর্মীদের বিভেদ ভুলে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়ে গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, নারায়ণগঞ্জে নেতাকর্মীদের মধ্যে একটু মোনমালিন্য আছে। এই মনোমালিন্য জিইয়ে রাখলে নির্বাচনে ফল নিয়ে আসা যাবেনা। জনগণ ভোট দিতে চায়। কাজেই নিজেরা নিজেরা  দ্বন্দ্ব করে ভোটারদের অবহেলা, অসম্মান করবেন না। মতবিনিময় সভায় স্থানীয় নেতারা নির্বাচনে প্রতিটি কেন্দ্রকে কেন্দ্র করে পৃথকভাবে কমিটি করার দাবি করেন।
বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন ঢাকা বিভাগের সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, শহীদুল ইসলাম বাবুল প্রমুখ। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি তৈমুর আলম খন্দকার, সাধারণ সম্পাদক কাজী মনিরুজ্জামান মনির, জেলা বিএনপির নেতা আবুল কালাম, গিয়াস উদ্দিন প্রমুখ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ