ঢাকা, মঙ্গলবার 6 December 2016 ২২ অগ্রহায়ন ১৪২৩, ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

পরিকল্পনা অনুযায়ী খেলে জয় চান তামিম

স্পোর্টস রিপোর্টার : বিপিএলে আজ এলিমিনেটর রাউন্ডে মুখোমুখি হবে চিটাগং ভাইকিংস ও রাজশাহী কিংস। দুপুর ১টায় শুরু হবে খেলাটি। কোয়ালিফায়ার-২ এর টিকিট পেতে এই ম্যাচে জিততেই হবে চিটাগাং ভাইকিংস অথবা রাজশাহী কিংসকে। জয় দিয়ে এবারের আসর শুরু করলেও, পরপর চারটি ম্যাচ হেরে ব্যাকফুটে চলে যায় চিটাগাং। তবে ষষ্ঠ ম্যাচ থেকে টানা পাঁচ জয় তুলে নিয়ে দুর্দান্তভাবে ঘুড়ে দাড়ায় তামিম-তাসকিনরা। ফলে ১২ খেলায় ১২ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তৃতীয়স্থানে থেকে প্লে-অফের টিকিট পায় চিটাগাং। এদিকে ১২ খেলায় ১২ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলে চতুর্থস্থানে থেকে প্লে-অফের টিকিট পায় রাজশাহী। তারাও জানে এলিমিনেটর মানেই বাঁচা-মরার লড়াই। তাই এলিমিনেটরে খেলার জন্য প্রস্তুত রাজশাহী বলে জানালেন দলের অধিনায়ক ওয়েস্ট ইন্ডিজের ড্যারেন স্যামি, ‘চিটাগাং-এর বিপক্ষে দু’বার আমরা খেলেছি। এরমধ্যে একবার তাদের হারিয়েছি। আবারো তাদের হারানোর ক্ষমতা আমাদের আছে। আগামীকাল নকআউট ম্যাচ। চিটাগংয়ের মুখোমুখি হতে আমরা প্রস্তুত এবং ভালো খেলতে মাঠে নামবো।’ এই ম্যাচে পরিকল্পনা অনুযায়ী খেলে জয় তুলে আনতে বদ্ধপরিকর চিটাগং অধিনায়ক দামিম ইকবাল। গতকাল অনুশীলন শেষে এমটাই জানান তামিম। তামিম বলেন, ‘আমি সব সময়ই দলের হয়ে অবদান রাখার চেষ্টা করি। এই টুর্নামেন্ট আমার জন্য ভালো যাচ্ছে। এখন হচ্ছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সময়। নিজের ওপর বা অন্য কোনও খেলোয়াড়ের ওপর বাড়তি চাপ দিতে চাই না। আমার কাজ হবে, পরিকল্পনা অনুযায়ী খেলা। সেটা করতে পারলে প্রত্যাশিত জয় আসবে। আমরা দল হিসেবে যদি খেলতে পারি, সেটাই হবে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।’ চলতি বিপিএলে অধিনায়ক হিসেবে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন তামিম ইকবাল। গত আসরে ব্যর্থ হলেও এই আসরে নিজের পারফরম্যান্স দিয়ে দলকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন চিটাগং ভাইকিংসের অভিজ্ঞ এই ওপেনার। চলতি আসরে ১২ ম্যাচে ৫ হাফসেঞ্চুরিতে সর্বোচ্চ ৪২৫ রান তামিমেরই। ব্যাটিংয়ের এই ধারা সামনের ম্যাচেও অব্যাহত রাখতে চান তামিম। সেই লক্ষ্যে সতীর্থদের ওপর বাড়তি  কোনও চাপ দিতে চান না তামিম। তামিম এবার ধারাবাহিকভাবে ভালো খেললেও ব্যক্তিগত অর্জনকে খুব গুরুত্বপূর্ণ মনে করেন না তামিম। তিনি বলেন,‘ব্যক্তিগত অর্জন আমার কাছে কোনও ব্যাপার নয়। যদি দলের সাফল্যের সঙ্গে সঙ্গে বিষয়গুলো আসতে থাকে, তাহলে আমার কাছে ভালো লাগে। কিন্তু দল ভালো না করলে ব্যক্তিগত  কোনও সাফল্যই স্পর্শ করে না। এখনই আসল খেলা। এখন যারা পারফরম করবে, আমার মনে হয় ওদের অবদানই সবচেয়ে বড় হবে। যারা এতদিন পারফরম্যান্স করতে পারেনি। তারা যদি এখন পারফরম্যান্স করতে পারে। সেটাই হবে সবচেয়ে বড় পারফরম্যান্স। এটাই আসলে মূল্যায়ন করা হবে।’ চার ম্যাচে ভালো রান পারেননি ব্যাটিং দানব ক্রিস গেইল। তার ব্যাট থেকে এসেছে ৬৫ রান। তার পারফরম্যান্সে হতাশ না হয়ে বরং খুশি হয়েছেন অধিনায়ক তামিম ইকবাল! তামিম ইকবাল বলেন, ‘গেইল রান পায়নি বলে যে আমি খুব কষ্ট  পেয়েছি তা নয়। আমি জানি, যে কোনও মুহূর্তে এমন একটা ইনিংস খেলবে যেটা ম্যাচকে একপেশে কওে দেবে। এই দিক থেকে আমি খুশি যে গত চার ম্যাচে সে খুব বেশি রান করেনি। আশা করবো যে পরের ম্যাচ গুলোতে এক-দুইটা বড় পারফরম্যান্স দিয়ে তার সামর্থ্য প্রমাণ করবে। তাহলে আমাদের জন্য কাজটা খুব সহজ হবে। যখন ক্রিস গেইলের মতো কোনও খেলোয়াড় দলে আসে তখন ফোকাসটা তার দিকে ঘুরে যায়। আমি কখনও এটা চাইনি যে আমাদের  খেলোয়াড়দের ফোকাসটা ওর দিকে ঘুরে যাক। তাহলে হয়কি, এমন একজন  খেলোয়াড় যখন রান না করে তখন দল মানসিকভাবে অনেকটা ভেঙে পড়ে। এই জিনিসটা আমাদের মধ্যে হয়নি। ও হয়তো ওর মতো অতটা ভালো খেলতে পারেনি। কিন্তু অন্যরা যারা ছিল, তারা চেষ্টা করেছে।’ গেইল আসার আগে দলের নিয়মিত ক্রিকেটার ছিলেন আরেক ক্যারিবিয়ান  ডোয়াইন স্মিথ। গেইল এলে বাদ পড়তে হয়েছে তাকে। অধিনায়ক হিসেবে এমন সিদ্ধান্ত বেশ কঠিন ছিল বলে জানান তামিম, ‘স্মিথ ৭০ রান করেও পরের ম্যাচে খেলতে পারেনি। কারণ, আমরা চারজন বিদেশি খেলোয়াড়ই খেলাতে পারি। ক্রিস যখন এসেছে তখন স্বাভাবিকভাবে আমরা ক্রিসের সঙ্গেই যাব। জিনিসটা ও(ডোয়াইম স্মিথ) ভালোভাবে নিয়েছে, ইতিবাচকভাবে নিয়েছে। আমাদের মনে হয়েছে, ক্রিস আরও বেশি বিপজ্জনক।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ