ঢাকা, শুক্রবার 9 December 2016 ২৫ অগ্রহায়ন ১৪২৩, ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

কর্ণফুলী বাঁচাও উদ্যোগ সময়ের দাবী

চট্টগ্রাম অফিস : চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এ.বি.এম মহিউদ্দিন চৌধুরী চট্টগ্রাম বন্দরের প্রাণ প্রবাহ কর্ণফুলী নদীর নাব্যতা হ্রাস পাওয়ায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, পিলার সেতু নির্মাণের ফলে কর্ণফুলী নদীতে পলি জমে নাব্যতা হারানোর পথে। এই নদীর নাব্যতা পিলার সেতু নির্মাণের পূর্বে ৯ মিটার ছিল সেখানে বর্তমানে ৮.৫ মিটার এবং উজানের দিকে ১ ও ২নং জেটিতে ৭.৫ মিটরে অবনমিত হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে কর্ণফুলী নদীতে নিয়মিতভাবে ড্রেজিং ব্যবস্থা চালু করা অপরিহার্য। তিনি আরো বলেন, দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের সাথে পাল্লা দিয়ে আমাদের আমদানী বাণিজ্য বৃদ্ধি পেয়েছে। বিশেষ করে লৌহ এবং ইস্পাত শিল্পের বিপুল পরিমান মালামাল, গম ও পোষাক শিল্পের আনুষঙ্গিক মালামাল ইত্যাদি। এ অবস্থায় আনুপাতিক হারে বন্দরের অবকাঠামোগত উন্নতি সাধিত হয়নি। যেমন নতুন জেটির অভাবে বাহিরে নোঙর থেকে পণ্যবাহী বৃহৎ জাহাজ থেকে পণ্য খালাস করে তা লাইটারেজের মাধ্যমে বিভিন্ন জেটি বা ঘাটে খালাস করা হয়। বর্তমানে জেটি সুবিধার অভাবে লাইটারেজ জাহাজ গুলোকে পণ্য নিয়ে দীর্ঘ সময় সাগরে অথবা নদীতে ভাসতে হয়। ফলে মাদার ভ্যাসেল বন্দরে অবস্থানের সময় দীর্ঘায়িত হচ্ছে। এতে আমদানীকারকদের যে বিপুল ব্যয় বহন করতে হয় প্রকারান্তরে তা তারা সাধারণ ভোক্তা শ্রেণীর উপর চাপিয়ে দেয়া হচ্ছে। এ পরিস্থিতিতে এক দিকে বিভিন্ন পণ্যের যেমন দাম বৃদ্ধি প্রাপ্ত হচ্ছে তেমনি দেশের বিপুল বৈদেশিক মুদ্রাও ব্যয়িত হচ্ছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ