ঢাকা, শুক্রবার 9 December 2016 ২৫ অগ্রহায়ন ১৪২৩, ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

চাপকে জয় করতে চায় ঢাকা-নাসির

স্পোর্টস রিপোর্টার : ফাইনাল ম্যাচে রাজশাহীর বিপক্ষে চাপমুক্ত হয়ে খেলতে চায় ঢাকা ডাইনামাইটস।  এমনটাই জানালেন নাসির হোসেন।  টুর্নামেন্টে কাগজে-কলমে অনেক শক্তিশালী দল ঢাকা ডাইনামাইটস। তবে লিগ পর্বের দুটি ম্যাচেই রাজশাহীর কাছে হেরেছে ঢাকা ডায়নামাইটস।  তাই ফাইনাল ম্যাচে চাপে  থেকেই মাঠে নামতে হচ্ছে ঢাকাকে।  দলের প্রতিনিধি হয়ে আসা নাসির  হোসেন জানালেন চাপকে জয় করার কথা।  নাসির বলেন,‘অবশ্যই ফাইনাল ম্যাচ, বিগ ম্যাচ।  চাপ আমাদেরও থাকবে, ওদেরও থাকবে।  আমরা ওদের কাছে ২টা হেরেছি।  এটা এমন কোনও কিছুই না।  আমরা আমাদের মূল কাজের দিকেই মনোযোগী।  সেটা করতে পারলেই চাপকে জয় করা সম্ভব হবে।’ দর্শকদের নিয়ে নাসির বলেন, ‘সমর্থন বেশি পেলে চাপও কাজ করবে।  এটার ইতিবাচক দিক আছে নেতিবাচক দিকও আছে।  সব যদি ঢাকার সাপোর্টার হয় তাহলে চাপও কাজ করবে।’রাজশাহী দল নিয়ে নাসির বলেন,‘আসলে কাগজে-কলমে বলে কথা না।  আমাদেরকে মাঠে খেলতে হবে।  এটা হচ্ছে গুরুত্বপূর্ণ।  রাজশাহী খারাপ দল নয়।  ভালো দল বলেই ফাইনালে উঠেছে।  আমার মনে হয় ফাইনালে যারা কম ভুল করবে তাদের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার সুযোগ বেশি থাকবে।’ নিজের ব্যাটিং নিয়ে নাসির বলেন, ‘আমাদের দলে অলরাউন্ডার অনেকগুলো, তাই বোলিং সেভাবে করা হচ্ছে না।  আর ব্যাটিংয়ে আমি যেটাই করেছি এর থেকেও ভালো করার সুযোগ ছিল।  আমার নিজেরও মনে হয়, খুব ভালো একটা ব্যাটিং করতে পারিনি।’ রাজশাহীকে ফাইনালে তুলে এনেছেন ড্যারেন স্যামি।  চিটাগং ভাইকিংসের বিপক্ষে এলিমিনেটর ম্যাচে অধিনায়কোচিত এক ইনিংস খেলে দলকে দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে তোলেন তিনি।  সেই স্যামিকে হুমকি মনে করছেন কিনা জানতে চাইলে নাসির বলেন, ‘স্যামির মতো আমাদেরও অনেক খেলোয়াড় আছে ম্যাচ জেতানোর মতো।  আমরা এসব নিয়ে ভাবছি না।’ কুমার সাঙ্গাকারা, আন্দ্রে রাসেল, ডোয়াইন ব্রাভো, সাকিব আল হাসান, মোসাদ্দেক  হোসেন, নাসির হোসেন, এভিন লুইসের মতো বিধ্বংসী ক্রিকেটার থাকার পরও নাসির মনে করেন ভিন্ন কিছু।  আর সেটা হলো, ‘আমাদের দলের ১১ জনই মূল ক্রিকেটার।  আমাদের দলে এমন কোনও ক্রিকেটার নেই যে একা ম্যাচ  জেতাবে।  দল জেতাতে হলে সবারই কিছু না কিছু করতে হয়।  আমাদের দলের ১১ জনই মূল ক্রিকেটার।  আমাদের দলটা অলরাউন্ডার ভিত্তিতে গড়া।  প্লাস পয়েন্ট হচ্ছে আমাদের দলে অলরাউন্ডার বেশি, বোলিং পরিবর্তন করার অপশনও বেশি।  তবে ওদের শক্তিশালী দিক আমি জানি না।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ