ঢাকা, শুক্রবার 9 December 2016 ২৫ অগ্রহায়ন ১৪২৩, ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

জেলা প্রশাসকের নির্দেশ মানা হচ্ছে না

জগন্নাথপুর সংবাদদাতা: জগন্নাথপুরে সরকারি খাল ভরাট করে রাস্তা নির্মাণ না করতে সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসকের নির্দেশ এখনো বাস্তবায়ন হচ্ছে না। 

এ নিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, জগন্নাথপুর পৌর এলাকার হবিবপুর গ্রামের বাসিন্দা যুক্তরাজ্য প্রবাসী হাছন রাজা চৌধুরী মধু মিয়ার বাড়িতে তাদের নিজ মালিকানা প্রায় দুই একর জায়গা ছিল। এর মধ্যে তাদের পারিবারিক বিরোধের কারণে বাড়ির খাল রকম প্রায় এক একর জমি সরকারি খাস খতিয়ানে চলে যায়। পরে তাদের বাড়ির খালের উপর কু-দৃষ্টি পড়ে হবিবপুর গ্রামের একটি মহলের। হবিবপুর মৌজার জেএল নং ৪৫ এর সরকারি খাল ভরাট করে স্থানীয় দলুয়ার হাওরের রাস্তা নির্মাণের অজুহাতে জবর দখল করতে চায় ওই মহল। 

এতে বাধা দেন হাছন রাজা চৌধুরীর পরিবারের লোকজন। কারণ এখানে রাস্তা হলে হেমন্ত মৌসুমে আশপাশের বাড়িগুলোর পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা বন্ধ হয়ে যাবে এবং বর্ষা মৌসুমে বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে যাবে। খালে রাস্তা করা ও না করা নিয়ে তাদের মধ্যে দীর্ঘদিন বিরোধ চলে আসছে। গত বছর গ্রামের ওই মহলের ইন্ধনে জগন্নাথপুর পৌরসভার উদ্যোগে এ খালে রাস্তা নির্মাণের জন্য মাটি ভরাটের কাজ শুরু হলে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। এ সময় ক্ষতিগ্রস্ত হাছন রাজা চৌধুরী এ খালে রাস্তা নির্মাণ না করতে সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক বরাবরে লিখিত আবেদন করেন। এ আবেদনের আলোকে জেলা প্রশাসক সরকারি খালে রাস্তা নির্মাণ না করেত আদেশ দেন। এ আদেশের কপি জগন্নাথপুর উপজেলা ভূমি অফিসে আসলেও এখন পর্যন্ত কার্যকর কোন ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না বলে হাছন রাজা চৌধুরী জানান। এ ব্যাপারে জগন্নাথপুর পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত মেয়র শফিকুল হক বলেন, কিসের ভিত্তিতে পৌরসভা এ খালে মাটি ভরাট করেছিল, তা আমার জানা নেই। জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও দায়িত্বপ্রাপ্ত উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মদ মাসুম বিল্লাহ জানান, বিষয়টি আমার জানা নেই। তবে খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ