ঢাকা, বুধবার 21 November 2018, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

স্ত্রীকে হত্যা করে প্রেমিকার সঙ্গে রাত কাটালেন ডাক্তার

অনলাইন ডেস্ক: প্রথমে স্ত্রীকে খুন করেছিলেন শরীরে ইনসুলিন ইনজেকশন দিয়ে। এর পর বাকি রাত কাটিয়েছিলেন প্রেমিকার সঙ্গে। নির্মম এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তি একজন চিকিৎসক।

অস্ট্রেলিয়ার সিডনি শহরের বাসিন্দা  ওই চিকিৎসকের নাম ব্রায়ান ক্রিকিট (৬৩)।  তিনি স্ত্রী ক্রিস্টিন ক্রিকিটের (৬১) শরীরে ইনজেকশনের মাধ্যমে মাত্রাতিরিক্ত ইনসুলিন প্রবেশ করান। এর ফলে মারা যান ক্রিস্টিন। এর পর তিনি বাকি রাত কাটান প্রেমিকা লিন্ডা লিভমোরের সঙ্গে।

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার নিউসাউথ ওয়েলসের সুপ্রিম কোর্টে বিষয়টি প্রমাণিত হয়েছে। 

এ বিষয়ে আইনজীবীরা জানিয়েছেন, স্ত্রীর জীবনবিমার অর্থ পাওয়া ও প্রেমিকার সঙ্গে সম্পর্ক চালিয়ে যাওয়ার জন্যই খুনের আশ্রয় নিয়েছিলেন  ক্রিকিট।

আদালতে এক শুনানিতে বলা হয়, ২০০৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর অথবা পরের দিন ক্রিস্টিনার শরীরের নিম্নাংশে ইনসুলিন ইনজেকশন দেওয়া হয়। ব্রায়ান তাঁর এক রোগীকে দেওয়া প্রেসক্রিপশন দেখিয়ে ওই ইনসুলিন কিনেছিলেন।

শুনানিতে আরো বলা হয়, স্ত্রীকে হত্যার মাত্র দুই দিন আগে ইন্টারনেটে ‘ইচ্ছেকৃতভাবে অতিরিক্ত মাত্রায় ইনসুলিন’ নেওয়ার  প্রভাব বিষয়ে খোঁজ করেছিলেন  ব্রায়ান।

শুনানির সময় আদালত বলেন, স্ত্রীর প্রতি ক্রমবর্ধমান অসন্তোষ ও প্রেমিকা লিভমোরের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা ক্রিকিটকে এই হত্যায় তাড়িত করেছে। ইন্টারনেটে ক্রিকিটের ইনসুলিন বিষয়ে খোঁজ করা এটাই প্রমাণ করে যে, তিনি তাঁর স্ত্রীকে হত্যার পরিকল্পনা করেছিলেন।

হত্যা মামলায় আগামী বছর ক্রিকিটকে সাজা দেবেন আদালত।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ