ঢাকা, রোববার 11 December 2016 ২৭ অগ্রহায়ন ১৪২৩, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

রাজশাহীতে প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণের পর হত্যা

রাজশাহী অফিস : রাজশাহী নগরীর চন্ডিপুর এলাকায় এক মানসিক প্রতিবন্ধী কিশোরী খুন হয়েছে। নিহত ওই কিশোরীর নাম এ্যানি খাতুন (১১)। সে একই এলাকার রতন আলীর মেয়ে। নিখোঁজের দুই দিন পরে ওই কিশোরীর লাশ বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে চন্ডিপুরের একটি পরিত্যক্ত জমির জঙ্গলের মধ্যে থেকে উদ্ধার করা হয়।
প্রথমে ওই কিশোরীর লাশ পড়ে থাকতে দেখে এলাকাবাসী পুলিশকে খবর দেয়। এরপর রাজপাড়া থানা পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়। পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়, নিহত ওই কিশোরীকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে। সে গত মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর থেকে নিখোঁজ ছিল। পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, গত মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর থেকে এ্যানি খাতুন নিখোঁজ ছিল। এরপর থেকেই পরিবারের সদস্যরা এ্যানির খোঁজ-খবর করছিলেন। কিন্তু কোথাও তার সন্ধান পাওয়া যাচ্ছিল না। এ অবস্থায় গত বৃহস্পতিবার পরিবারের লোকজন এ্যানির সন্ধান চেয়ে এলাকায় মাইকিং-এর ব্যবস্থাও করেন। এরই মধ্যে দুপুর ১২টার দিকে বাড়ি থেকে একটু দূরে প্রাচীর দিয়ে ঘেরা একটি পরিত্যক্ত জঙ্গলের মধ্যে এ্যানির লাশ পড়ে থাকতে দেখেন এলাকাবাসী। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ওই জমিটির চারিদিকে প্রায় ৬ ফুট উচ্চতার প্রাচীর দেয়া আছে। প্রাচীরের এক পাশে দরজায় তালাবদ্ধ করা আছে। এর ভিতরে এ্যানিকে ধরে নিয়ে ধর্ষণের পর হত্যা করা হতে পারে বলেও ধারণা করছেন এলাকাবাসী।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ