ঢাকা, সোমবার 12 December 2016 ২৮ অগ্রহায়ন ১৪২৩, ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

তুরস্কে রাজধানীতে জোড়া বোমা হামলায় নিহত ৩৮ আহত দেড়শ’

১১ ডিসেম্বর, বিবিসি/আনাদোলু এজেন্সি : তুরস্কের সবচেয়ে বড় শহর ইস্তাম্বুলের প্রাণকেন্দ্রে একটি স্টেডিয়ামের কাছে জোড়া বিস্ফোরণে অন্তত ৩৮ জন নিহত হয়েছে, আহত হয়েছে দেড় শতাধিক।
বিবিসি জানিয়েছে, দুটি বিস্ফোরণের মধ্যে একটি গাড়ি বোমা ও অন্যটি আত্মঘাতী বোমা হামলা বলে ধারণা করা হচ্ছে। তুরস্কের কর্মকর্তারা বলছেন, এই হামলার লক্ষ্য ছিলেন পুলিশ কর্মকর্তারা। প্রাণহানীর ঘটনায় একদিনের রাষ্ট্রীয় শোক পালন করবে তুরস্ক। প্রধানমন্ত্রী এই শোক ঘোষণা করেন।
স্থানীয় সময় শনিবার রাতে বেসিকতাস স্টেডিয়ামে একটি ম্যাচ শেষে দর্শকরা চলে যাওয়ার দুই ঘণ্টা পর ওই বিস্ফোরণ ঘটে। সে সময় গুলির শব্দ পাওয়ার কথাও কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শী বলেছেন। সন্দেহভাজন হিসেবে পুলিশ দশজনকে গ্রেপ্তার করেছে।
 কোনো পক্ষ ইস্তাম্বুলে এই হামলার দায় স্বীকার করেনি। তবে চলতি বছর কুর্দি বিদ্রোহী ও ইসলামিক স্টেট তুরস্কে বেশ কয়েকটি বড় ধরনের বোমা হামলা চালিয়েছে।  
তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব  তৈয়ব এরদোগান শনিবারের ঘটনাকে ‘নিরাপত্তা বাহিনী ও জনগণের’ ওপর ‘সন্ত্রাসী হামলা’ হিসেবে বর্ণনা করেছেন। তিনি বলেছেন, বেসিকতাস ওবুরসাসপোরের মধ্যে ফুটবল ম্যাচের পরপর এই হামলা চালানোর অর্থ হল, যত বেশি সম্ভব মানুষকে হত্যার উদ্দেশ্য ছিল হামলাকারীদের।
খবরে বলা হয়, গত শনিবার রাতে বেসিকটাস স্টেডিয়ামের কাছে পুলিশ সদস্যদের বহনকারী গাড়ি লক্ষ্য করে এ জোড়া বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। বিস্ফোরণের পর এরিনা মাঠ সংলগ্ন সব রাস্তা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।
ইস্তানবুলে পুলিশের গাড়ি লক্ষ্য করে চালানো ঐ জোড়া বিস্ফোরণের একটি ছিল আত্মঘাতী বোমা হামলা। অপর হামলাটি পরিচালিত হয়েছে গাড়িবোমা দিয়ে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে তুরস্কের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা আনাদুলু পোস্ট এইসব কথা জানিয়েছে।
হামলায় বহু প্রাণহানির আশঙ্কা জানিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো। স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে এরইমধ্যে ৩৮ জনের প্রাণহানির কথা জানিয়েছে তারা। নিরাপত্তা সূত্রের বরাত দিয়ে ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স-এর খবরেও ৩৮ জনের প্রাণহানির কথা বলা হয়েছে। তবে কোনও আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম এ পর্যন্ত নিহতের সংখ্যা নিশ্চিত করেনি।
তুরস্কের কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে হামলায় ২০ পুলিশ কর্মকর্তার আহত হওয়ার কথা জানিয়েছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্ট। পুলিশ সদস্যদের বহনকারী গাড়ি আঙ্কারা থেকে ইস্তানবুল যাওয়ার পথে ওই জোড়া বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। স্বরাষ্টমন্ত্রী সোলায়মান সয়লুকে উদ্ধৃত করে এসব কথা জানিয়েছে ওয়াশিংটন পোস্ট। আ্যলজাজিরা এবং গার্ডিয়ানও ২০ জন আহত হওয়ার কথা জানিয়েছে। অপরাপর সংবাদমাধ্যমগুলো স্থানীয় সূত্রের বরাত দিয়ে দেড়শতাধিক আহত হওয়ার খবর দিয়েছে।
তবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়কে উদ্ধৃত করে তুরস্কের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা আনাদুলু এজেন্সি বলছে, ওই ঘটনায় ২০ জন পুলিশ কর্মকর্তা আহত হয়েছেন। স্বরাষ্টমন্ত্রী সোলায়মান সয়লু সাংবাদিকদের কাছে বলেন, 'আশা করছি কেউ প্রাণ হারাবে না।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ