ঢাকা, মঙ্গলবার 13 December 2016 ২৯ অগ্রহায়ন ১৪২৩, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

সিজারিয়ান শিশু

বর্তমানে সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে ডেলিভারি করানোর হার বৃদ্ধি পেয়েছে। এ কথা অনস্বীকার্য, কতিপয় ক্ষেত্রে সি-সেকশন প্রসূতি ও সন্তানের জীবন রক্ষায় উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করে। এর ব্যবহার বিশ্বজুড়ে প্রায় রুটিন হয়ে উঠেছে। শিশু জন্মদানের তিন পদ্ধতি অনুসৃত হয়ে থাকে-
* নরমাল
* অ্যাসিসট্যাড নরমাল, যেমন ফরসেপ
* সিজারিয়ান
নরমাল ডেলিভারি বনাম সিজারিয়ান জন্মের পর্যবেক্ষণলব্ধ ফলাফল:
* সফলভাবে বুকের দুধ খাওয়ানোর সংগঠনগুলোর গবেষণায় জানা গেছে- নরমাল জরায়ুমুখ প্রসবের তুলনায় সিজারিয়ান শিশুর মাতৃদুগ্ধ পান শুরু বেশি সমস্যাঘন থাকে।
* সিজারিয়ান অপারেশনে মাকে অস্ত্রোপচারের জন্য যেসব অ্যানেসথেটিক ওষুধ প্রয়োগ করা হয়, তা নবজাতকের উপর প্রভাব ফেলতে পারে। সফল বুকের দুধ পানে বাধা হয়ে উঠতে পারে।
* সি-সেকশনে জন্ম নেয়া শিশুর হাসপাতালে থাকার সময়কাল বেশি বলে এসব শিশু ইনফেকশন ঝুঁকিতে থাকে।
* সিজারিয়ান শিশুর ব্লাড ইনফেকশন হার বেশি। জন্ডিস দেখা দেওয়ার আশংকা থাকে। ফরসেপের তুলনায় মাথায় আঘাতের আশংকা ৬০ শতাংশ কম কিন্তু সিজারিয়ান শিশুর ইনটেনসিভ কেয়ার পরিচর্যার সংখ্যা ফরসেপের তুলনায় ২ দশমিক ৬ গুণ বেশি।
* ২৫ শতাংশ সি-সেকশনে সময়ের দুই-তিন সপ্তাহ আগে সন্তান জন্মদান হয়ে যায়। শিশু ইনফেকশনে পড়ার এটিও বিশেষ কারণ হয়ে থাকতে পারে।
* নরমাল ভ্যাজাইনাল ডেলিভারিতে শিশু মা থেকে কিছু অণুজীবাণু পেয়ে থাকে, তা তার রোগ প্রতিরোধ সিস্টেম গঠনে সুফল এনে দেয়। অন্যদিকে সি-সেকশনে জন্ম নেওয়া শিশু অণুজীবাণু পায় হাসপাতালের পরিবেশ থেকে, যা অত্যন্ত ভয়ংকর জীবাণু। তার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা খর্ব হয়।
* মিউনিখ, জার্মানিতে ৮৬৫ জন শিশু, যারা প্রথম চার মাস শুধু বুকের দুধে নির্ভরশীল ছিল, পরবর্তী সময়ে ১২ মাস বয়সে এসে দেখা যায় সি-সেকশনে জন্ম নেয়া শিশুর ক্ষেত্রে ডায়রিয়া হওয়ার ৪৬ গুণ বেশি ঝুঁকি মিলছে।
* কিডস অ্যালার্জি রিস্ক ডাটা দেখাচ্ছে সি-সেকশনে জন্ম নেয়া শিশুতে অ্যালার্জির প্রবণতা বেশি। গরুর দুধে অ্যালার্জি প্রায় দুই গুণ বেশি।
* ২০০১ সালে প্রকাশিত জার্নাল অব অ্যালার্জি অ্যান্ড ক্লিনিক্যাল ইমিউনোলজি দেখাচ্ছে, সিজারিয়ান বাচ্চাদের মধ্যে অ্যাজমার প্রবণতা বেশি থাকে। এই গবেষণা হয়েছে ফিনল্যান্ডে।
* শিকাগোর ডা. এলিউট এম লেভিন ও সহযোগী গবেষকদের মতে, সি-সেকশনে জন্ম নেয়া শিশুদের প্রাইমারি পালমোনারি উচ্চ রক্তচাপ পাঁচ গুণ বেশি। প্রতি হাজারে প্রায় চারজনে ঘটে। নরমাল ডেলিভারির প্রতি ১০০০ শিশুতে এই হার ০.৮।
* নিউরোসায়েন্সের বিজ্ঞানীরা ইঁদুরের ওপর গবেষণা করে পেয়েছেন, সি-সেকশনে জন্ম নেয়া শিশু পরবর্তী সময়ে সিজোফ্রেনিয়ার মতো গুরুতর মানসিক রোগে ভোগার ঝুঁকিতে থাকে বেশি।
* যেসব মা সিজারিয়ান অপারেশনে বাচ্চা জন্মদানে বেশি আগ্রহী থাকেন, সেসব নবজাতকের ক্ষেত্রে প্রথম ২৮ দিনে মৃত্যুহার তিন গুণ বেশি থাকে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ