ঢাকা, মঙ্গলবার 13 December 2016 ২৯ অগ্রহায়ন ১৪২৩, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

তরুণ সমাজকে বই পড়ায় ব্রতী হতে হবে

চট্টগ্রাম : ৮ দিনব্যাপী বই মেলার উদ্বোধন করছেন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা অর্থনীতিবিদ ড. হোসেন জিল্লুর রহমান

চট্টগ্রাম অফিস : তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ও অর্থনীতিবিদ ড. হোসেন জিল্লুর রহমান বলেন, প্রত্যেকটি দেশের স্বাধীনতার আকাক্সক্ষা হচ্ছে মানবজাতির উন্নতি সাধন। আমরা স্বাধীনতা অর্জন করেছি, তার মধ্যে অনেক আশা আকাক্সক্ষা ছিল। তৎমধ্যে অন্যতম দেশ জাতির উন্নতি সাধন। জাতির উন্নতিতে জ্ঞানের গুরুত্ব অপরিসীম। তাই অবশ্যই জ্ঞান অর্জন করতে হবে। জ্ঞান অর্জনের প্রধান মাধ্যম বই। সার্বিক অর্থে জ্ঞান অর্জন মানেই নৈতিকতার উৎকর্ষ সাধন।
তিনি বলেন, জ্ঞানের বার্তা সর্বস্তরের মাঝে ছড়িয়ে দিতে বই মেলা আয়োজন করায় আনজুমানে খোদ্দামুল মুসলেমীনকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আমি নতুন প্রজন্মকে অনুরোধ করব বেশি বেশি বই পড়ার জন্য। স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন আনজুমানে খোদ্দামুল মুসলেমীন ট্রাস্টের উদ্যোগে পবিত্র ঈদে-মিলাদুন্নবী (দ.) ও মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে গত ১০ ডিসেম্বর শনিবার বিকালে ৮ দিনব্যাপী বইমেলা ও চিত্রপ্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. হোসেন জিল্লুর রহমান এ কথা বলেন। ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান সাহাবুদ্দীন চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রথম দিনের বই মেলার আলোচনা সভায় প্রধান আলোচক ছিলেন ড. কামাল উদ্দিন আজহারী। তিনি বলেন, ইসলাম ধর্মের মহাগ্রন্থ আল কোরআনে আল্লাহ তাআলা জ্ঞান অর্জনে গুরুত্বারোপ করে নির্দেশ দিয়েছেন, “পড় তোমার প্রতি পালকের নামে”। এভাবে  ইসলাম ধর্মের সাথে সাথে প্রতিটি ধর্মে ও সভ্য সমাজে জ্ঞান অর্জনে গুরুত্বারোপ করা হয়েছে। তিনি বলেন, বিশ্বনবী (দ.) এর আগমনের মাস পবিত্র রবিউল আউয়াল ও মহান মুক্তিযুদ্ধের বিজয়ের মাস ডিসেম্বরে বই মেলার আয়োজন সত্যি প্রশংসনীয়। আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন মেলা প্রস্তুতি কমিটির সদস্য সচিব স উ ম আব্দুচ সামাদ। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য এম এ মতিন, চিটাগাং চেম্বার অব কমার্সের সাবেক পরিচালক মুহাম্মদ আলমগীর পারভেজ, সাংবাদিক স ম ইব্রাহিম, অধ্যক্ষ আবু তালেব বেলাল, অধ্যক্ষ বদিউল আলম রেজভী, অধ্যক্ষ হারুনুর রশিদ, সংগঠক ছাদেকুর রহমান খান।
আর টিভি সাংবাদিক ইয়াছিন রানা সোহেলের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন নুরুল ইসলাম জিহাদী, নাঈমুল ইসলাম পুতুল, নাছির উদ্দিন মাহমুদ, ইকবাল হোসেন আলকাদেরী, মাস্টার আবুল হোসাইন, এনামুল হক ছিদ্দিকী, আবু তৈয়ব চৌধুরী, মাওলানা আশরাফ হোসেন, সৈয়দ মুহাম্মদ আবু আজম, মুহাম্মদ আলগীর হোসেন, জিএম শাহাদত হোসাইন মানিক, এইচ.এম. শহিদুল্লাহ, নুরুল্লাহ রায়হান খান, ইসতিয়াক রেজা, শাহাজাদা নিজামুল করিম সুজন, সৈয়দ মুহাম্মদ খোবাইব, মুহাম্মদ ফরিদুল ইসলাম, সরওয়ার উদ্দিন চৌধুরী, রিয়াজ হোসাইন, আব্দুল কাদের রুবেল, মুহাম্মদ সাহাবুদ্দীন প্রমুখ। 
উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে অতিথিবৃন্দ ইসলামের ইতিহাস, ঐতিহ্য ও মহান মুক্তিযুদ্ধের দুর্লভ চিত্র প্রদর্শনী ও বই মেলার বিভিন্ন স্টল পরিদর্শন করেন। মেলায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশনায় ছিলেন মাছুমুর রশিদ কাদেরী, রেজাউল মোস্তফা কায়সার, মিফতাহুল ইসলাম, হানিফ মান্নান, রাকিবুল ইসলাম, আসরার তানজিম প্রমুখ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ