ঢাকা, শনিবার 17 December 2016 ৩ পৌষ ১৪২৩, ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

চকরিয়ার মালুমঘাটে সড়ক দুর্ঘটনায় কলেজ ছাত্র ও দুই নারীসহ নিহত ৫॥ আহত ৬

চকরিয়া সংবাদদাতা : চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের চকরিয়ায় যাত্রীবাহী বাস ও ছারপোকা গাড়ির মুখোমুখি সংঘর্ষে এক কলেজ ছাত্র ও দুই নারীসহ ৫জন নিহত হয়েছেন। এতে গুরুতর আহত হয়েছেন আরো অন্তত ৬ যাত্রী। আহতদের চমেক, মালুমঘাট মেমোরিয়াল খ্রিস্টান হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার দুপুর ১টার দিকে চকরিয়া উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের সেনা ক্যাম্পের অদূরে সেগুনবাগানস্থ মইগ্যামারছড়া এলাকায় মর্মান্তিক এ দুর্ঘটনা ঘটে। হতাহতরা সবাই ছারপোকা (মাহিন্দ্র) গাড়ির যাত্রী ছিলেন।
প্রত্যক্ষদর্শী ও মালুমঘাট হাইওয়ে পুলিশ সূত্রে জানা যায়, চট্টগ্রাম থেকে কক্সবাজারগামী সৌদিয়া পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী (ঢাকা মেট্রো-ব ১৪-০৬১৬) বাস মহাসড়কের ফাঁসিয়াখালীর সেগুনবাগান এলাকার বাঁকে পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা চকরিয়া পৌরশহর চিরিঙ্গাগামী যাত্রীবাহী ছারপোকা (মাহিন্দ্র) মুখোমুখি সংঘর্ষে পতিত হয়। এতে যাত্রীবাহী ছারপোকা গাড়িটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। এসময় ঘটনাস্থলেই চকরিয়া পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ড ভাঙ্গারমুখ নিবাসী মগবাজার উম্মেহাতুল মো’মেনীন মহিলা মাদরাসার শিক্ষক মো. ইলিয়াছের ছেলে চকরিয়া সিটি কলেজের ২য় বর্ষের ছাত্র আলী রিয়াজ মো. আবু রায়হান (২৪) ও মহেশখালী কুতুবজোম ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা কালু সওদাগর (৫০) প্রাণ হারায়। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে পার্শ্ববর্তী মালুমঘাট মেমোরিয়াল খ্রিস্টান হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে নিহত কালু সওদাগরের মেয়ে রিনা আক্তার (১৪) ও কালু সওদাগরের বিয়াইন জবুর আহমদের স্ত্রী কালা খাতুন (৩৫) মারা যায়। অপরজন চটট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট সূত্র।
আহতরা হলেন চকরিয়াপৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের কাহারিয়াঘোনা খামারপাড়ার আবুল হাসেমের ছেলে নজরুল ইসলাম (২৪), লামা ফাঁসিয়াখালী হারগাজা এলাকার আনোয়ার হোসেনের ছেলে হেফাজ উদ্দিন (১২), পূর্ববড় ভেওলা ইউনিয়নের নুরুল আলমের মেয়ে জয়বুন নেছা (১৯), খুটাখালী ইউনিয়নের মেদাকচ্ছপিয়ার মৃত গোলাম আলীর ছেলে ছারপোকা গাড়ির চালক বদিউল আলম (৪৫), ছাবেকুন্নাহার ও শাকেরা আক্তার।
এদিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জাফর আলম বি.এ (অনার্স) এম.এ ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ সাহেদুল ইসলাম।
মালুমঘাট হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ সার্জেন্ট মোহাম্মদ আশিকুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, জুমার নামায চলাকালে সৌদিয়া ও ছারপোকা যাত্রীবাহী দুই গাড়ির মুখোমুখি সংঘর্ষ হলে ঘটনাস্থলে দু’জন এবং হাসপাতালে নেয়ার পর গুরুতর আহতদের মধ্য থেকে আরো ২জন মারা যায়। তারা দু’জনই নারী যাত্রী। অন্যান্য আহতদের চমেকসহ বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। দুর্ঘটনা কবলিত গাড়ি দুটি জব্দ করা হয়েছে বলেন তিনি জানান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ