ঢাকা, শনিবার 17 December 2016 ৩ পৌষ ১৪২৩, ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

খাগড়াছড়িতে বেলুন গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে দুই পুলিশসহ আহত ৬

খাগড়াছড়ি সংবাদদাতা : খাগড়াছড়ির স্টেডিয়াম গেইট এলাকায় বেলুনে ব্যবহার্য গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে দুই পুলিশ সদস্যসহ ছয়জন আহত হয়েছেন।
শুক্রবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে বিজয় দিবস অনুষ্ঠানের সময় এ মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত দুই পুলিশ সদস্যকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (চমেক) প্রেরণ করা হয়েছে।
ঘটনার খবর পেয়ে সেনাবাহিনী ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আহতদের উদ্ধার করে খাগড়াছড়ি আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।
আহতরা হলেন- পুলিশ সদস্য শাহিন (৩২), ইসমাইল (২৮), খবংপড়িয়া এলাকার যতন কুমার চাকমার ছেলে প্রাণ জ্যোতি চাকমা (৫৫), শালবন এলাকার মো. পারভেজের ছেলে তামীম (২২), আনন্দ নগর এলাকার দিলীপ ঘোষের স্ত্রী গ্যাস সিলিন্ডারের মালিক তুলশী রানী ঘোষ (৫৫) ও মাটিরাঙা ভূমি অফিসের কর্মচারী বীরেন্দ্র ত্রিপুরা (৪৫)।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, বিজয় দিবস উপলক্ষে স্টেডিয়াম গেইট এলাকায় গ্যাস সিলিন্ডার নিয়ে বেলুন বিক্রয়ের প্রস্তুতিকালে সকাল সাড়ে ৬টার দিকে বিকট শব্দে সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হয়। বিস্ফোরণ এলাকায় নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত ২ জন পুলিশ সদস্য, ১ জন শিশুসহ ৬ জন আহত হয়। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে প্রেরণ করলে দুই পুলিশ সদস্যের শারীরিক অবস্থা গুরুতর হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে রেফার করা হয়।
এদিকে, মর্মান্তিক এ ঘটনার খবর পেয়ে আহতদের দেখতে হাসপাতালে ছুটে যান খাগড়াছড়ির এমপি কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী, জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ ওয়াহিদুজ্জামান, পুলিশ সুপার মজিদ আলী (বিপিএম-সেবা) মেয়র রফিকুল আলম, জেলা পুলিশের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. রইছ উদ্দিনসহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ।
পুকুরে ডুবে এক শিশুর মৃত্যু
খাগড়াছড়ি সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের পুকুরে ডুবে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে।
বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টার দিকে খাগড়াছড়ি সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের অফিস সহকারী জহিরুল ইসলামের শিশু কন্যা প্রথম শ্রেণীতে পড়ুয়া হুমাইয়া আক্তার (৭) পুকুরের পানিতে ডুবে মৃত্যু ঘটে।
হুমাইয়ার বাবা জহিরুল ইসলাম জানান, তিনি অফিস সহকারীর চাকরির সুবাদে বিদ্যালয়ের কোয়ার্টারে পরিবার নিয়ে থাকেন। বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টা থেকে হুমাইয়াকে কোথাও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। অবশেষ রাত ৮টার দিকে বিদ্যালয়ের পুকুরে জাল ফেললে উঠে আসে হুমাইয়ার মৃত দেহ।
শিশুটি উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক শিশুটিকে মৃত ঘোষণা করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ