ঢাকা, রোববার 18 December 2016 ৪ পৌষ ১৪২৩, ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

দেশকে কল্যাণ রাষ্ট্রে পরিণত করার কোন বিকল্প নেই - নূরুল ইসলাম বুলবুল

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের আমীর নূরুল ইসলাম বুলবুল বলেছেন, জামায়াতে ইসলামী নিছক কোন রাজনৈতিক সংগঠন নয় বরং গণমানুষের জন্য কল্যাণকামী আদর্শবাদী সংগঠন। তাই জামায়াতে ইসলামী যেকোন প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও ক্রান্তিকালে দুর্গত মানুষের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে। গণমানুষের জন্য জামায়াতের এই কল্যাণকামীতা অতীতের মত আগামী দিনেও অব্যাহত থাকবে। তিনি ন্যায়-ইনসাফের সমাজ ও দেশকে কল্যাণ রাষ্ট্রে পরিণত করার আন্দোলনকে জোরদার করতে সকলের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন এর কোন বিকল্প নেই।
গতকাল শনিবার রাজধানীর কদমতলীতে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরীর কদমতলী পূর্ব থানা আয়োজিত দরিদ্র ও শীতার্ত মানুষের মধ্যে শীতবস্ত্র বিতরণকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। থানা আমীর মাওলানা আমিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় মজলিশে শুরা সদস্য ও ঢাকা মহানগরীর কর্মপরিষদ সদস্য আব্দুস সবুর ফকির ও ঢাকা মহানগরীর কর্মপরিষদ সদস্য এডভোকেট ড. হেলাল উদ্দীন, যাত্রাবাড়ী জোনের সহকারী পরিচালক আ জ ম রুহুল কুদ্দুস প্রমুখ।
নূরুল ইসলাম বুলবুল বলেন, নাগরিকের সকল সমস্যার সমাধানের দায়িত্ব রাষ্ট্রের। কিন্তু ক্ষমতা  কেন্দ্রীক অপরাজনীতির কারণেই দেশের মানুষ রাষ্ট্রের কল্যাণ থেকে অনেকটাই বঞ্চিত। ন্যায়-ইনসাফভিত্তিক কল্যাণরাষ্ট্র প্রতিষ্ঠিত না থাকায় গণদুর্ভোগ ও সমাজের সকল স্তরে দুর্ভোগ অশান্তির অন্যতম কারণ। তাই গণমানুষের সকল সমস্যার সমাধান ও শান্তির সমাজ প্রতিষ্ঠা করতে হলে দেশকে ইসলাম ভিত্তিক কল্যাণ রাষ্ট্রে পরিণত করার কোন বিকল্প নেই। তিনি শোষণ, বঞ্চনা ও দারিদ্রমুক্ত দেশ গড়তে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানান।
তিনি আরও বলেন, রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস ও  প্রতিবন্ধকতার কারণে আমরা বৃহৎ পরিসরে মানুষের কল্যাণে কাজ করতে পারছি না। তাই শীতবস্ত্র বিতরণের মত কাজ ও সীমিত পরিসরে চার দেয়ালের মধ্যেই আমাদেরকে  করতে হচ্ছে। এটা জাতির জন্য অত্যন্ত দুঃখজনক। রাষ্ট্রের ব্যর্থতা ব্যক্তি ও সাংগঠনিক পর্যায়ে সমাধান করা সম্ভব নয়। তবুও জামায়াতে ইসলামী সীমিত সামর্থ নিয়ে শীতার্থ ও দুর্গত মানুষের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে। আমাদের সাধ অনেক হলেও সামর্থ খুবই সীমিত। তবুও আমরা সীমিত সামর্থ নিয়েই সুখে-দুঃখে গণমানুষের সাথে ভাগীদার হওয়ার চেষ্টা করছি। যারা গণমানুষের কল্যাণে নিরলসভাবে কাজ করতেন সরকার প্রতিহিংসাবশত একের পর এক হত্যা করে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করছে। কথিত বিচারের নামে প্রহসন করে জামায়াতের শীর্ষনেতাদের হত্যা করা হচ্ছে। তিনি উপস্থিত সকলের কাছে আমীরে জামায়াতসহ শহীদ শীর্ষ নেতৃবৃন্দের জন্য দোয়া কামনা করেন।
উল্লেখ্য, প্রধান অতিথি দরিদ্র ও শীতার্ত মানুষের মধ্যে তিন শতাধিক কম্বল বিতরণ করেন। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ