ঢাকা, রোববার 18 December 2016 ৪ পৌষ ১৪২৩, ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

মুসলিম গণহত্যার অপরাধে আন্তর্জাতিক আদালতে সু চির বিচার করতে হবে -মাওলানা শাহ আতাউল্লাহ

বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন প্রধান আমীরে শরীয়ত মাওলানা শাহ আতাউল্লাহ ইবনে হাফেজ্জী হুজুর বাংলাদেশ সরকারকে  রোহিঙ্গা মুসলমানদের আশ্রয় দিয়ে তাদের সাথে মানবিক আচরণের আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, মুসলমানদের উপর মিয়ানমার  সেনাবাহিনীর বর্বর গণহত্যায় ধর্ম-বর্ণ নির্বিষেশে সকল মানুষ ক্ষুব্ধ। মানবাধিকারের জিগির তুলে যারা বিভিন্ন সময় মায়াকান্না করেছে  রোহিঙ্গা মুসলিম নিষ্পাপ নারী-শিশু, নিরীহ সাধারণ নাগরিকদের নৃসংশ গণহত্যার পরেও তাদের নিরব ভূমিকা রহস্যজনক। মুসলমানদের রক্ষায় মুসলিম নেতৃবৃন্দকেই এগিয়ে আসতে হবে। মুসলিম গণহত্যার অপরাধে আন্তর্জাতিক আদালতে সু চির বিচার করতে হবে।
তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের প্রতিবেশী রাষ্ট্র বার্মার মুসলমানদের রক্ষায় বাংলাদেশ সরকারের বলিষ্ঠ ভূমিকার অপেক্ষায় বিশ্ববাসী। মানবিক কারণেই  রোহিঙ্গা মুসলমানদের আশ্রয় দেয়া উচিত। তিনি বলেন, মুনতাসির মামুন ও শাহরিয়ার কবির  ইসলাম,স্বাধীনতা ও মানবতার দুশমন । স্বাধীনতা বিরোধীদের তালিকায় সর্বজন শ্রদ্ধেয় বুযুর্গ হাফেজ্জী হুজুরের নাম অন্তর্ভুক্ত করায় তাদেরকে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দিতে হবে।
গতকাল শনিবার বিকালে রাজধানী ঢাকার কামরাঙ্গীরচরে জামিয়া নুরিয়া মাদরাসার ব্যনারে আলেম-ওলামা, মাসজিদের ইমাম- খতিব ও তাওহিদি জনতার উদ্যোগে এক বিক্ষোভ মিছিল পুর্ব সমাবেসে তিনি এসব কথা বলেন। সভায় উপস্থিত ছিলেন, মাওলানা হাবিবুল¬াহ মিয়াজী, মাওলানা সানাউল্লাহ, মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী, মুফতি সুলতান মহিউদ্দিন, মাওলানা কামরুজ্জামান মাওলানা কামাল, মাওলানা ইব্রাহিম, মাওলানা ইদ্রিস, ও মুফতী আকরাম হুসাইন প্রমুখ।
সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন,  কোন অপরাধে ১০ মাসের শিশুসহ অসংখ্য নারী-পুরুষের লাশ নদীতে ভাসছে। কোন বিবেকবান মানুষ এমতাবস্থায় চুপ থাকতে পারেনা। তিনি মুসলমানদের রক্ষায় জাতিসংঘ, ওআইসি, ন্যাম, আসিয়ান ও সার্কসহ সকল আন্তর্জাতিক মহলকে কার্যকরী ভূমিকা রাখার আহবান জানান। প্রেসবিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ