ঢাকা, রোববার 25 December 2016 ১১ পৌষ ১৪২৩, ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

মহিলা সাফের সেমিতে খেলতে চায় বাংলাদেশ

স্পোর্টস রিপোর্টার : সাফ মহিলা ফুটবলের গ্রুপ পর্বের বাঁধা উতরে শেষ চারকেই লক্ষ্য মনে করছেন জাতীয় মহিলা দলের কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন। আর শেষ চারে জিতলে পরে ফাইনাল নিয়ে পরিকল্পনা করবেন তিনি। প্রাথমিকভাবে তার ছক সেমি ফাইনালকে ঘিরে। সোমবার টুর্নামেন্ট শুরুর দিনই ভারত যাবে বাংলাদেশ মহিলা ফুটবল দল। গতকাল শনিবার বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনে (বাফুফে) অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান ছোটন। ভারতের শিলিগুড়িতে শুরু হতে যাচ্ছে দক্ষিণ এশিয়ান মহিলা ফুটবলের সর্ববৃহৎ এ আসর। সাফ মহিলা ফুটবলে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি কেবল তৃতীয় স্থান। প্রথম ও তৃতীয় আসরের সেমি ফাইনাল খেলেছিল লাল-সবুজ জার্সীধারীরা। এবার বি- গ্রুপে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ টানা তিনবারের চ্যাম্পিয়ন ভারত ও আরেক শক্তিশালী দল আফগানিস্তান। এ দুই দলের মধ্যে ভারতকেই শক্ত প্রতিপক্ষ মানছেন বাংলাদেশ দলের কোচ ছোটন। তার কথায়, ‘ভারত ফুটবলে কতটা উন্নতি করেছে, সেটা আমরা সবাই জানি। আমরা নিজেদের সর্বোচ্চটা দিয়েই চেষ্টাই করব। সর্বশেষ এসএ গেমসে আমরা ভারতের কাছে হেরেছি। এবার আমার দল নিয়ে বেশ আতœবিশ্বাসী। আমরা চেষ্টা করব স্বাগতিকদের বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মক মেজাজের ফুটবল খেলতে। তাদের দলে অনেক অভিজ্ঞ খেলোয়াড় রয়েছে।’ প্রতিপক্ষ আফগানিস্তান নিয়ে ছোটনের অভিমত, ‘আফগানিস্তানরা জন্মগতভাবেই শক্তিশালী এবং ওদের উচ্চতা ভালো। সর্বশেষ এসএ গেমসে যুদ্ধ বিধ্বস্ত দেশটির বিরুদ্ধে আমরা লড়াই করেছিলাম। সেই অভিজ্ঞতা থেকে বলতে পারি আমার দল আফগানীস্তানের বিপক্ষে সমান তালেই লড়াই করবে।’ প্রস্তুতি নিয়ে ছোটনের কথা, ‘আমাদের প্রস্তুতি শুরু হয়েছে অনেক আগেই। সেপ্টেম্বরে অনূর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়নশিপে শিরোপা জেতার পর থেকেই অনুশীলনের মধ্যে রয়েছে মেয়েরা। আর নভেম্বরে এসে দলে যোগ দিয়েছে সিনিয়র দলের মেয়েরা। সাফে যাওয়া এই দলের মধ্যে ১৫ জন জাতীয় দলের। তবে দলের সঙ্গে যেতে পারছে না সুইনু মারমা ও তৃষ্ণা চাকমা। এরা গেলে দলটি আরও শক্তিশালী হতো।’ দলের অধিনায়ক সাবিনা খাতুনের খাতুন, ‘আমাদের গ্রুপে ভারত ও আফাগানিস্তান দু’টিই শক্তিশালী দল। তবে আমাদের প্রথম লক্ষ্য থাকবে প্রথম ম্যাচে আফগানিস্তানকে হারিয়ে সেমিফাইনালের পথ প্রশস্ত করা। সবসময় আমরা মাঠে নিজেদের শতভাগ দিতে চেষ্টা করবো। আমাদের এই দলটাও সিনিয়র-জুনিয়র মিলিয়ে ভালো এবং আশা করি, আমরা ভালো করব।’ অন্যদিকে এ- গ্রুপে রয়েছে নেপাল, শ্রীলংকা, মালদ্বীপ ও ভুটান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ