ঢাকা, সোমবার 26 December 2016 ১২ পৌষ ১৪২৩, ২৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

সরকার ভিন্নমতের মিডিয়াকে সহ্য করতে পারছে না

রাজশাহী : গতকাল রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সভায় বক্তব্য দিচ্ছেন বিএফইউজে’র মহাসচিব এম. আবদুল্লাহ -সংগ্রাম

রাজশাহী অফিস : রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়ন-আরইউজে’র দ্বি-বার্ষিক সাধারণ সভা গতকাল রোববার অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) মহাসচিব এম আব্দুল্লাহ বলেন, সরকার মিডিয়াকে নিজেদের গদি রক্ষার হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করতে চায়। সে জন্য ভিন্নমতের কোন মিডিয়া সহ্য করতে পারছে না তারা।
সকালে নগরীর সোনাদিঘি মোড়ে আরইউজে কার্যালয়ে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন, রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি সরদার আবদুর রহমান। পরিচালনা করেন, আরইউজে’র সাধারণ সম্পাদক মুহা: আব্দুল আউয়াল ও যুগ্ম সম্পাদক তৌফিক ইমাম পান্না। বিএফইউজে মহাসচিব এম আব্দুল্লাহ বলেন, সাধারণভাবে মিডিয়াকে সরকারের গুণগান গাইতে বাধ্য করা হচ্ছে। কেউ প্রকৃত সত্য প্রকাশ করতে পারছে না। অন্যদিকে সাংবাদিকরা নিরাপত্তাহীনতায় দিন কাটাচ্ছে। তিনি দিগন্ত টেলিভিশন, দৈনিক আমার দেশসহ সকল বন্ধ গণমাধ্যম অবিলম্বে খুলে দেয়ার জোর দাবি জানান। সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন বিএফইউজে’র সাংগঠনিক সম্পাদক মো. শহীদুল ইসলাম। তিনি সাংবাদিকদের প্রতি নৈতিক দৃঢ়তা ধরে রাখার এবং ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানান। সভায় সাধারণ সম্পাদকের দ্বি-বার্ষিক রিপোর্ট উপস্থাপন করেন আরইউজে’র সাধারণ সম্পাদক মুহা: আব্দুল আউয়াল। কোষাধ্যক্ষের রিপোর্ট উপস্থাপন করেন কোষাধ্যক্ষ মঈনউদ্দিন। পরে বিস্তারিত আলোচনা ও পর্যালোচনা শেষে সভায় সাধারণ সম্পাদক ও কোষাধ্যক্ষের রিপোর্ট অনুমোদন করা হয়। সভায় সাংগঠনিক বিভিন্ন বিষয়াদী নিয়ে আলোচনা ও কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন আরইউজে’র সাবেক সভাপতি নাজিব ওয়াদুদ, বর্তমান সহ-সভাপতি আব্দুস সবুর, সাংবাদিক সাদিকুল ইসলাম স্বপন, আবদুল আহাদ, মাইনুল ইসলাম, তাসলিমুল আলম তৌহিদ, কামরুজ্জামান বাদশা প্রমুখ।
স্কুলে নিয়োগ নিয়ে বিরোধ ॥ স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা আটক : রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে স্কুলে পিয়ন নিয়োগকে কেন্দ্র করে এক স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে পিস্তলের গুলী ছোড়ার অভিযোগে আটক করা হয়েছে। এই ঘটনায় আওয়ামী লীগের দু’টি গ্রুপের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে।
স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বাসুদেবপুর ইউনিয়নের অভয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে আবুল কাশেম নামে একজন পিয়ন নিয়োগকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দুটি গ্রুপের মধ্যে দ্বন্দ্ব বাধে। এর জের ধরে গত শুক্রবার দিবাগত রাত ৮টার দিকে উপজেলার কামারপাড়া মোড়ে আ’লীগ নেতা আহাদ আলীর গ্রুপের সঙ্গে ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি আব্দুল হক বাবুর গ্রুপের বাক বিতন্ডা ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়। এক পর্যায়ে বাবু গ্রুপ থেকে পিস্তলের কয়েক রাউন্ড গুলী ছোঁড়া হয়। কিন্তু ফাঁকা জায়গায় গুলী হওয়ায় হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। এই নিয়ে আ’লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে চরম উত্তেজনা দেখা দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে এবং স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা আব্দুল হক বাবুকে আটক করে। এ ব্যাপারে আ’লীগ নেতা আহাদ আলী গ্রুপের সদস্য ও বাসুদেবপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক আহাসানুর রহমান আসিফ বাদী হয়ে গোদাগাড়ী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ে করে। মামালর আসামী করা হয় স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা আব্দুল হক বাবুকে। এ প্রসঙ্গে গোদাগাড়ী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হিপজুর আলম মুন্সি জানান, মারামারির অভিযোগের প্রেক্ষিতে আব্দুল হক বাবুকে আটক করে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। তবে পিস্তলের গুলী ছোড়ার ঘটনাটি পুলিশ তদন্ত করে দেখছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ