ঢাকা, সোমবার 26 December 2016 ১২ পৌষ ১৪২৩, ২৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

চট্টগ্রামে বড়দিন থার্টি ফার্স্ট নাইটে নিরাপত্তা জোরদার

চট্টগ্রাম অফিস : থার্টি ফার্স্ট নাইটে চট্টগ্রামে সবচেয়ে বড় আয়োজন হয় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) ও চট্টগ্রাম বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট)। আমরা এ দুটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যাতে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে সেদিকে বিশেষ নজর রাখবো। শুক্রবার সকালে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে বড়দিন ও থার্টি ফাস্ট নাইট উপলক্ষে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় ও বিশেষ আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত সভায় এ কথা বলেন জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রেজাউল মাসুদ।
তিনি বলেন, থার্টি ফাস্ট নাইটে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) এবং চট্টগ্রাম বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) দিকে বিশেষ নজর রাখবে জেলা পুলিশ। কারণ পুলিশের দাবি বছরের শেষদিনের এই অনুষ্ঠান চট্টগ্রামের এই দুটি উচ্চ বিদ্যাপীঠেই সবচেয়ে বড় করে আয়োজন করা হয়। 
ওই পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, প্রতিটি চার্চে ছয়জন করে পুলিশ সদস্য একজন উপ পরিদর্শকের নেতৃত্বে দায়িত্ব পালন করবেন। এছাড়া সাদা পুলিশের পুলিশ সদস্যরাও নজরদারিতে রাখবেন। আমরা অদৃশ্যমান নিরাপত্তার দিকেই বিশেষ নজর দিচ্ছি। পাশাপাশি ডিজিটাল সিকিউরিটির বিষয়েও আমরা প্রস্তুত আছি।
জেলা প্রশাসক সামসুল আরেফিন বলেন, শুভ বড়দিন ও থার্টি ফার্স্ট নাইটের অনুষ্ঠান নির্বিঘ্নভাবে সম্পন্ন করতে আমরা প্রস্তুত।  আশা করবো কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই আমরা সম্পন্ন করতে পারবো।
সহকারী পুলিশ কমিশনার মো. নুরুল আফছার বলেন, চলতি মাসে প্রত্যেক পুলিশ সদস্য ১২ ঘণ্টা করে দায়িত্ব পালন করছেন। নানা অনুষ্ঠানের কারণে আমরা নিয়মিত ব্যতিব্যস্ত আছি। এই মাসে চট্টগ্রামে আরও অনেক অনুষ্ঠান আছে। আমরা এসব অনুষ্ঠানও সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার জন্য প্রস্তুত আছি।
 জেলা প্রশাসক সামসুল আরেফিনের সভাপতিত্বে সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন, র‌্যাব-৭ এর কর্মকর্তা মো. জামাল উদ্দিন, সহকারী পুলিশ কমিশনার মো. নুরুল আফছার। এছাড়া বিভিন্ন উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা ও বিভিন্ন চার্চের দায়িত্বপ্রাপ্ত খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ