ঢাকা, মঙ্গলবার 27 December 2016 ১৩ পৌষ ১৪২৩, ২৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

বীর মুক্তিযোদ্ধাকে সম্মাননা প্রদান করলো চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন

চট্টগ্রাম অফিস : ৪৬তম মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে ২৬ ডিসেম্বর সোমবার দুপুরে চট্টগ্রাম নগরীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে মহান মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক, ১০ জন বীরাঙ্গনা মুক্তিযোদ্ধা ৫জন সাংবাদিক মুক্তিযোদ্ধাসহ ১৫০ জন বীর মুক্তিযোদ্ধাকে সম্মাননা প্রদান করলো চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন। স্বপরিবারে মুক্তিযোদ্ধাদের সরব উপস্থিতিতে বিরল এ আয়োজনে সভাপতিত্ব করেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। বীর মুক্তিযোদ্ধাদের প্রত্যেককে নগদ ১০ হাজার টাকা, সম্মাননা ক্রেস্ট ও ফুলেল শুভেচ্ছায় সংবর্ধিত করেন সিটি মেয়র।
সংবর্ধিত মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে সাবেক গণ পরিষদ ও সংসদ সদস্য ইসহাক মিয়া, সাবেক গণ পরিষদ ও সংসদ সদস্য আবু সালেহ, সংসদ সদস্য মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম চৌধুরী, মরহুম মৌলভী সৈয়দ আহমদ, জননেতা জহুর আহমদ চৌধুরীর সুযোগ্য সন্তান মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী,বীরঙ্গনা মুক্তিযোদ্ধা তরিকুন নেছা, শরীফা বেগম, আনোয়ারা বেগম, সুফিয়া বেগম, আমেনা খাতুন, কল্পনা সুত্রধর, আমেনা খাতুন, জোহরা খাতুন, ঝর্ণা ও ফজরের নেছা এবং ৫ জন সাংবাদিক মুক্তিযোদ্ধা চট্টগ্রাম সাংবাদিক হাউজিং সোসাইটির চেয়ারম্যান মঈনুদ্দিন কাদেরী শওকত, চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারন সম্পাদক নিজাম উদ্দিন আহমেদ, দৈনিক পূর্বকোণের চীফ রিপোর্টার নওশের আলী খান, প্রবীন ফটো সাংবাদিক দেব প্রসাদ দাশ দেবু এবং দৈনিক আজাদী’র সহ সম্পাদক মরহুম ওসমানুল হকসহ ১৫০ জন।
 সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন সংবর্ধিত মুক্তিযোদ্ধা সাবেক গণপরিষদ ও সংসদ সদস্য এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মোহাম্মদ ইসহাক মিয়া, সংবর্ধিত মুক্তিযোদ্ধা এমপি নজরুল ইসলাম চৌধুরী, এমপি মিসেস সাবিহা নাহার মুসা, রাশিয়ার কনসুল জেনারেল মি.ওলেগ পি.বয়কো, (Mr.Oleg P Boyko), চট্টগ্রামে নিযুক্ত ভারতীয় দূতাবাসে সহকারী হাই কমিশনার সোমনাথ হালদার, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি সংবর্ধিত মুক্তিযোদ্ধা মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী, প্যানেল মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ চট্টগ্রাম জেলা কমান্ডের কমান্ডার মোহাম্মদ সাহাব উদ্দিন, মহানগর ইউনিট কমান্ডার মোজাফফর আহমদ, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব সভাপতি কলিম সরওয়ার, চট্টগ্রাম সাংবাদিক হাউজিং সোসাইটির চেয়ারম্যান সংবর্ধিত মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মঈনুদ্দিন কাদেরী শওকত, চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারন সম্পাদক সংবর্ধিত মুক্তিযোদ্ধা নিজাম উদ্দিন আহমদ, মুক্তিযুদ্ধ গবেষনা কেন্দ্রের চেয়ারম্যান ডা. মাহফুজুর রহমান বক্তব্য রাখেন।
অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবুল হোসেন। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনায় ছিলেন মেয়রের একান্ত সচিব মোহাম্মদ মঞ্জুরুল ইসলাম।
অনুষ্ঠানে মহান মুক্তিযুদ্ধের প্রেক্ষাপট, মুক্তিযুদ্ধ এবং মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি ইত্যাদি বিষয়ে একটি প্রামন্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়। সভার সভাপতি চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণকারী শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের স্মরণ করে বলেন, দায়িত্ব গ্রহণ করার পরই অবহেলিত ও অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাদের দূর্দশার কথা বিবেচনায় এনে দায়িত্ব পালনকালীন সময়ের মধ্যে ৫০ জন মুক্তিযোদ্ধাকে ঘর তৈরী করে দেয়ার পরিকল্পনা গ্রহণ করি। এই পরিকল্পনার আওতায় চলতি অর্থ বছরে ১০ জন মুক্তিযোদ্ধার জন্য ঘর তৈরী করে দেয়া হবে। সরকারের গেজেট বিজ্ঞপ্তিতে খেতাবপ্রাপ্ত বীর মুক্তিযোদ্ধা, শহীদ মুক্তিযোদ্ধা ও যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের হোল্ডিং ট্যাক্স থেকে আওতামুুক্ত রাখা হয়েছে। এছাড়াও দরিদ্র ও হতদরিদ্র মুক্তিযোদ্ধা ও সাধারন নাগরিকদেরকে হোল্ডিং ট্যাক্সের আওতামুক্ত রাখা হয়েছে। সীমিত আয়ের নাগরিকদের হোল্ডিং ট্যাক্স সীমিত আকারে ধার্য করা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ