ঢাকা, শুক্রবার 30 December 2016 ১৬ পৌষ ১৪২৩, ২৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

জাতীয় ক্রিকেট লিগে নাসিরের ডাবল সেঞ্চুরি

স্পোর্টস রিপোর্টার : জাতীয় ক্রিকেট লিগে ডাবল সেঞ্চুরি করেছেন নাসির হোসেন। সিলেট বিভাগের বিপক্ষে গতকাল ডাবল সেঞ্চুরিসহ ২০১ রান করেন অলরাউন্ডার নাসির। চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে জাতীয় লিগের ম্যাচে সিলেট বিভাগের বিপক্ষে তৃতীয় দিন তিনি ডাবল সেঞ্চুরির দেখা পান। এর আগে দ্বিতীয় দিন শেষে ১০৫ রানে অপরাজিত ছিলেন এ ডানহাতি ব্যাটসম্যান। ১৪টি চার ও একটি ছক্কা হাঁকিয়ে নাসির তার শতক পূর্ণ করেছিলেন। তৃতীয় দিন ব্যাটিংয়ে নেমে ডাবল সেঞ্চুরি স্পর্শ করা এই ব্যাটসম্যান হিসেবে সাজঘরে ফেরেন। আবু জায়েদের বলে জাকের আলির তালুবন্দি হওয়ার আগে তিনি উইকেটে ছিলেন ৪৯৫ মিনিট। ৩৪৩ বল মোকাবেলা করে ২০১ রানের দুর্দান্ত ইনিংসটি খেলতে নাসির ২৪টি চারের পাশাপাশি হাঁকিয়েছেন তিনটি ছক্কা। দ্বিতীয় দিন রংপুর বিভাগ ১৮ রানে তিন উইকেট হারিয়ে বসলে উইকেটে আসেন নাসির হোসেন। নাসিরের ডাবল সেঞ্চুরিতে স্বাগতিক সিলেট বিভাগের বিপক্ষে রংপুর এগিয়ে ৮২ রানে। সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আগে ব্যাট করা সিলেট প্রথম ইনিংসে ২৭২ রান করে। জবাবে, নিজেদের প্রথম ইনিংসে রংপুর ৯ উইকেট হারিয়ে ৩৯৮ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করে। পিছিয়ে থেকে ব্যাটিংয়ে নেমে সিলেট দিন শেষে ৩ উইকেট হারিয়ে তুলেছে ৪৪ রান। সিলেটের হয়ে প্রথম ইনিংসে অভিষিক্ত জাকের আলি খেলেন সর্বোচ্ছ ৮৮ রানের ইনিংস। রংপুরের হয়ে তিনটি উইকেট নেন সোহরাওয়ার্দি শুভ। নিজেদের প্রথম ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে দলীয় ১৮ রানের মাথায় তিন উইকেট হারায় রংপুর। পাঁচ নম্বরে ব্যাটিংয়ে নেমে নাসির খেলেন অনবদ্য ২০১ রানের ইনিংস। এছাড়া, রংপুরের হয়ে ৭৮ রান করেন সোহরাওয়ার্দি শুভ। ২৬ রান করেন ধীমান ঘোষ। ২৫ রান করে অপরাজিত থাকেন সাজেদুল ইসলাম। আর ২৬ রানে বিদায় নেন অভিষিক্ত আরিফুল হক। সিলেটের হয়ে ৫টি উইকেট দখল করেন আবু জায়েদ। পিছিয়ে থেকে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি সিলেটের। স্বাগতিকদের দলীয় ২৪ রানের মাথায় তৃতীয় ব্যাটসম্যান সাজঘরে ফেরেন। ওপেনার ইমতিয়াজ ২০ আর দলপতি অলোক কাপালি ১১ রানে অপরাজিত রয়েছেন। বিদায় নিয়েছেন সায়েম আলম (২), জাকির হাসান (১) এবং রাজিন সালেহ (৩)। ৮২ রানে পিছিয়ে থেকে হাতে ৭ উইকেট নিয়ে শেষ দিন রংপুরের বিপক্ষে লড়বে স্বাগতিক সিলেট। এছাড়া জাতীয় ক্রিকেট লিগের পঞ্চম রাউন্ডের ভিন্ন ম্যাচে সুবিধাজনক অবস্থানে ঢাকা বিভাগ ও ঢাকা মেট্রো। চারদিনের ম্যাচের তৃতীয় দিন শেষে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন খুলনা বিভাগের বিপক্ষে ১২৭ রানের লিড নিয়েছে ঢাকা। প্রথম স্তরের অপর খেলায় বরিশালের বিপক্ষে দেড়শ’ রানের লিড ঢাকা মেট্রোর। গতকাল ফতুল্লা স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় ইনিংসে তিন উইকেটে ১০৩ রান নিয়ে দিনের শেষ করে ঢাকা। প্রথম ইনিংসের দুই সেঞ্চুরিয়ান রকিবুল হাসান ২৩ ও সাইফ হাসানের ব্যাট থেকে আসে ২৬। তাইবুর রহমান ২২ ও জাহিদুজ্জামান ১১ রানে অপরাজিত। উইকেট তিনটি নিয়েছেন আল আমিন হোসেন, অধিনায়ক আব্দুর রাজ্জাক ও বিশ্বনাথ হালদার। এর আগে তুষার ইমরানের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে (১৪১) প্রথম ইনিংসে ঢাকার করা ৩৬৬ রানের জবাবে ৩৪২ এ থামে খুলনা। বিকেএসপি’তে মেট্রো ও বরিশালের মধ্যকার ম্যাচটিও ড্র হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। চার উইকেট হারিয়ে ১৩৮ করে মাঠ ছাড়েন মেহরাব হোসেন জুনিয়র (৩০ অপ.) ও মোহাম্মদ আশরাফুল (২০ অপ.)। অর্ধশতক হাকিয়ে আউট হন অধিনায়ক মার্শাল আইয়ুব (৫৪)। একটি করে উইকেট নেন তৌহিদুল ইসলাম, সালমান হোসেন, সালেহ আহমেদ শাওন ও সোহাগ গাজী। প্রথম ইনিংসে মেট্রোর ২৯২ রানের জবাবে সবকটি উইকেট হারিয়ে ২৮০ করে বরিশাল।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ