ঢাকা, বুধবার 04 January 2017, ২১ পৌষ ১৪২৩, ০৫ রবিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

বাগেরহাটে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন

বাগেরহাট সংবাদদাতা : বাগেরহাটে মিনা বেগম (৩৪) নামে এক গৃহবধূকে হত্যার দায়ে স্বামী পুলিশ সদস্য (বরখাস্ত) কাওসার আলী শেখকে (৪০) যাবজ্জীবন কারাদ-াদেশ দিয়েছে আদালত।
মঙ্গলবার দুপুরে বাগেরহাটের অতিরিক্ত দায়রা জজ-১ম আদালতের বিচারক মো. জাকারিয়া হোসেন এ রায় দেন।
দ-প্রাপ্ত কাওসার আলী শেখ বাগেরহাট সদর উপজেলার বেমরতা গ্রামের ইনতাজ উদ্দিন শেখে ছেলে। দ-প্রাপ্ত কাওসার আলী পুলিশ কনস্টেবল হিসেবে গোপাল গঞ্জে কর্মরত ছিলেন। স্ত্রী হত্যার অভিযোগে মামলা দায়েরর পর তাকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়। ওই দম্পতির স্কুলপড়ুয়া দুই মেয়ে রয়েছে।
মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা গেছে, ১৯৯৬ সালে বাগেরহাট সদর উপজেলার বেমরতা গ্রামের মতিয়ার রহমানের মেয়ে মিনা বেগমের সঙ্গে একই গ্রামের মো. কাওসার আলী শেখে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই কাওসার তার স্ত্রীকে নানা কারণে শারীরিক ও মানুষিকভাবে নির্যাতন চালিয়ে আসছিল।
২০১৫ সালের ১২ নবেম্বর দিনগত রাতে কাওসার পরিকল্পিতভাবে তার স্ত্রী মিনা বেগমের নাকে-মুখে বালিশ চাপা দিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে পালিয়ে যায়। পরদিন ভোরে পুলিশ তার বাড়ি থেকে মিনা বেগমের লাশ উদ্ধার করে।
এ ঘটনায় নিহতের ভাই কামরুজ্জামান বাদি হয়ে ১৩ নবেম্বর পুলিশ কনস্টেবল কাওসার আলী শেখকে আসামি করে বাগেরহাট মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ তাকে আটক করে।
মামলা তদন্ত কর্মকর্তা বাগেরহাট মডেল থানার তৎকালীন ওসি-তদন্ত মো. মাহাবুবুর রহমান ২০১৬ সালের ৩১ জানুয়ারি আসামী কাওসারের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র (চার্জশীট) দাখিল করেন। সাক্ষ প্রমানের ভিত্তিতে আসামীর বিরুদ্ধে আনিত আভযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় আদালত এই রায় ঘোষণার করে। এ রায়ে যাবজ্জীবন কারাদন্ডাদেশ ছাড়াও আসামিকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনা দায়ে আরও এক বছরের সশ্রম কারাদন্ডের নির্দেশ দেন বিচারক। অভিযুক্ত কাওসার আলী উপস্থিতে এ রায় ঘোষণা করা হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ