ঢাকা, বৃহস্পতিবার 05 January 2017, ২২ পৌষ ১৪২৩, ০৬ রবিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

বরেন্দ্র এলাকার কৃষকরা শীতকালীন সবজি চাষে লাভবান

বাগমারা (রাজশাহী): বালানগর গ্রামের বেগুনচাষি বেগুন গাছের পরিচর্যা করছেন

বাগমারা (রাজশাহী) সংবাদদাতা: আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় চলতি মওসুমে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় শীতকালীন সবজির বাম্পার ফলন হয়েছে। শীতকালীন সবজি বাজারজাত করে বেশ লাভবান হচ্ছেন স্থানীয় কৃষকরা। উৎপাদনের খরচ তুলে ভালো মুনাফা হওয়ায় এবার কৃষকদের মুখে হাসি ফুটেছে।
জানা গেছে, এলাকার কৃষকরা গত কয়েক মওসুমে শ্রমিকের মজুরী বাড়ায় ধান, ভট্রা, পাট, আলুসহ বিভিন্ন ফসলে ভাল লাভবান হতে পারেনি। ফলে কৃষকদের মাঝে চরম হতাশা ছিল। এমতাবস্থায় শীতকালীন সবজির বাজারমূল্য ভালো থাকার এ বছর বেশি মুনাফা পাচ্ছেন সবজি চাষীরা। প্রতিদিনই তাদের সবজি  এলাকার চাহিদা মিটিয়ে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বাজারজাত করা হচ্ছে।
উপজেলা কৃষি বিভাগ সূত্র জানায়, রাজশাহী অঞ্চল আম ও সবজিরচাষে বিখ্যাত। আমের পর উপজেলার বালানগর,  গোপালপুর, সগুনা ও বালিয়াসহ বিভিন্ন এলাকায় সবজির চাষ  বেশি হয়। অল্প পুঁজিতে বেশি মুনাফার সুযোগ থাকায় সবজি চাষে আগ্রহ বাড়ছে এসব অঞ্চলের কৃষকদের। এতে ধান ও পাটের পরিবর্তে এখন বিভিন্ন ধরনের সবজি চাষ কৃষকরা ঝুঁকছেন। বেশী বেশী সবজি চাষ করেই সচ্ছল জীবিকা নির্বাহ করছেন অনেকে।
সরেজমিন উপজেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে ব্যস্ত সময় পার করতে  দেখা যায় সবজিচাষীদের। বিভিন্ন সবজি খেত ঘুরে দেখা গেলো, ফুলকপি, পাতাকপি, লাউ, বেগুন, করলা, শিম, মুলা, লাউ শাক, লাল শাক, পালং শাক, ধনে ও মুলা শাকসহ বিভিন্ন শাক-সবজির চাষ করা হয়েছে। সকাল-বিকাল ক্ষেত থেকে এসব শাক-সবজি তোলা হচ্ছে।
বালানগর গ্রামের কৃষক আব্দুল মান্নান জানান, গত কয়েক মওসুমে অন্য ফসল করে তেমন লাভ হয়নি। এছাড়া সবজির খরচ কম হওয়ায় বেশী জমিতে সবজিচাষ হয়। এবারে দাম ভাল থাকায় বেশ আয় বেড়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ