ঢাকা, শনিবার 07 January 2017, ২৪ পৌষ ১৪২৩, ০৮ রবিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

করতোয়ার চরে শীতকালীন সবজি চাষে বিপ্লব ঘটেছে

শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) : করতোয়ার চরে সবজি চাষে ব্যস্ত কৃষকরা

এম,এ, জাফর লিটন, শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) থেকে : শাহজাদপুর উপজেলার গাড়াদহ ইউনিয়নের করতোয়া নদীর চরে চরনবীপুর,টেপরী এবং নরিনা ইউনিয়নের চরনরিনা গ্রামের কৃষকরা সব্জি চাষে নিজেদের ভাগ্য বদলে নিয়েছে।
উপজেলার সব্জি চাষের জন্য বিখ্যাত এখন করতোয়া নদীর পূর্বে চরাঞ্চল। এখানকার কৃষকদের উৎপাদিত সব্জিই শাহজাদপুর উপজেলার সব হাট-বাজারের চাহিদা পূরুণ করে বাইরের উপজেলায় বিক্রি করছে। এখানকার জমিগুলো অপেক্ষাকৃত উঁচু হওয়ায় এখানে ফুলকপি, বাঁধাকপি, বেগুন, আলু, টমোটো, সিম, চাষ করে স্বাবলম্ভী হয়ে উঠেছেন কৃষকেরা। এসব এলাকার কৃষকেরা ধান বা অন্যান্য ফসলের চেয়ে সবজি চাষই বেশি লাভজনক মনে করে।
করতোয়া নদীর তালগাছী বাজার খেয়াঘাট পাড় হলেই দিগন্ত বিস্তৃত মাঠ জুড়ে শুধু সব্জি ক্ষেত হাতছানী দিবে। এসব জমিতে শীতকালীণ এসব সব্জি দেখলে মন জুড়িয়ে যায়। এখানকার কৃষক আব্দুস সামাদ জানান, তাঁর প্রায় ৩ বিঘা জমিতে বেগুন ও ফুলকপি চাষ করে প্রতি বছর লাখ লাখ টাকা আয় হচ্ছে। অনউন্নত যোগাযোগ থাকায় সময়মত বাজারে সব্জি বিক্রি করতে কিছুটা হিমসিম খেলেও তা যেন তাদের অভ্যাসে পরিণিত হয়েছে। এখানকার কৃষকরা প্রতিদিন বিকেলে সব্জি তুলে উপজেলার পাইকারী মশিপুর-সরিষাকোল মাদ্রাসা বাজারে নিয়ে আসেন। এখানে উপজেলার কাচামাল ব্যবসায়ীরা অটোভ্যান,লচিমন করিমন সিএনজি গাড়ী নিয়ে সব্জি কিনতে আসে। সময় যত যাচ্ছে ততই করতোয়ার চরাঞ্চলে কৃষকদের মধ্যে সব্জ চাষ অধিক লাভজনক ও জনপ্রিয় হয়ে উঠছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ