ঢাকা, শনিবার 07 January 2017, ২৪ পৌষ ১৪২৩, ০৮ রবিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

ঘণ্টায় ১২ রোগী মারা যাচ্ছে সরকারি হাসপাতালে!

স্টাফ রিপোর্টার : রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশের সরকারি হাসপাতালগুলোতে প্রতি ঘণ্টায় ১২ জন চিকিৎসাধীন রোগী মারা যাচ্ছে। ২০১৫ সালে দেশের মোট ৫৬৭টি হাসপাতালে মোট ৫৭ লাখ ১১ হাজার ৬৪১ রোগী ভর্তি হন। তাদের মধ্যে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এক লাখ ৫ হাজার ৮৫৬ জন মারা যান। মোট ভর্তি রোগীর বিপরীতে শতকরা হিসেবে মৃত্যুহার ১ দশমিক ৮৫ ভাগ।
সম্প্রতি স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়াধীন স্বাস্থ্য অধিদফতর প্রকাশিত বার্ষিক হেলথ বুলেটিন-২০১৬ এ এমন তথ্য উঠে এসেছে। প্রাপ্ত পরিসংখ্যান অনুসারে মোট মৃত রোগীদের শতকরা ৫৮ ভাগ পুরুষ ও ৪২ ভাগ নারী। তন্মধ্যে পাঁচ বছর ও এর কম বয়সী শতকরা ২৪ ভাগ।
মৃত্যুর কারণ বিশ্লেষণে দেখা গেছে, পাঁচ বছর কিংবা তার চেয়ে ছোট শিশুদের ক্ষেত্রে প্রসবকালীন শ্বাসপ্রশ্বাসে সমস্যা, কম ওজন ও অপরিণত বয়সে জন্ম ও সংক্রমণই প্রধান কারণ। ৩০ থেকে ৭০ বছর বয়সীদের ক্ষেত্রে অসংক্রামক রোগজনিত কারণে সর্বোচ্চসংখ্যক মৃত্যু ঘটে।
বিভাগীয় পরিসংখ্যান অনুসারে, ঢাকা বিভাগের বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালে ১৩ লাখ ৪৬২ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ৯ লাখ ৩৩ হাজার ৯৭৫ জন, রাজশাহী বিভাগে ৮ লাখ ২৬ হাজার ৬০৭ জন, রংপুর বিভাগে ৭ লাখ ৫৮ হাজার ৫৮৬ জন, খুলনা বিভাগে ৬ লাখ ৮৯ হাজার ৯৭৬ জন, সিলেট বিভাগে ৪ লাখ ২৫ হাজার ৯৬৯ জন, ময়মনসিংহ বিভাগে ৪ লাখ ১৪ হাজার ৩৩০ জন ও বরিশাল বিভাগে ৩ লাখ ৬১ হাজার ৭৩৬ জন রোগী ভর্তি হন।
জানা গেছে, হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মৃত রোগীদের মধ্যে দেশের ১৪টি সরকারি মেডিকেল কলেজে শতকরা ৬৩ ভাগ অর্থাৎ ৬৬ হাজার ৬২১ জন রোগীর মৃত্যু হয়। সারাদেশের অন্যান্য বড় হাসপাতালে মাত্র শতকরা ৬ ভাগ রোগীর মৃত্যু ঘটে। ৬৫ জেলা ও সদর হাসপাতালে শতকরা ২৪ ভাগ (২৪ হাজার ৯৯৮ জন), ৪২১টি উপজেলা হাসপাতালে শতকরা ৭ ভাগ অর্থাৎ ৭ হাজার ২৪২ জন রোগীর মৃত্যু রেকর্ড করা হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ