ঢাকা, শনিবার 07 January 2017, ২৪ পৌষ ১৪২৩, ০৮ রবিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

অগ্নিকাণ্ডের পর আংশিক খুলেছে ডিএনসিসি মার্কেট

স্টাফ রিপোর্টার : রাজধানীর গুলশান-১ নম্বরে অবস্থিত ডিএনসিসি পাকা মার্কেটের একাংশ খুলেছে। গতকাল শুক্রবার জুমার নামাযের পর আনুষ্ঠানিকভাবে মার্কেটটি খোলা হয়।
ডিএনসিসি মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির চেয়ারম্যান তালাল রিজভী বলেন, ৩০ থেকে ৪০টি দোকান খুলেছে। মার্কেট সংশ্লিষ্টদের সূত্রে জানা গেছে, মার্কেটের পজিশন হারানোর আতঙ্কেই মূলত তাড়াহুড়ো করে এই মার্কেট চালু করা হয়েছে। মার্কেট চালুর উপযোগী না হলেও দোকান খুলেছেন ব্যবসায়ীরা। দুপুরে জুমার নামাযের পর পাকা মার্কেটের সামনে বিশেষ দোয়ার আয়োজন করে ব্যবসায়ীরা। এতে ব্যবসায়ী ছাড়াও আশেপাশের মানুষ অংশ নেন।
গত সোমবার গভীর রাতে আগুনে ডিএনসিসি মার্কেটের একাংশ ধসে পড়ে। তবে বাকি অংশ এখনও অক্ষত আছে। ধসে পড়া ভবন অপসারণের কাজ চলছে। মঙ্গলবার বিকেলে ফায়ার সার্ভিস আগুন নিয়ন্ত্রণের ঘোষণা দেয়। তবে গতকাল শুক্রবার সকালেও ধসে পড়া অংশ থেকে ধোঁয়া বের হতে দেখা যায়। শুক্রবার সকালে সিটি করপোরেশনের ক্রেন দিয়ে সরানো হয় আবর্জনার স্তূপ। ফায়ার সার্ভিসের উপ-পরিচালক সমরেন্দ্র নাথ বিশ্বাস জানান, ভেতরে মালামালে ধরা আগুন হয়ত এখনও জ্বলছে। এ কারণেই ধোঁয়া দেখা যাচ্ছে।
এদিকে ডিএনসিসি মার্কেটে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় যদি কেউ দায়ী বা গাফিলতি করে থাকে তাহলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। গতকাল পুড়ে যাওয়া ডিএনসিস মার্কেট পরিদর্শনে এসে তিনি এ কথা বলেন। তিনি বলেন, অগ্নিকা-ের ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত চলছে। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের সম্পর্কে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, অগ্নিকাণ্ডে ব্যবসায়ীরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। তারা মনঃক্ষুণ্ন। ক্ষতিপূরণ সাধারণত দুইভাগে দেয়া হয়। হতাহত হলে অথবা আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হলে। মার্কেটের ব্যবসায়ীদের দাবি অনুযায়ী নাশকতার বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, অনেকেই অনেক কথা বলে। ফায়ার সার্ভিস তদন্ত শুরু করেছে। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এর আগে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুড়ে যাওয়া ডিএনসিসি পুরো মার্কেট ঘুরে দেখেন এবং ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।
উল্লেখ্য, গত সোমবার রাত ২টার দিকে ডিএনসিসির দুটি মার্কেটে আগুন লাগে। আগুন লাগার ১৫ মিনিটের মধ্যে কাঁচা মার্কেটটি ধসে পড়ে। পরে আগুন পাকা মার্কেটে ছড়িয়ে পড়ে। ১৬ ঘণ্টা পর মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসার ঘোষণা দেন ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের পরিচালক (অপারেশন) মেজর শাকিল নেওয়াজ। ডিসিসি কাঁচা ও পাকা মার্কেটে ৬ শতাধিক দোকান ছিল। আগুনে প্রায় আড়াইশ’ দোকান পুরোপুরি পুড়ে গেছে এবং বাকিগুলো নানাভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে জানান ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীরা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ