ঢাকা, শনিবার 07 January 2017, ২৪ পৌষ ১৪২৩, ০৮ রবিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

পদ্মায় মুখোমুখি সংঘর্ষে দুটি স্পিডবোট নিমজ্জিত নিখোঁজ ২॥ আহত ৮

মাদারীপুর সংবাদদাতা : কাওড়াকান্দি-শিমুলিয়া নৌরুটে মুখোমুখি সংঘর্ষে দুটি স্পিডবোট ডুবির ঘটনা ঘটেছে। ঘনকুয়াশার মধ্যে চলতে গিয়ে শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটে। এতে দুই স্পিডবোটের কমপক্ষে আটজন যাত্রী আহত হয়েছেন। নিখোঁজ রয়েছেন দু’জন। আহতদের স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। তবে ডুবে যাওয়া বোটের যাত্রীরা তাদের সাথে থাকা মালামাল হারিয়েছেন।
কাওড়াকান্দি ঘাট সূত্রে জানা গেছে, শিমুলিয়া থেকে যাত্রীবাহী একটি স্পিডবোট কাওড়াকান্দি ঘাটের কাছাকাছি আসলে কাওড়াকান্দি থেকে ছেড়ে যাওয়া অপর একটি যাত্রীবাহী স্পিডবোটের সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘটে। এ সময় উভয় বোটই পানিতে ডুবে যায়। তাৎক্ষণিকভাবে যাত্রীদের কেউ কেউ সাঁতরে ডাঙ্গায় উঠে আসতে সক্ষম হয় এবং কয়েক জনকে অন্য বোট দিয়ে উদ্ধার করা হয়। তবে দুই জন যাত্রী নিখোঁজ রয়েছে বলে জানা গেছে।
এদিকে লিপি বেগম (৩৫) নামের এক মহিলা নিখোঁজ রয়েছেন বলে দাবি করছেন তার ভাই সফিকুল ইসলাম। তার বাড়ি ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলায়। তিনি জানান, সকালে তার বোন লিপি তার ভাই ও ভাগ্নে নিয়ে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা করে। কাওড়াকান্দি ঘাট থেকে স্পিডবোটে উঠলে ঘাটের তিন নম্বর ফেরি ঘাটে এসে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে। এ সময় ভাই ও ভাগ্নে যথাক্রমে রুবেল ও তৌফিককে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। তবে বোন লিপিকে পাওয়া যাচ্ছে না বলে জানিয়েছেন সফিকুল ইসলাম।
এদিকে ঘাটের একটি সূত্র আরো একাধিক যাত্রী নিখোঁজ রয়েছে বলে জানায়। শিবচর ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ঘটনাস্থলে রয়েছে। টিমের প্রধান মো. সালাউদ্দিন বলেন, ‘খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে ছুটে আসি। স্থানীয়রা ট্রলারে করে যাত্রীদের উদ্ধার করেছে। তবে একজন নিখোঁজ থাকার কথা শুনছি। তবে তা নিশ্চিত নয়। আমরা খোঁজ নিচ্ছি। নিখোঁজ থাকলে প্রয়োজনে ডুবুরী দ্বারা উদ্ধার কাজ শুরু হবে।’
 জানতে চাইলে শিবচর থানার তদন্ত কর্মকর্তা আবুল খায়ের মিয়া জানান, ‘সকালে কাওড়াকান্দি ঘাট এলাকায় স্পিডবোট দুর্ঘটনা ঘটে। তবে সকল যাত্রী উদ্ধার করা হয়েছে। নিখোঁজ বিষয়ে কেউ কোন অভিযোগ করেনি।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ