ঢাকা, বুধবার 11 January 2017, ২৮ পৌষ ১৪২৩, ১২ রবিউস সানি ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

হয়ে গেলো বাসপে’র ১৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনুষ্ঠান

১৯৯৯ সালে ‘বাসপ পুরস্কার’ প্রদান অনুষ্ঠানের  যাত্রা শুরু। ‘মাতৃভাষা দিবস উদযাপন’ ২০০১, ‘কবি বন্দ্যে আলী মিয়ার মৃত্যুবার্ষিকী’, ‘কবি কায়কোবাদের ৫৬তম মৃত্যুবার্ষিকী’, ‘বিজয়দিবস উদযাপন’ ২০০৩, ‘বাসপের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী’, ‘ডক্টর মুহম্মদ শহীদুল্লাহ্র জন্মবার্ষিকী’ ২০০৪, ‘কবি নজরুলের মৃত্যুবার্ষিকী’ ২০০৫, এ ছাড়া  দুস্থ শিল্পীদের কল্যাণে কাজ করা, অপসংস্কৃতির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ তথা নিজস্ব সংস্কৃতিকে প্রতিষ্ঠিত করার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে বাসপ। সেই ধারাবাহিকতাতেই ‘বাসপে’র ১৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে দেশের সামাজিক অঙ্গনের সেরা মানুষদের কাজের স্বীকৃতি হিসেবে ‘বাসপ পুরস্কার’-২০১৬ প্রদানের সিদ্ধান্ত। চলচ্চিত্র বিভাগ, টেলিভিশন বিভাগ, সংগীত বিভাগ, মঞ্চ বিভাগ, সমাজসেবক, গবেষণা, চিকিৎসাসেবা, শিল্প বাণিজ্য, রাজনীতিবীদ, আইনজীবী, শিল্প, সাহিত্য অঙ্গনের সেরা মানুষদের শ্রেষ্ঠত্বের বিচারে পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে গত ২৯ ডিসেম্বর ২০১৬ বৃহস্পতিবার, বিকাল ৫টা, ইসফেন্দিয়ার জাহেদ হাসান মিলনায়তন (বিশ্ব সাহিত্য কেন্দ্র)। সম্মানিত প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন: আলহাজ্ব নাজিম উদ্দিন আলম (সাবেক সংসদ সদস্য, ভোলা-৪)।  অনুষ্ঠান সভাপত্বিত করবেন: কবি মুহাম্মদ রানা হোসেন (নাট্যপরিচালক)। বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন: আলহাজ্ব ইসমাইল হোসেন বেঙ্গল (বীর মুক্তিযোদ্ধা), এসআই ফারুক (সভাপতি, ‘সিডাব’), জনাব শাহ্ আলম ম-ল (চিত্রপরিচালক), জনাব সবুজ ইশতিয়াক (সংস্কৃতিকর্মী), জনাব মামুনুর হাসান  (প্রধান সম্পাদক,খরবপ্রতিদিন), জনাব আলী আজাদ (চিত্রপরিচালক), জনাব আলমগীর রতন (চিত্রপরিচালক), শামীম রেজা (সংস্কৃতিসেবক)। অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেন: শরিফুল আলম পল্লব  ও  মৌসুমী।
আলোচনা শেষে ‘বাসপ পুরস্কার’-২০১৬ গ্রহণ করেন বাসপের  চেয়ারম্যান কবি মুহাম্মদ রানা হোসেন এর হাত থেকে বিশিষ্ট রাজনীতিবীদ আলহাজ্ব নাজিম উদ্দিন আলম। এছাড়া স্বীকৃতি হিসেবে এ বছর ‘বাসপ পুরস্কার’-২০১৬ পেয়েছেন তারা হলেন: অধ্যাপক একেএম আব্দুল আউয়াল (শিক্ষাসেবা), জনাব বদিউল আলম খোকন (চিত্রপরিচালক), জনাব জুলহাস চৌধুরী পলাশ (চিত্রপরিচালক), জনাব এস আই ফারুক (শ্রেষ্ঠ সংগঠক, সভাপতি ‘সিডাব’), জনাব মাসুদ সাঈদী (সমাজসেবক), জনাব মামুন খান (তরুণ অভিনেতা, টেলিফিল্ম ‘সাইকেল হিরো’), জনাব জি এম সালাউদ্দিন (প্রযোজক, আল দাওয়া টিভি), জনাব আনোয়ার শাহী (অনুষ্ঠান প্রযোজক, বিজয় টিভি), জনাব খন্দকার মুন্তাহিদুল আলম  (চিত্রপরিচালক), জনাব কাজী সেলিম (রূপসজ্জাকার, চলচ্চিত্র ‘লাল সবুজের সুর’), ডা. আল আমিন শোভন (চিকিৎসাসেবা), জনাব সবুজ ইশতিয়াক (ভিডিও এডিটর, নাটক ডিবি), জনাব হুমায়ুন কবির বুলু (সিনিয়র ক্যামেরাম্যান, একুশে টেলিভিশন), জনাব তির্থক আহসান রুবেল (প্রযোজক, রঙের মেলা, এসএ টিভি), জনাব শেখ আশিক আহমেদ (অভিনেতা, টেলিফিল্ম ‘সাইকেল চোর’), জনাব ইলিয়াস আহমেদ বুলেট (অভিনেতা), জনাব সান আরাফাত (চলচ্চিত্র অভিনেতা)।
-মুহাম্মদ রুদ্র

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ